আগৈলঝাড়ায় বন বিভাগের সহায়তায় সরকারী রাস্তার গাছ কাটছেন আওয়ামী লীগ নেতা

প্রকাশিত: ৪:৪৭ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৫, ২০২০

আগৈলঝাড়া সংবাদদাতা ॥

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় বনায়ন কর্মকর্তার যোগসাজশে টেন্ডার ছাড়াই সরকারী রাস্তার পাশের বনায়নের লক্ষাধিক টাকা মূল্যের গাছ কাটছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা।

সরেজমিনে একাধিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের বাকাল-বাটরা-বাহাদুপুর সড়কের বাটরা বাজারের দক্ষিণ পার্শ্বের সড়কের লক্ষাধিক টাকা মূল্যের বিভিন্ন প্রজাতির ১৫টি গাছ সোমবার ও মঙ্গলবার শ্রমিক দিয়ে কাটছিলেন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক তপন সরকার।
রাস্তার পাশে সরকারী বনায়নের গাছ বিক্রি করতে দরপত্র আহবান বা উপজেলা পরিষদের অনুমতি নিয়ে গাছ কাটার নিয়ম থাকলেও সেখানে ওই নিয়ম মানা হয়নি।

টেন্ডার বা সংশ্লিষ্ট উপজেলার পরিষদের কোন অনুমতি ছাড়াই সম্পূর্ণ অবৈধভাবে উপজেলা বনায়ন কর্মকর্তা মনিন্দ্র নাথ হালদার ওই গাছ কাটার অনুমতি দেয়ার অভিযোগ করেছেন স্থানীয় লোকজন। স্থানীয়দের অভিযোগ, এর পূর্বেও বন বিভাগের সহযোগিতায় তাদের ম্যানেজ করে রথবাড়ি রাস্তার প্রায় দেড় লাখ টাকা মূল্যের ৫টি গাছ কেটে নিয়েছেন স্থানীয়রা।

অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতা তপন সরকার বলেন, বৃষ্টির কারণে গাছ উপড়ে পড়ে সড়ক ভেঙে যাওয়া রোধে উপজেলা বনায়ন কর্মকর্তা মনিন্দ্র নাথ হালদার ওই গাছ কাটার অনুমতি দিয়েছেন। তাই তারা গাছ কাটছেন। যা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানও অবগত রয়েছেন।

উপজেলা বনায়ন কর্মকর্তা মনিন্দ্র নাথ হালদার বলেন, বাটরা বাজারের দক্ষিণ পাশে সড়ক গাছের কারণে ভেঙে যাবে বলে ইউপি চেয়ারম্যান ইলিয়াস তালুকদার তাকে অবহিত করলে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখবেন জানালেও তার যাওয়ার পূর্বেই স্থানীয়রা কয়েকটি গাছ কেটে ফেলেছেন। ঘটনাস্থলে গিয়ে ১৫টি গাছ স্থানীয় তপন সরকারসহ একাধিক লোকজন শ্রমিক নিয়ে কেটেছে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ১৫টি কাটা গাছ তিনি তার দপ্তরের লোক পাঠিয়ে মঙ্গলবার একটি লট করেছেন। ওই লটে আনুমানিক ৫০ থেকে ৬০ ঘনফুট গাছ হতে পারে বলে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, কোন অসৎ উদ্দেশ্যে গাছ কাটা হয়নি।

Sharing is caring!