উড়ন্ত বিমান থেকে লাশ বাগানে : সেই যুবকের পরিচয় মিলেছে

প্রকাশিত: ৬:০৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৩, ২০১৯

মানুষের জীবনে কত কিছুই না করার শখ থাকে। সেই শখ পূরণে কেউ তিলকে তাল করেন, আবার কেউবা শখ পূরণের ইচ্ছায় নিজের জীবনকে বিপন্ন করে তোলেন। তেমনই এক উদ্ভট ইচ্ছা পূরণ করতে গিয়ে নিজের জীবনটাই হারিয়েছেন নাইজেরিয়ান এক যুবক।

বিবিসির এক খবরে বলা হয়েছে, নাইজেরিয়ান ওই যুবক লন্ডনে যাওয়ার শখ মেটাতে বিমানের ল্যান্ডিং গিয়ারে চড়ে বসেন।  আর তাতেই অকালে প্রাণ হারাতে হয় তাকে। পরে তার লাশ উড়ন্ত বিমান থেকে পড়ে লন্ডনের একটি বাড়ির বাগানে।গত জুনে ওই ঘটনা ঘটলেও নিহত যুবকের পরিচয় তখন পাওয়া যায়নি। মার্কিন টেলিভিশন চ্যানেল স্কাই নিউজের অনুসন্ধানে অবশেষে তার পরিচয় জানা গেছে।

খবরে বলা হয়েছে, নাইজেরিয়ান ওই যুবকের নাম পল মানিয়াসি। কেনিয়ার নাইরোবি বিমানবন্দরের পরিচ্ছন্নতাকর্মী ছিলেন তিনি। নিজের শখ পূরণ করতে এমন কাজ করে বসেন তিনি।লন্ডনের হিথরো বিমানবন্দরগামী কেনিয়ান এয়ারওয়েজের একটি বিমানের ল্যান্ডিং গিয়ারে চড়ে বসেন তিনি। সে সময় বিমানের ল্যান্ডিং গিয়ারের খোপের ভেতর একটি ব্যাগ, পানি এবং কিছু খাবার পাওয়া গিয়েছিল।মানিয়াসির প্রেমিকা জানিয়েছেন, লন্ডন শহর দেখার বিষয়ে তার প্রেমিকের খুবই আগ্রহ ছিল। এ কারণে হয়তো সে বিমানের চাকার কাছে লুকিয়ে লন্ডন যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিল।গত জুন মাসে লন্ডনের দক্ষিণে ক্ল্যাফাম এলাকার একজন বাসিন্দা বিকেলে তার বাড়ির বাগানে রোদ পোহাচ্ছিলেন। আনুমানিক পৌনে ৪টার দিকে তার চোখের সামনে মাত্র কয়েক গজ দূরে আকাশ থেকে ধপ করে একটি মৃতদেহ এসে পড়ে। রক্তে ভেসে যায় তার বাগানের একাংশ।

যে বাড়ির বাগানে মৃতদেহটি পড়েছিল, সেটির পাশের বাড়ির বাসিন্দা বিবিসিকে বলেন, ‘হঠাৎ ‘ধপাস’ করে পতনের জোর একটি শব্দ শুনে দোতলার জানালা থেকে বাইরে তাকিয়ে পাশের বাড়ির বাগানে একটি মৃতদেহ দেখতে পান। বাগানের দেওয়াল রক্তে ভিজে ছিল।তিনি বলেন, ‘আমি দ্রুত বাইরে বেরিয়ে দেখি আমার প্রতিবেশীও বাইরে বেরিয়ে আসছে। ভয়ে কাঁপছিল সে।তবে আকাশ থেকে মৃতদেহটি পড়লেও ছিন্নভিন্ন হয়ে যায়নি। কারণ মৃতদেহটি একটি বরফ খণ্ডের মতো দেখাচ্ছিল বলে জানান ওই ব্যক্তি।

Sharing is caring!