আগরপুরে ভেঙে পড়েছে বাঁশের সাঁকো দুর্ভোগে ২ গ্রামের সহস্রাধিক মানুষ

প্রকাশিত: ১০:৩৫ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৬, ২০২০

আরিফ হোসেন, বাবুগঞ্জ সংবাদদাতা  ::

বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়নের লাশঘাটা খেয়াঘাট সংলগ্ন লাশঘাটা-আগরপুর খালের বাঁশের সাঁকোটি ভেঙে পড়েছে।
যার কারণে চরউত্তর ভূতেরদিয়া ও ব্রাক্ষ্মণদিয়া লাশঘাটা ২ গ্রামের স্কুল শিক্ষার্থী সহ সহস্রাধিক মানুষের যাতায়াত বিঘ্নিত হচ্ছে প্রতিনিয়িত ।
গতকাল দুপুরে জোয়ারের পানির তোড়ে বাঁশের সাঁকোটি ভেঙে নদীতে পড়ে যায়। প্রতিদিন সাঁকোটি পারাপার হয়ে বহু মানুষ যাতায়াত করতো। এখন তারা আর সাঁকো দিয়ে যাতায়াত করতে পারছে না। গত দুই বছর আগে স্থানীয় জনগণ ও জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে চাঁদা তুলে অর্ধলক্ষাধিক টাকা ব্যয়ে বাঁশের সাঁকোটি নির্মাণ করা হয়েছিল।

সাঁকোটি ভেঙে যাওয়ায় ওইসব এলাকার বাসিন্দা ও হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের বেশি দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়নের সঙ্গে ও আগরপুর বাজারের যোগাযোগের ক্ষেত্রে আগরপুরের লাশঘাটা খেয়াঘাট নামক স্থানের লাশঘাটা – আগরপুর খালের দুই পাড়ের স্কুল শিক্ষার্থী সহ সহস্রাধিক মানুষ নদীর ওই বাঁশের সাঁকো দিয়ে পারাপার হয়ে উপজেলা সদর, জেলা সদর বরিশাল, গৌরনদী, বাটাজোড় সহ বিভিন্ন স্থানে চলাচল করে। এই স্থানের গ্রামের মানুষ বর্ষাকালে খেয়ায় এবং গ্রীষ্মকালে নদীর ওপর ওই স্থানে নির্মিত বাঁশের সাঁকো দিয়ে পারাপার হয়ে থাকেন। খেয়া ও সাঁকো পারাপার হতে সাধারণ মানুষের নানা ভোগান্তি পোহাতে হয়। বিশেষ করে বর্ষা মৌসুম এলে এই ভোগান্তি চরম আকার ধারণ করে।

লাশঘাটা খেয়াঘাট সংলগ্ন লাশঘাটা – আগরপুর খালের উপর দিয়ে একটি ব্রিজ নির্মাণের দাবি করে আসলেও অজ্ঞাত কারণে বিজটি নির্মিত হচ্ছে না বলে এলাকার বাসিন্দারা অভিযোগ তোলেন।

স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মী রফিকুল ইসলাম রনি বলেন, বাঁশের সাঁকোটি ভেঙে যাওয়ায় তার ইউনিয়নবাসীর দুর্ভোগ বেড়েছে। সাঁকেটি ভেঙে যাওয়ায় শুধু সদরের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন নয়, রোগীরাও এই খেয়াঘাট দিয়ে হাসপাতালে যেতে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। এলাকার বাসিন্দারা নদীর ওই স্থানে ব্রিজ নির্মাণের দাবি জানিয়েছেন।

Sharing is caring!