অবহেলায় কলাপাড়ার শহীদ সুরেন্দ্র মোহন চৌধুরী সড়কের নামফলক


Deprecated: get_the_author_ID is deprecated since version 2.8.0! Use get_the_author_meta('ID') instead. in /home/ajkerbarta/public_html/wp-includes/functions.php on line 4861
প্রকাশিত: ৮:২৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৮, ২০২০

মেজবাহউদ্দিন মাননু, কলাপাড়া প্রতিনিধি ::

কলাপাড়ায় শহীদ সুরেন্দ্র মোহন চৌধুরীর স্মরনে তার সম্মানে নামকরন করা সড়কের নামফলকটি ভেঙে পড়ে আছে। দেশ স্বাধীনের ৪২ বছর পরে কলাপাড়া পৌরশহরের মনোহরপট্টি থেকে ভূমি অফিস পর্যন্ত সড়কটির নামকরন করা হয় ১৯৭১ সালে পাক হানাদারের সঙ্গে সম্মুখযুদ্ধে শহীদ হওয়া এ বীর সন্তানের নামে। কিন্তু সম্প্রতি নামফলকটি ভেঙে ফেলা হয়েছে। নামফলকটি সংস্কার না করায় স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এমনকি কী কারনে, কে বা কারা এটি ভেঙে ফেলেছে তা নিয়ে প্রশাসনসহ কারও কোন মাথাব্যথা নেই। সবাই এসড়কটি দিয়ে চলাচল করলেও এটি সংস্কারের উদ্যোগ কিংবা পুনঃস্থাপিত করছেন না। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কলাপাড়া উপজেলা কমান্ড কাউন্সিলের সাবেক কমান্ডার বদিউর রহমান বন্টিনসহ অন্যান্য সদস্যরা।

কলাপাড়ার প্রবীণ রাজনীতিবিদ ও মুক্তিযোদ্ধারা জানান, ৭১ সালে পাক হানাদার বাহিনীর সঙ্গে সম্মুখযুদ্ধে শহীদ হন সুরেন্দ্র মোহন চেীধুরী। ২০১৩ সালে কলাপাড়া পৌরসভার উদ্যোগে তৎকালীন পৌর মেয়র মুক্তিযোদ্ধা এসএম রাকিবুল আহসান শহীদ মুক্তিযোদ্ধা সুরেন্দ্র মোহন চেীধুরী ও শওকত হোসেনের নামে দুটি সড়কের নামকরণ করেন। স্থাপন করেন নামফলক। কিন্তু শহীদ সুরেন্দ্র মোহন চৌধুরীর নামফলকটি ভেঙে ঝুলে আছে। সকলের অভিযোগ, এটি ভেঙে ফেলা হয়েছে।

এই প্রজন্মের স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী নম্রতা মুন ও তমাল জানায়, বঙ্গবন্ধুর ডাকে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন শহীদ সুরেন্দ্র মোহন চেীধুরী কে, আমরা জানতেও পারতাম না। এ সড়কের নামফলক তা জানার সুযোগ করেছে। আমরা শুধু বিভিন্ন দিবস এলেই মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের সম্মান করি। তাদের জন্য বিশেষ প্রার্থণা করি। কিন্তু বাস্তবে একজন শহীদ মুক্তিযোদ্ধার নামফলক ভেঙ্গে পড়ে থাকলেও কেউ বিষয়টি দেখছেন না। এটি খুবই দুঃখজনক। লজ্জারও পরিচয়।

কলাপাড়া মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বদিউর রহমান বন্টিন ক্ষুব্ধ মনোভাব নিয়ে জানান, নামফলকটি এভাবে ভেঙ্গে পড়া দেখে কষ্ট হচ্ছে। তার সন্দেহ স্বাধীনতা বিরোধী চক্র এটা ভেঙে ফেলতে পারে। মুক্তিযোদ্ধা ও প্রবীণ সাংবাদিক হাবিবুল্লাহ রানা বলেন, নামফলকটি কীভাবে ভেঙে পড়েছে তাঁর অনুসন্ধান করা হচ্ছে। বিষয়টি মৌখিকভাবে প্রশাসনকে জানানো হয়েছে। কলাপাড়া নাগরিক উদ্যোগের আহবায়ক কমরেড নাসির তালুকদার বলেন, যাদের ত্যাগের বিনিমিয়ে আমরা স্বাধীনতা পেলাম আজ তাঁদের স্মৃতি রক্ষার কেউ নাই। শহীদ মুক্তিযোদ্ধা সুরেন্দ্র মোহন চৌধুরীর ত্যাগ কলাপাড়াবাসী সঠিকভাবে জানেন না, তাঁকে ও তাঁর পরিবারকে যথাযথ সম্মান দেয়া হয়নি।

কলাপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান ও সাবেক পৌর মেয়র এস এম রাকিবুল আহসান বলেন, নতুন প্রজন্মের শিশুদের কাছে মুক্তিযোদ্ধাদের পরিচিত করতে তৎকালীন সময়ে দুটি সড়ক শহীদ দুই মুক্তিযোদ্ধার নামে নামকরণ করেছি। নিজে একজন মুক্তিযোদ্ধা হয়ে এখন সুরেন্দ্র মোহন চৌধুরীর ভেঙে পড়ে থাকা নামফলকটি দেখে কষ্ট হচ্ছে।

কলাপাড়া পৌরসভার মেয়র বিপুল চন্দ্র হাওলাদার বলেন, ভেঙে পড়া নামফলকটি দেখেছেন। কীভাবে এটি ভেঙে পড়ে আছে তা না জানলেও ফলকটি দ্রুত নতুনভাবে নির্মাণ করার কথা জানালেন।

কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কলাপাড়া মুক্তিযোদ্ধা সংসদের প্রশাসক আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হক বলেন, নামফলক ভেঙে পড়ার বিষয়টি তাঁকে কেউ জানায় নি। জরুরী ভিত্তিতে ভেঙে পড়া ফলকটি নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হবে।