আজকের বার্তা | logo

৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২২শে মে, ২০১৯ ইং

উপকূলে ঘূর্ণিঝড়ে দেড় শতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত: নিহত-১

প্রকাশিত : মার্চ ০১, ২০১৯, ১৪:৪৯

উপকূলে ঘূর্ণিঝড়ে দেড় শতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত: নিহত-১

স্টাফ রিপোর্টার ॥ উপকূলীয় এলাকা বরগুনা জেলার ৩টি উপজেলায় গতকাল ভোরে ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানে। জেলার পাথরঘাটা, বরগুনা সদর ও বামনায় এ ঝড়ে দেড় শতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এতে নিহত হয়েছেন ১ জন। পাথরঘাটা: বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলায় বিভিন্ন এলাকায় ঘূর্ণিঝড়ে শতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে।

এছাড়া অসংখ্য গাছপালা ভেঙে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। তবে ঝড়ের কবলে পড়ে ট্রলার ডুবির ঘটনায় জামাল হোসেন (২২) নামে এক জেলের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। গতকাল ভোরের দিকে হঠাৎ এ ঘূর্ণিঝড় শুরু হয়। ঝড়ো হাওয়ায় উপজেলার কালমেঘা ইউনিয়নের পূর্ব কালমেঘা, পশ্চিম কালমেঘা, ঘুটাবাছা,ছোট পাথরঘাটা; সদর পাথরঘাটা ইউনিয়নের চরলাঠিমারা, জিনতলা, হাঁড়িটানা, রুহিতা, টেংরা, কোড়ালিয়া; কাঠালতলী ইউনিয়নের পশ্চিম কাঠালতলী; রায়হানপুর ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রামে শতাধিক বসতঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। এর মধ্যে বেশ কয়েকটি ঘর, ঘরের চালা উড়িয়ে পার্শ্ববর্তী পুকুর ও মাঠে নিয়ে যায়। অনেক স্থানে গাছ পড়ে বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে গেছে। বেশ কয়েকটি স্থানে বিদ্যুতের খুঁটি পড়ে যাওয়ারও খবর পাওয়া গেছে। ঘূর্ণিঝড়ের পর সকালের দিকে পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হুমায়ুন কবির তিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন। কালমেঘা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি, সংরতি) সদস্য নাজমা বেগম বলেন, এ ইউনিয়নের অন্তত অর্ধশত বসতঘর ভেঙে গেছে। এছাড়া গাছপালা ভেঙে অনেক তিসহ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। ঝড়ে পাথরঘাটা ইউনিয়নের হাঁড়িটানা গ্রামের প্রায় ২৫ থেকে ৩০টি বসতঘর ভেঙে গেছে। জিনতলা গ্রামের বিষখালী নদী সংলগ্ন বেড়িবাঁধের ভেতরে অনেক ঘরবাড়ি ভেঙে গেছে। এদিকে বলেশ্বর নদে মাছ ধরা ট্রলারডুবির ঘটনায় জামাল হোসেন ও খাইরুল ইসলামকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আনোয়ার উলাহ উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের বরিশাল মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। পরে সেখানে নেওয়ার পথে মঠবাড়িয়ায় এলাকায় বড় টেংড়া গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে জামাল হোসেনের মৃত্যু হয় বলে জানান বরগুনা জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী। পাথরঘাটা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হুমায়ুন কবির বলেন, সকালের দিকে আমরা বেশ কয়েকটি বিধ্বস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছি। য়তির পরিমাণ এখন পর্যন্ত নিরূপণ করা যায়নি।

 

বরগুনা সদর: উপজেলার নলটোনা ইউনিয়নে টর্নেডোর আঘাতে ৩১টি বসতঘর সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত হয়েছে। এতে ২৬৯টি বাড়ি-ঘর আংশিক তি হয়েছে।  গতকাল ভোরে ইউনিয়নের সোনাতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নলটোনা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবীর বলেন, মাত্র দুই মিনিটের টর্নেডোর আঘাতে এ ইউনিয়নের অন্তত দেড় শতাধিক বাড়ি-ঘর পুরোপুরি বিধ্বস্ত হয়েছে। আর আংশিক তিগ্রস্ত হয়েছে অন্তত তিন শতাধিক বসত-ঘর, মাদ্রাসা, মসজিদ। বরগুনার জেলা প্রশাসক (ডিসি) কবীর মাহমুদ বলেন, তিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছি। এছাড়া তিগ্রস্তদের তালিকা তৈরি শুরু করেছে বরগুনা জেলা প্রশাসন। তিগ্রস্তদের সরকারি সহায়তা দেওয়া হবে।

 

বামনা: এখানে ঘূর্ণিঝড়ে ১৫ থেকে ২০টি ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। গাছপালা পড়ে কোথাও কোথাও বন্ধ হয়ে গেছে যোগাযোগ ব্যবস্থা। বিদ্যুৎ বিভ্রাটও দেখা দেয় বামনায়।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।