আমতলীতে চার জেলের সাত দিনের কারাদণ্ড

প্রকাশিত: ৯:২১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩০, ২০২০

আমতলী প্রতিনিধি ॥
ইলিশ প্রজনন মৌসুমে সরকারী নির্দেশনা উপেক্ষা করে মাছ শিকারের ঘটনায় চার জেলেকে সাত দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আমতলী ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক। বৃহস্পতিবার রাতে আদালতের বিচারক ইউএনও মোঃ আসাদুজ্জামান ওই চার জেলেকে এ দন্ডের আদেশ দেন।

জানাগেছে, ১৪ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত ইলিশ প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ শিকার, আহরণ, পরিবহন ও ক্রয়-বিক্রয় নিষিদ্ধ করেছে সরকার। সরকারী এ নির্দেশনা উপেক্ষা করে বৃহস্পতিবার রাতে আমতলী উপজেলার লোচা গ্রামের রুবেল তালুকদার, সেলিম গাজী, হানিফ হাওলাদার ও দক্ষিণ আমতলী গ্রামের জামাল মৃধা অবৈধ কারেন্ট জাল পায়রা নদীতে ফেলে মাছ শিকার করছিল।

ওই রাতে আমতলী উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ মাহবুবুল আলমের নেতৃত্বে মৎস্য বিভাগ ও পুলিশ যৌথ অভিযান চালায়। তারা অভিযানে চালিয়ে ওই চার জেলেকে আটক এবং ১৬ হাজার মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল জব্দ করে। ওইদিন রাত ১০ টার দিকে চার জেলেকে পুলিশ আমতলী ভ্রাম্যমান আদালতে সোপর্দ করে। আদালতের বিচারক ইউএনও মোঃ আসাদুজ্জামান চার জেলের প্রত্যেককে সরকারী আইন অমান্য করায় সাত দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন এবং একই আদেশে জব্দকৃত জাল পুড়িয়ে ফেলার নির্দেশ দেন। ওই রাতেই জব্দকৃত জাল পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে।

আমতলী উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ মাহবুবুল আলম বলেন, জব্দকৃত ১৬ হাজার মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে।

আমতলী ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ইউএনও মোঃ আসাদুজ্জামান বলেন, সরকারী আইন অমান্য করায় চার জেলেকে সাত দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ এবং জব্দকৃত জাল মৎস্য বিভাগকে পুড়িয়ে ফেলার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

Sharing is caring!