আজকের বার্তায় সংবাদ প্রকাশের পর মুলাদীতে খাল দখলকারীদের দৌড়ঝাঁপ

প্রকাশিত: ৮:৪০ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৭, ২০২১

কে.এম মোশাররফ হোসেন, মুলাদী প্রতিনিধি ॥ দৈনিক আজকের বার্তা পত্রিকায় মুলাদীতে সরকারি খাল দখল করে বহুতল ভবন নির্মাণের সংবাদ প্রকাশের পর ভূমিদস্যুরা বিভিন্ন মহলে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন। বুধবার খাল দখলকারীর উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর কার্যালয়সহ বিভিন্ন দপ্তরের দৌড়ঝাঁপ করে নিজেদের রক্ষার চেষ্টা করছেন। সংবাদ প্রকাশের পর উপজেলা ভূমি অফিস ভবন নির্মাণের কাজ বন্ধ করে দেওয়ায় ভূমিদস্যুরা তাদের জমির মালিকানা দাবী প্রমাণের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

 

জানাগেছে, উপজেলার সফিপুর ইউনিয়নের বোয়ালিয়া গ্রামের মৃত নোমান সিকদারের পুত্র সাইদুল সিকদার ও তার ভাই নজরুল সিকদার সোনামদ্দিন বন্দর এলাকায় ফসলি জমির পানি চলাচলের খাল দখল করে বহুতল ভবন নির্মাণ শুরু করেন।

 

এতে কায়েতমারা, বোয়ালিয়া, বাটামারা, সফিপুর এলাকার ফসলি জমিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টির শঙ্কা দেখা দেয়। এনিয়ে সোনামদ্দিন বন্দরের ব্যবসায়ী ও স্থানীয় কৃষকদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হলেও ভূমিদস্যুদের ভয়ে কেউ প্রতিবাদ করতে সাহস পায়নি। উপজেলার দ্বিতীয় বৃহত্তম সোনামদ্দিন বন্দরের পূর্ব পার্শ্বে খালের ওপর ব্রিজের উত্তর পাশের সরকারি জমি দখল করে বহুতল ভবন নির্মাণ করের। গত ১৫ জানুয়ারি ওই ভূমিদস্যুরা সোনামদ্দিন ব্রিজের দক্ষিণ পাশের সরকারি জমি ও খাল দখল করে বহুতল ভবন নির্মাণ শুরু করেন। ওই সময় ফসলি জমিতে জলাবদ্ধতার আশঙ্কা সাধারণ কৃষক ও বন্দরের ব্যবসায়ীরা বাধা দিলেও তারা স্থানীয় একটি মহলকে ম্যানেজ করে ভবন নির্মাণের কাজ অব্যাহত রাখেন।

 

বিষয়টি নিয়ে গত ২৭ জানুয়ারি দৈনিক আজকের বার্তায় সংবাদ প্রকাশ হলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) সহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরের নজরে আসে এবং উপজেলা ভূমি অফিস থেকে লোক গিয়ে ভবন নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেয়। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ শাহানুর জামান বলেন সরকারি খাল দখলের অভিযোগ ওঠায় ভবন নির্মাণের কাজ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে এবং ভবন নির্মাণকারীদের কাগজপত্র ভূমি অফিসে দাখিল করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।