আজকের বার্তা | logo

৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২০শে মে, ২০১৯ ইং

কুয়াকাটায় পাঁচ লাখ ইয়াবার চালান বেরিয়ে আসছে চাঞ্চল্যকর তথ্য

প্রকাশিত : এপ্রিল ২৩, ২০১৯, ১৫:৫৯

কুয়াকাটায় পাঁচ লাখ ইয়াবার চালান  বেরিয়ে আসছে চাঞ্চল্যকর তথ্য

কলাপাড়া প্রতিনিধি ॥ কুয়াকাটা সংলগ্ন বঙ্গোপসাগরে কোস্টগার্ডের অভিযানে অতি সম্প্রতি ৫ লাখ ইয়াবার চালান আটকের ঘটনায় ধৃত ৩ আসামিকে রিমান্ড শেষে ১৫ এপ্রিল আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। মোশাররফ সিকদার, বাদল ও ইলিয়াসকে ৪ দিনের রিমান্ডে নিয়ে পুলিশ গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়েছে। তবে এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট মামলার গুরুত্বপূর্ণ আসামি ট্রলার মালিক আল-আমিনকে গ্রেপ্তার করতে পারলে অনেক গডফাদারের নাম বেরিয়ে আসবে বলে তদন্ত কর্মকর্তা এসআই কামাল হোসেন দাবি করেছেন। ৫ লাখ ইয়াবার চালানটি কক্সবাজার এলাকা থেকে আসছিল। এটি মহিপুর-কিংবা আলীপুরে আনলোড হওয়ার কথা ছিল। ধৃত আসামি মোশাররফের নিয়ন্ত্রণে থাকা ইয়াবার চালানবাহী ট্রলারটির ইঞ্জিন বিকল হয়ে যায়। ফলে চালনটি আটকাতে সক্ষম হন কোস্টগার্ড সদস্যরা। তবে ১০ এপ্রিল সকালে ইয়াবার সঙ্গে দাঁড় করিয়ে মোশাররফের সঙ্গে টিপু মুন্সিকে কারবারি হিসেবে গণমাধ্যমে ব্রিফ করা হলেও অজ্ঞাত কারণে পরের দিনের মামলা কিংবা গ্রেপ্তারকৃত আসামির মধ্যে টিপুর না থাকা নিয়ে সৃষ্ট ধু¤্রজাল এখনও কাটেনি।

 

পুলিশ ও কোস্টগার্ডের দাবি টিপু নির্দোষ। কিন্তু যাকে ইয়াবার কারবারি হিসাবে ধৃত করা হলো তাকে মামলার তদন্ত শেষ না হতেই কিভাবে বাদ দেয়া হয়েছে এনিয়েও চলছে মুখরোচক আলোচনা। এদিকে ৫ লাখ ইয়াবার আগে ৬ লাখ ৭৭ হাজার পিস ইয়াবার চালান এ রুটে পাচারকালে আটকের পরে একাধিক গোয়েন্দা সংস্থা মাঠে কাজ করছে এর হোতাসহ গডফাদারদের শনাক্ত এবং গ্রেপ্তারে। ১০ এপ্রিল সকাল ১০টায় কোস্টগার্ডের স্টাফ অফিসার (অপারেশন্স) লে. কমান্ডার এম নাজিউর রহমান নিজামপুর কোস্টগার্ড বিসিজি স্টেশনে আনুষ্ঠানিক ব্রিফিংকালে বলেছিলেন, টেকনাফ-কক্সবাজার এলাকায় বিভিন্ন বাহিনীর টহল জোরদার থাকায় ইয়াবা কারবারিরা মহিপুর-আলীপুর-কলাপাড়ার গডফাদারদের মাধ্যমে এই রুটকে ব্যবহার করছে। এর আগে র‌্যাবের আরেক সফল অভিযানে ৬  লাখ ৭৭ হাজার পিস ইয়াবা জব্দ হয় কলাপাড়ার শেখ কামাল সেতুর সলিমপুর অংশের সংযোগ সড়ক থেকে। এছাড়া অতি সম্প্রতি ঢাকায় লঞ্চ ও বাস থেকে জব্দ হওয়া ৮ লাখ ইয়াবার চালানও এ উপকূল থেকে খালাস করা হয় বলে গণমাধ্যমসূত্রে জানা গেছে। ইয়াবার এতো বড় একাধিক চালান এরুটে খালাসের ঘটনা এবং প্রশাসনের সফল অভিযানে জনমনে স্বস্তির পাশাপাশি স্থানীয় গডফাদারদের আইনের আওতায় আনার দাবিও উঠেছে। ইয়াবাসহ মাদক নির্মূলে সরকারের জিরো টলারেন্স অবস্থানে ব্যাপক সফলতা আসছে। পাশাপাশি টেকনাফ-কক্সবাজার এলাকার চোরাচালানিরা এখন কুয়াকাটা, মহিপুর, আলীপুর, কলাপাড়া এলাকায় সৃষ্টি করছে এ জগতের নতুন গডফাদার। আর ইলিশসহ গভীর সাগরে মাছ শিকারের এক শ্রেণির ট্রলার মাঝি, মালিকদের কিংবা জেলেদের একাজের কারবারি কিংবা ভাগিদার বানাচ্ছে। অল্প সময়ে বিত্ত-বৈভবের মালিক বনে যাওয়ার লোভে ইয়াবা কারবারির সংখ্যা বাড়ছে এ জনপদে।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।