আগৈলঝাড়ায় যৌতুকের জন্য স্ত্রী’কে নির্যাতনের মামলায় অভিযুক্ত স্বামী গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৮:০৬ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০

আগৈলঝাড়া সংবাদদাতা ॥

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় স্ত্রীর দায়ের করা যৌতুক ও নির্যাতনের মামলায় অভিযুক্ত স্বামীকে মঙ্গলবার রাতে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার দুপুরে গ্রেফতারকৃতকে বরিশাল আদালতে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

থানার অফিসার ইন চার্জ মো. আফজাল হোসেন এজাহারের বরাত দিয়ে জানান, উপজেলার মুড়িহার গ্রামের বশির সিকদারের স্ত্রী এক সন্তানের জননী টুম্পা বেগম (২৩) অভিযোগ করেন, তার বিয়ের নয় বছরের মধ্যে তার স্বামী বশির সিকদার (৩০) শাশুড়ি জাহানারা বেগম (৪৮) ও চাচাতো দেবর স্বপন সিকদার(৩২)র প্ররোচনায় টুম্পাকে তার বাবার বাড়ি থেকে বিদেশ যাবার জন্য যৌতুক বাবদ ২ লাখ টাকা এনে দিতে বলেন। টুম্পার তার বাবার কাছে স্বামী বিদেশ যাবার কথা জানালে তার বাবা বহু কষ্ট করে জামাই বশিরকে বাড়িতে ডেকে এনে ২লাখ টাকা যৌতুক প্রদান করেন।

যৌতুকের দুই লাখ টাকা পেয়ে বশির নিজে বিদেশ না গিয়ে তার ছোট ভাই নবিউলকে বিদেশ পাঠায়। নবিউল বিদেশ যাবার পরে পুনরায় বশির নিজে বিদেশ যাবার কথা বলে টুম্পাকে তার বাবার বাড়ি থেকে আরও চার লাখ টাকা এনে দিতে বলেন। টুম্পা তার বাবার বাড়ি থেকে টাকা এনে দিতে অস্বীকার করলে সোমবার বিকেলে স্বামী বশির ও তার মা টুম্পাকে লাঠিপেটা করে আহত করেন। এসময় চাচাতো দেবর স্বপনও মারধরে সহায়তা করেন। টুম্পার ডাক চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে আহতাবস্থায় তাকে উদ্ধার করে বাবার বাড়ি খবর দিলে টুম্পার বাবার বাড়ির লোকজন টুম্পাকে তাদের বাড়িতে নিয়ে গৌরনদী হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে টুম্পা বাদী হয়ে স্বামী, শাশুড়ি ও চাচাতো দেবরকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেন, নং-১৪ (২৩.৯.২০)।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই শাহাবুদ্দিন ওই রাতেই অভিযান চালিয়ে প্রধান অভিযুক্ত স্বামী বশির সিকদারকে গ্রেফতার করেছেন। বুধবার দুপুরে গ্রেফতারকৃত বশিরকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Sharing is caring!