আজকের বার্তা | logo

৮ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২১শে মার্চ, ২০১৯ ইং

ট্রাম্পের অভিশংসনের বিপক্ষে পেলোসি

প্রকাশিত : মার্চ ১২, ২০১৯, ১৫:১৫

ট্রাম্পের অভিশংসনের বিপক্ষে পেলোসি

মার্কিন কংগ্রেসের ডেমোক্রেটিক স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি বলেছেন, তিনি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ক্ষমতা থেকে হটানোর লক্ষ্যে তাঁর ইমপিচমেন্ট বা অভিশংসন সমর্থন করেন না।

গতকাল সোমবার ওয়াশিংটন পোস্ট পত্রিকাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এই মত জানান পেলোসি।পেলোসি বলেন, ‘অভিশংসন দেশকে বিভক্ত করবে। সত্যি সত্যি বড় ধরনের অনিয়ম বা বেআইনি কাজ প্রমাণিত না হওয়া পর্যন্ত এবং উভয় দলের কাছ থেকে উদ্যোগ না আসা পর্যন্ত আমাদের অভিশংসনের পথ অনুসরণ করা ঠিক হবে না।’

পেলোসি বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে অভিশংসিত করার কোনো মানে হয় না। এতটা গুরুত্ব পাওয়ার যোগ্য তিনি নন।ট্রাম্পকে অভিশংসিত করার ব্যাপারে পেলোসি আগেও একাধিকবার তাঁর অনাগ্রহের কথা জানিয়েছেন। রাশিয়ার সঙ্গে ট্রাম্পের গোপন আঁতাত তদন্তরত বিশেষ কৌঁসুলি রবার্ট ম্যুলারের প্রতিবেদন প্রকাশিত না হওয়া পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোনো সুনির্দিষ্ট মন্তব্য করতে চাননি তিনি। তবে এবারই তিনি অভিশংসনের বিরোধিতা করে তাঁর অবস্থান খোলাসা করলেন।

অভিশংসনের ব্যাপারে ডেমোক্রেটিক পার্টির অভ্যন্তরে যে বিভক্ত রয়েছে, পেলোসির মন্তব্য তা আরও প্রকট করবে।গত নভেম্বরে বিজয়ী হয়েছেন—এমন কংগ্রেস সদস্যদের অনেকেই অবিলম্বে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসনের পক্ষে।মিশিগান থেকে নির্বাচিত কংগ্রেস সদস্য রাশিদা তালিব ইতিমধ্যেই এ উদ্দেশ্যে একটি খসড়া প্রস্তাব প্রতিনিধি পরিষদে উত্থাপনের কথা বলেছেন।দলের একাধিক সদস্য মনে করেন, এই প্রস্তাবের পক্ষে প্রতিনিধি পরিষদে পর্যাপ্ত সমর্থন রয়েছে।রোড আইল্যান্ড থেকে নির্বাচিত কংগ্রেসম্যান ডেভিড সিসিলিনে মনে করেন, অভিশংসনের দরজা বন্ধ করা ঠিক হবে না।

কংগ্রেসম্যান ডেভিড সিসিলিনে বলেন, যদি এ কথা প্রমাণিত হয়, ট্রাম্প আইন ভঙ্গ করেছেন, তাহলে অবশ্যই অভিশংসনের জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।ম্যারিল্যান্ড থেকে নির্বাচিত কংগ্রেসম্যান জেইমি রাসকিন বলেছেন, ট্রাম্প কতটা গুরুত্বপূর্ণ, সেটা ব্যাপার নয়। প্রজাতন্ত্রের জন্য তাঁর অভিশংসন গুরুত্বপূর্ণ কি না, সেটাই প্রধান বিবেচ্য বিষয়।নিরপেক্ষ পর্যবেক্ষকদের ধারণা, অভিশংসনের ব্যাপারে পেলোসির অবস্থান বাস্তবতা দ্বারা পরিচালিত। দেশের ভেতরে এই ব্যবস্থার পক্ষে পর্যাপ্ত সমর্থন নেই। তা ছাড়া ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসনপ্রক্রিয়া শুরু হলে তাঁর সমর্থকেরা আরও উজ্জীবিত হবেন, যার প্রভাব পড়বে ২০২০ সালের নির্বাচনে।

প্রতিনিধি পরিষদে ডেমোক্রেটিক সংখ্যাগরিষ্ঠতার জোরে এই প্রস্তাব হয়তো গৃহীত হবে। কিন্তু রিপাবলিকান-নিয়ন্ত্রিত সিনেটে তা গৃহীত হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। এই প্রস্তাব পাশের জন্য সিনেটের দুই-তৃতীয়াংশ সদস্যের সমর্থন দরকার।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।