আজকের বার্তা | logo

১১ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২৪শে জুন, ২০১৯ ইং

দখলে বিপর্যস্ত নগরীর ২২ খাল

প্রকাশিত : এপ্রিল ০৬, ২০১৯, ১৩:০১

দখলে বিপর্যস্ত নগরীর ২২ খাল

এম. বাপ্পি ॥ দখলদারীদের দৌরাত্ম্যে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে নগরীর ২২ খাল। ক্রমাগত দখলের কারণে সংকুচিত হয়ে পড়া খালগুলো এখন অস্তিত্ব সংকটে পড়েছে। জোয়ার-ভাটা প্রবাহিত খালগুলো পানির স্তর সহনীয় পর্যায়ে রাখার পাশাপাশি প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষা এবং জলাবদ্ধতা দূরীকরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এ অবস্থায় নগরীর খালগুলো পুনঃখনন এবং রক্ষণাবেক্ষণে দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। সূত্র মতে, নগরীতে বর্তমানে ২২টি খাল রয়েছে। এগুলো হল- নগরীর ১, ২, ৭, ৮, ৯, ১৯ ও ২০ নং ওয়ার্ডের জেল খাল; ১২, ১৪, ২৩, ২৪ ও ২৫ নং ওয়ার্ডের সাগরদী খাল; ১, ৩ ও ২৯ নং ওয়ার্ডের লাকুটিয়া খাল; ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের আমানতগঞ্জ খাল; ১২, ১৩ ও ১৪ নং ওয়ার্ডের নাপিতখালী খাল; ১০ ও ১৬ নং ওয়ার্ডের ভাটার খাল; ১৬, ২৬ ও ২৭ নং ওয়ার্ডের ভাড়ানীর খাল; ৯, ১১, ২৩, ২৫, ২৬ নং ওয়ার্ডের শোভারানীর খাল (চাঁদমারীর খাল); বরিশাল-বানারীপাড়া রোড থেকে কুদঘাটা পর্যন্ত ২৭ নং ওয়ার্ডের ভেদুরিয়া খাল; ২৯ ও ৩০ নং ওয়ার্ডের ইছাকাঠী উ: কড়াপুর রাস্তা সংলগ্ন খাল; ৩০ নং ওয়ার্ডের কলাডেমা খাল; ২২, ২৩ ও ২৭ নং ওয়ার্ডের নবগ্রাম খাল; ২৬ নং ওয়ার্ডের হরিনাফুলিয়া খাল; ৯, ২৩, ২৫ ও ২৬ নং ওয়ার্ডের পুডিয়া খাল, ৩ ও ৪ নং ওয়ার্ডের সাপানিয়া খাল; ৪ নং ওয়ার্ডের জাগুয়া খাল; উ: নবগ্রামের সাগরদী খাল এবং টিয়াখালী খাল, কাশীপুর খাল, ঝোড়াখালি খাল ও সোলনা খাল। তবে ক্রমাগত ভরাট, দখলের কবলে পড়ে নগরীর প্রাণ হিসেবে পরিচিত এ সকল খালের অধিকাংশই এখন বিলীনের পথে। জোয়ার-ভাটার পথ রুদ্ধ। স্বাভাবিক পানি প্রবাহ বাধাগ্রস্ত হওয়ায় এগুলো মৃতপ্রায় রূপ ধারণ করেছে। যার প্রভাব পড়ছে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহে। সর্বশেষ ২০১৬ সালের ৪ অক্টোবর জেলা প্রশাসন, বিসিসি, জেলা পরিষদ, পানি উন্নয়ন বোর্ড, বিআইডব্লিউটিএ, এলজিইডিসহ বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং উন্নয়ন সংগঠনের প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত এক সভায় নগরীর মধ্য দিয়ে প্রবাহিত ২২টি খাল চিহ্নিত করে তা রক্ষায় সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছিল। পরবর্তীতে এর কার্যক্রম অনেকটা ঝিমিয়ে পড়ে। আর এ সুযোগে বেড়ে যায় খাল দখলের দৌরাত্ম্য। এ প্রসংগে ‘ওয়াটার ও হাইজিন’ বিষয়ক গবেষক ডা. জাকির হোসেন বলেন, খালের পানি প্রবাহ নিশ্চিত হলে পানির স্তর সহনীয় পর্যায়ে থাকে। ফলে গভীর নলকূপ থেকে পানি উত্তোলন অনেকটাই সহজতর হয়। এ অবস্থারোধে নগরীর খালগুলো পুনঃখনন করা প্রয়োজন। পাশাপাশি খাল সংলগ্ন স্থানে সøুইসগেট এবং পাম্প হাউস নির্মাণ করা উচিত। এর ফলে শুষ্ক মৌসুমেও খালে পানির অবাধ প্রবাহ নিশ্চিতকরণ এবং পানির স্তর সহনীয় মাত্রায় নিয়ে আসা সম্ভব হবে। জানতে চাইলে বিসিসি’র পানি সরবরাহ শাখার নির্বাহী প্রকৌশলী ওমর ফারুক পানির স্তর নেমে যাওয়ার বিষয়টি “জাতীয় ইস্যু” হিসেবে অভিহিত করে জানান, খালগুলো বরিশাল নগরীর প্রাণ। এগুলোর জোয়ার-ভাটা প্রবাহিত নিশ্চিতকরণে শীঘ্রই তারা সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণ করবেন। পাশাপাশি খাল রক্ষায় নগরবাসীকে সচেতন হবারও আহ্বান জানান তিনি।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।