ইসলামী তাহযীব প্রতিষ্ঠায় ইমামগণ বিরাট ভূমিকা রাখতে পারেন- -ছারছীনার হযরত পীর ছাহেব

প্রকাশিত: ৭:৫০ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১, ২০২১

ছারছীনা থেকে মোঃ আবদুর রহমান ॥ আমীরে হিযবুল্লাহ ছারছীনা শরীফের পীর ছাহেব কেবলা আলহাজ্ব হযরত মাওলনা শাহ্ মোহাম্মদ মোহেব্বুল্লাহ (মা. জি. আ.) বলেন- প্রথম থেকেই ছারছীনা দরবারের উক্ত মুরীদানের মধ্যে আলেমদের আধিক্য বিরাজমান। ওলামায়ে কেরামের নেতৃত্বেই অত্র দরবার শরীফের সিংহভাগ কর্মসূচি আঞ্জাম হয়ে থাকে। আলেমগণ অনেকেই নিয়মিত ইমামতির দায়িত্ব গ্রহণ না করলেও জুময়ার নামাজের খতীব হিসেবে প্রায় সকলেই মসজিদের খেদমতে নিয়োজিত আছেন। বর্তমান সময়ে আলেমদের মধ্যে আকীদা ও আমলের ভিন্নতার কারণে অনেকক্ষেত্রে আম জনতা বিভ্রান্ত হয়ে থাকে। তাই সংগত কারণেই বাংলাদেশ জমইয়াতে হিযবুল্লাহর সহযোগী সংগঠন হিসেবে বাংলাদেশ আইম্মায়ে হিযবুল্লাহ গঠন করেছি। দোয়া করুন আল্লাহ পাক অত্র সংগঠনকে কওমের সহীহ রাহনুমায়ী করার তাওফীক দান করুন।

 

ছারছীনা দরবার শরীফের প্রতিষ্ঠাতা পীর কুতবুল আলম শাহ সূফী হযরত মাওলানা নেছার উদ্দিন আহমদ (রহ.) এর ৬৯ তম এন্তেকাল বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত তিন দিন ব্যাপী ঈছালে ছওয়াব মাহফিলের শেষ দিবসে বাদ ফজর ওজীফা ও তা’লীমের পর ধারাবাহিকভাবে ওয়াজ-নসীহতের প্রোগ্রাম চলমান থাকে। এরই মধ্যে বাদ জোহর অত্র ছারছীনা ছেলছেলা ভূক্ত ইমাম মুয়াজ্জিনদের নিয়ে বাংলাদেশ আইম্মায়ে হিযবুল্লাহর প্রথম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ আইম্মায়ে হিযবুল্লাহ গঠনের দুই মাসের মাথায় অনুষ্ঠিত এ প্রথম সম্মেলনে প্রায় পাঁচ সহস্র ইমাম-মুয়াজ্জিন ও আলেমগণ যোগদান করেন।

 

গতকাল ছারছীনা দরবার শরীফে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ আইম্মায়ে হিযবুল্লাহ প্রথম সম্মেলনে বাদ জোহর প্রধান অতিথির বক্তব্যে পীর ছাহেব কেবলা একথা বলেন।

উক্ত সম্মেলনে উদ্বোধনী ভাষণ দেন সদস্য সচিব মুফতী মাওলানা মাহমুদুল মুনীর হামীম। আরো বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মাওলানা হাফেজ মো: রুহুল আমীন, বাংলাদেশ জমইয়াতে হিযবুল্লাহর নাযেমে আলা ড. মাওলনা সৈয়দ মুহা: শরাফত আলী ও হাফেজ মাওলানা মো: বোরহান উদ্দিন প্রমুখ।

সারাদিন ব্যাপী ঈছালে ছওয়াব মাহফিলে ওয়াজ করেন মুহাদ্দিস মাওলানা মো: সিরাজুম মুনীর তাওহীদ, শাইখুল হাদীস মাওলানা মো: আ: গফ্ফার কাসেমী, মাওলানা কাজী মো: মফিজ উদ্দীন, মুফতী মাওলানা মো: হায়দার হুসাইন প্রমুখ।