আজকের বার্তা | logo

৫ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৯শে জুন, ২০১৯ ইং

কিশোরী ধর্ষণের দায়ে মসজিদের ইমাম গ্রেপ্তার

প্রকাশিত : এপ্রিল ১৪, ২০১৯, ০০:৪৮

কিশোরী ধর্ষণের দায়ে মসজিদের ইমাম গ্রেপ্তার

দেবীদ্বারে এক মসজিদের ইমাম কর্তৃক কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই ঘটনায় থানায় মামলা হওয়ার পর পুলিশ অভিযুক্ত ইমাম মাহফুজুর রহমান (২২)কে গ্রেপ্তার করেছে। ঘটনাটি ঘটে শুক্রবার সকাল ১১টায় কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলার ছোটশালঘর গ্রামের দক্ষিণপাড়া। অভিযুক্ত মাহফুজ পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। ভিকটিম কিশোরীকে দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার সকাল অনুমান ১১টায় ভিকটিম (১৫) ছোটশালঘর দক্ষিণপাড়া ‘জামিয়াতুল ছালাহ্ জামে মসজিদ’র পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় ইমাম মাহফুজুর রহমান তাকে ডেকে নিয়ে মসজিদের পাশে নিজ থাকার কক্ষে গামছা দিয়ে মুখ পেচিয়ে জারপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় কিশোরী তার মায়ের কাছে ঘটনাটি জানালে তার বাবা দরিদ্র ভ্যানচালক বিষয়টি নিয়ে সামাজিকভাবে সমাধানের চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। পরে শুক্রবার রাতেই দেবীদ্বার থানায় এসে ছোটশালঘর দক্ষিণপাড়া ‘জামিয়াতুল ছালাহ্ জামে মসজিদ’র ইমাম মাহফুজুর রহমান (২২)কে একমাত্র আসামি করে ধর্ষনের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়ের’র পর অভিযান চালিয়ে শনিবার সকাল ১১টায় দেবীদ্বার উপজেলা সদর থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

ধর্ষক ইমাম মাহফুজুর রহমান দেবীদ্বার উপজেলার জাফরগঞ্জ ইউনিয়নের ভিড়াল্লা গ্রামের আবুল মিয়ার বাড়ির মো. সাইদুল ইসলাম’র ছেলে। ইমাম মাহফুজ প্রায় এক বছর পূর্বে ছোটশালঘর দক্ষিণপাড়া ‘জামিয়াতুল ছালাহ্ জামে মসজিদ’র ইমাম হিসাবে দায়িত্ব পালন করে আসছিল।

ওই ভিকটিম কিশোরীর বাবা বলেন, আমার মেয়ে আমাদের পুরনো বাড়িতে যাওয়া-আসার পথে প্রায়ই ওই ইমাম উক্ত্যক্ত ও কুপ্রস্তাব দিত। ঘটনার দিন সকালে বাড়িতে যাওয়ার পথে ওই ইমাম তাকে কথা শোনার জন্য ডাকতে থাকে। মেয়ে যেতে না চাইলে জরুরি কথা আছে বলে জানায়। পরে মসজিদের পূর্ব পাশে ইমাম থাকার ঘরে নিয়ে গামছা দিয়ে মুখ বেঁধে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

ভিকটিমের মা জানান, তার মেয়ে স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পড়া শুনা শেষ করে বর্তমানে আর লেখা পড়া করে না। সে বাড়িতেই থাকে এবং গৃহস্থালীয় কাজ করত। ঘটনারপর তার মেয়ে বাড়ি এসে ঘটনার বিস্তারিত জানালে এবং গোপনাঙ্গ দিয়ে রক্তক্ষরণ হতে থাকলে দেবীদ্বার উপজেলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে  নিয়ে আসেন।

ভিকটিম কিশোরীকে দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসার পর ভর্তি করানোর সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক ছিলেন ডা. মেহেদুল হাসান। বর্তমানে তিনি ছুটিতে থাকায় উক্ত স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. মঞ্জুর রহমানের সঙ্গে শনিবার রাত সাড়ে ১০টায় সেল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, মেয়েটিকে আশংকাজনক অবস্থায় শুক্রবার পৌনে ২টায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এসে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ভর্তি না করিয়ে নিয়ে যায়। পরে ওই দিন দিবাগত রাত পৌনে ২টায় রেপের ঘটনা জানিয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। তখনো মেয়েটির যৌনাঙ্গে রক্ত ক্ষরণ হচ্ছিল। বর্তমানে সে মহিলা ওয়ার্ডর ৭নং বেডে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

দেবীদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ মো. জহিরুল আনোয়ার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ওই কিশোরী বর্তমানে দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্ত ইমাম মাহফুজুর রহমান কিশোরীকে ধর্ষণ করার সত্যতা স্বীকার করেছে। রিববার সকালে আসামি ইমাম মাহফুজকে আদালতে হাজির করা হবে এবং ভিকটিমকেও ডাক্তারি পরীক্ষা শেষে আদালতে ম্যাজিস্ট্রেটের নিকট ২১ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড করা হবে।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।