উজিরপুরে বাল্য বিবাহের হিড়িক

প্রকাশিত: ৮:১৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২১

মহসিন মিঞা লিটন, উজিরপুর প্রতিনিধি ॥ বরিশালের উজিরপুরে প্রশাসনকে ফাঁকি দিয়ে একের পর এক চলছে বাল্য বিবাহ, যেন দেখার কেউ নেই। প্রায়ই শোনা যাচ্ছে উপজেলার প্রায় এলাকায়ই চলছে বাল্য বিবাহ। এরমধ্যে কালিহাতায় বাল্য বিবাহে নেই কোন বাধা নিষেধ। প্রায় হচ্ছে বাল্য বিবাহ। বর্তমানে উকিল নোটারির মাধ্যমে ভিন্ন পন্থায় হচ্ছে একাধিক বাল্য বিবাহ। বিভিন্ন এলাকার স্কুল, মাদ্রাসার ৯ম, ১০ম শ্রেণীতে পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রীরা প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে লাপাত্তা হয়। এরপর অভিভাবকরা কিছুদিনের মধ্যে খুঁজে বের করে উভয় পক্ষ মিলে আনুষ্ঠানিক ভাবে তাদের বিবাহ দেয়। আর কতিপয় নিকাহ রেজিস্ট্রারদের পাওয়া যায় হাতের নাগালে।

 

বিবাহের কথা শুনলেই তারা ছুটে যান ঘটনাস্থল। ধরা বাধা কোন বয়সের প্রয়োজন হয়না তাদের। বাড়তি টাকা দিলেই বাল্য বিবাহে থাকেনা বাধা নিষেধ। স্থানীয় সূত্রে আরো জানা যায়, বর্তমানে কতিপয় নিকাহ রেজিস্ট্রাররা দুটি রেজিস্ট্রার বই ব্যবহার করে। প্রাপ্ত বয়স হলে তাদের নাম বালামে অন্তর্ভুক্ত হয়। অপ্রাপ্ত বয়স হলে নাম বালামে অন্তর্ভুক্ত করেননা তারা। ধোঁকা দিয়ে ভুয়া রেজিস্ট্রার খাতা ব্যবহার করছেন। একাধিক ব্যক্তি জানান সুচতুর নিকাহ রেজিস্ট্রাররা বয়স গোপন রেখে জন্ম নিবন্ধন ছাড়াই অহরহ বাল্য বিবাহ পড়াচ্ছেন। সুযোগ পেয়ে অসচেতন অভিভাবকরা তাদের নাবালিকা ছেলে-মেয়েদের বিবাহ দিচ্ছেন। উপজেলাকে বাল্য বিবাহ মুক্ত করার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রনতি বিশ্বাসের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সচেতন মহল।