আজকের বার্তা | logo

৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২০শে মে, ২০১৯ ইং

বিশুদ্ধ পানির ভয়াবহ সংকট বরিশাল নগরীতে, চারিদিকে হাহাকার

প্রকাশিত : মে ১৪, ২০১৯, ১৬:৫৪

বিশুদ্ধ পানির ভয়াবহ সংকট বরিশাল নগরীতে, চারিদিকে হাহাকার

বিশুদ্ধ পানির ভয়াবহ সংকট চলছে বরিশাল নগরীতে। সিটি করপোরেশন থেকে অপ্রতুল সরবরাহ এবং গভীর নলকূপে পর্যাপ্ত পানি না ওঠায় এই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।অভিজাত বিভিন্ন এলাকায় ব্যক্তিগত টিউবওয়েল থেকে পানির চাহিদা মেটানো হলেও বিশেষ করে বস্তি এলাকায় চলছে সুপেয় পানির হাহাকার। সংকট মেটাতে বিভিন্ন বস্তি এলাকায় বিকল্প ব্যবস্থায় সুপেয় পানি সরবরাহের উদ্যোগ নিয়েছে সিটি করপোরেশন।এদিকে সাময়িক বিশুদ্ধ পানির সংকটের জন্য নগরবাসীর কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছেন বিসিসি মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ।

বিসিসি সূত্র জানায়, নগরীতে ৭ লক্ষাধিক মানুষের বসবাস। এর মধ্যে গৃহ (বসতি) রয়েছে ৫২ হাজার। কিন্তু বিসিসি’র পানির গ্রাহক আছেন ২২ হাজার। বাকি গ্রাহকরা ব্যক্তিগত টিউবওয়েলসহ বিভিন্ন উৎস্য থেকে বিশুদ্ধ পানির চাহিদা মিটিয়ে থাকেন। বিসিসি সূত্র জানায়, নগরবাসীর পানির চাহিদা মেটাতে ৩৬টি পাম্প হাউজ রয়েছে তাদের। এর মধ্যে ৪টি পাম্প অচল। বাকি ৩২টি পাম্প এবং বিসিসির স্থাপন করা ১ হাজার ৩২০টি টিউবওয়েল দিয়ে দৈনিক ২ কোটি ৯০ লাখ লিটার বিশুদ্ধ পানির সরবরাহ করা হয়। কিন্তু সিটি করপোরেশনের হিসেবেই নগরবাসীর দৈনন্দিন পানির চাহিদা ৫ কোটি ৫০ লাখ লিটার। সে হিসেবে প্রতিদিন পানির ঘাটতি ২ কোটি ৬০ লাখ লিটার।

নগরীর সদর রোডের দক্ষিণাঞ্চল গলির জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, দক্ষিণাঞ্চল গলিতে অনেক আগে একটি টিউবওয়েল স্থাপন করেছিলো সিটি করপোরেশন। কিন্তু গত কয়েক বছর ধরে ওই টিউবওয়েলে স্বাভাবিকভাবে পানি উত্তোলন হচ্ছে না। প্রতিদিন ভোরে কিছু সময়ের জন্য পানি উঠলেও দিনের অন্যান্য সময় পানির জন্য হাহাকার করতে হয় স্থানীয়দের। নগরীর ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের খান সড়ক এলাকার বাসিন্দা কাজী জহুরুজ্জামান জানান, সিটি করপোরেশনের পানির লাইনে আগে দিনে একবার কিছু সময়ের জন্য পানি দেওয়া হতো। রমজানে বিকেলে কিছু সময়ের জন্য পানি দেওয়া হয়। কিন্তু এই পানি দিয়ে তাদের গোসল, রান্না, কাপড় ধোয়াসহ অন্যান্য গৃহস্থালী কাজ হয় না। নগরীর বান্দ রোডের শিশুপার্ক এলাকার বাসিন্দা মো. সোহেল জানান, তাদের বাড়িতে সিটি করপোরেশনের সরবরাহ পাইপ লাইন থাকলেও পানি আসছে না। সিটি করপোরেশনে অভিযোগ করেও কোনও প্রতিকার পাচ্ছেন না। এছাড়া তাদের বাড়ির মধ্যে অনেক আগে স্থাপন করা একটি টিউবওয়েলে পানি উঠছে না। এ কারণে বিশুদ্ধ পানির চরম সংকটে পড়েছে তার পরিবার।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, নগরীর বিভিন্ন বস্তি (কলোনি) প্রধান এবং বর্ধিত এলাকায় সুপেয় পানির সংকট সব চেয়ে বেশি। সিটি করপোরেশন থেকে পানি সরবরাহের ব্যবস্থা না থাকায় টিউবওয়েল স্থাপনের শত শত আবেদন পড়েছে নগর ভবনে। তবে টিউবওয়েল স্থাপনে সিটি করপোরেশনের রাজস্ব ফি বেশি থাকায় আগ্রহ হারিয়ে ফেলছেন অনেকে।

নগরীর আলেকান্দার বাসিন্দা রোকেয়া বেগম জানান, নগরীর বাসা বাড়িতে একটি টিউবওয়েল (দেড় ইঞ্চি ব্যাসের পাইপ) স্থাপনে আগে সিটি করপোরেশনকে রাজস্ব দিতে হতো ৩০ হাজার টাকা। মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ এই রাজস্ব অর্ধেক করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেও এখন সর্বনিম্ন রাজস্ব দিতে হচ্ছে ২৩ হাজার টাকা। অতিরিক্ত রাজস্বের কারণে টিউবওয়েল স্থাপনে ধীরগতি দেখা যাচ্ছে। এদিকে পানি সংকট মোকাবেলায় সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে গাড়িতে করে বিভিন্ন এলাকা, বিশেষ করে বস্তি এলাকায় বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করা হচ্ছে। সিটি করপোরেশনের পানি শাখার নির্বাহী প্রকৌশলী মো. হুমায়ুন কবির জানান, বিকল পাম্পগুলো সচল করে পানি উৎপাদন বাড়ানোর চেষ্টা চলছে।

সিটি মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ বলেন, বিশুদ্ধ পানি সংকট এক দিনে নয়, বিগত দিনের ধারাবাহিকতায় এ সংকট সৃষ্টি হয়েছে। সংকট সমাধানে নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।সাময়িক সময়ের জন্য বিশুদ্ধ পানি সরবরাহে সংকট সৃষ্টি হওয়ায় নগরবাসীর কাছে দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি। একই সঙ্গে বিশুদ্ধ পানির সরবরাহ দ্রুত স্বাভাবিক করার প্রতিশ্রুতি দেন মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।