আন্তর্জাতিকভাবে ফ্রান্সকে বয়কট করা হবেঃ মুফতী ফয়জুল করীম

প্রকাশিত: ৮:৩০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৯, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমীর আল্লামা মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম বলেন, ফ্রান্স নবীজীর ব্যঙ্গ চিত্র প্রদর্শন করে যে ঔদ্ধত্য দেখিয়েছে, মুসলিম উম্মাহ আন্তর্জাতিকভাবে বয়কটের মাধ্যমে এর সমুচিত জবাব দেবে।

গতকাল ২৯ অক্টোবর (বৃহস্পতিবার) ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঘোষিত দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিকালে আশ্বিনী কুমার হল চত্বরে বরিশাল মহানগর কর্তৃক আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমীর আল্লামা মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম। তিনি বলেন, হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) শুধু মুসলিম জাতির জন্য নয় বরং সমগ্র জাতির জন্য রহমত স্বরূপ আগমন করেছেন। নবীজীর ব্যাপারে কোন সুস্থ মস্তিষ্কের মানুষ ব্যঙ্গ চিত্র প্রদর্শনের সাহস দেখাতে পারেনা। এমন একটি জঘন্য কাজকে রাষ্ট্রীয়ভাবে স্বীকৃতি প্রদানের মাধ্যমে ম্যাক্রো নিজেকে মানসিক বিকারগ্রস্ত হিসেবে বিশ্ববাসীর কাছে জানান দিয়েছে। তার প্রত্যেকটি বক্তব্য উস্কানি মূলক ও দাঙ্গা সৃষ্টির। দাঙ্গা সৃষ্টিকারী উগ্র এমন একজন মানুষ কোনো রাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হওয়ার যোগ্যতা রাখে না।

তিনি বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, জরুরি ভিত্তিতে সংসদ অধিবেশন ডেকে ফ্রান্সের এ অপকর্মের জন্য নিন্দা প্রস্তাব পাস করুন এবং আমাদের দেশের নাস্তিক-মুরতাদদের ব্যাপারে আইন পাস করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করুন। এদেশের জনগণ উচ্ছৃঙ্খল এবং ইসলাম বিদ্বেষী ব্যক্তি ও রাষ্ট্রের সাথে কোনো সম্পর্ক রাখতে চায় না। সুতরাং ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত কে প্রত্যাহার করার মাধ্যমে ফ্রান্সের সাথে সব ধরনের কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করুন। বাংলাদেশে নিযুক্ত ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতকে ডেকে এদেশের গণমানুষের প্রতিবাদের ভাষা বুঝিয়ে তাকে বিদায় দিন।

তিনি বলেন, বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের পরেও ফ্রান্স ইস্যুতে বাংলাদেশ সরকারের কোনো প্রতিক্রিয়া না থাকায় আমরা রীতিমত হতাশ। বাংলাদেশের জনগণ এ ইস্যুতে আপনাদের অবস্থান সম্পর্কে জানতে চায়। মনে রাখতে হবে, দেশের তৌহিদী জনতা ইসলামবিদ্বেষী কিংবা তাদের দোষরদের কখনোই বরদাস্ত করে নাই এবং ভবিষ্যতেও করবে না।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ বরিশাল মহানগর সেক্রেটারী মাওলানা জাকারিয়া হামিদীর সঞ্চালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন মাহমুদীয়া মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মুফতী মাহবুবুর রহমান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মোঃ আশরাফুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় ছাত্র ও যুব বিষয়ক সম্পাদক মুফতী সৈয়দ এছহাক মোঃ আবুল খায়ের, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন এর কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা মাওলানা সৈয়দ মোঃ নাছির আহমেদ কাউছার, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ বরিশাল নগর সহ-সভাপতি মাওলানা আবদুল মান্নান, জাতীয় ওলামা মাশায়েখ আইম্ম পরিষদ নগর সেক্রেটারী মাওলানা শাহাদাত হোসাইন নূরী, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন নগর সভাপতি মাওলানা আমানুল্লাহ আমান, জাতীয় শিক্ষক ফোরাম নগর সেক্রেটারী প্রিন্সিপ্যাল ওমর ফারুক, ইসলামী আইনজীবী পরিষদ নগর সভাপতি এ্যাড. শেখ আবদুল্লাহ নাসের, ইসলামী যুব আন্দোলন নগর সভাপতি মাওলানা আরিফুল ইসলাম, ইশা ছাত্র আন্দোলন বরিশাল মহানগর সভাপতি রেজাউল করিম, নগরীর ১১ নং ‍ওয়ার্ড ইসলামী যুব আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক আবদুল জলিল আকনসহ বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।

এ সময় বক্তারা ফরাসি পণ্য বর্জনের জন্য মুসলিম জাতিকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান। এ ছাড়া বক্তারা গত ২৭ তারিখ ঢাকায় চরমোনাই পীরের নেতৃত্বে ফরাসি দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচীতে পুলিশি বাধার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

Sharing is caring!