আজকের বার্তা | logo

৩রা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৭ই জুন, ২০১৯ ইং

আমতলীর মরাজান খালের ব্রিজটি এখন মরণ ফাঁদ!

প্রকাশিত : মার্চ ২৪, ২০১৯, ১১:৪৭

আমতলীর মরাজান খালের ব্রিজটি এখন মরণ ফাঁদ!

আমতলী প্রতিনিধি ॥ বরগুনার আমতলী ও পটুয়াখালী সদর উপজেলার সীমানা দিয়ে প্রবাহিত গুলিশাখালী ইউনিয়নের উত্তর কালামপুর হাতেমিয়া দাখিল মাদ্রাসা সংলগ্ন মরাজান খালের আয়রন ব্রিজটি এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। ব্রিজ ভেঙে যাওয়ায় দুই উপজেলার যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। দুই উপজেলার সেতু বন্ধন ব্রিজটি ভেঙে পড়ায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছে ৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীসহ প্রায় ৫০ হাজার মানুষ। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ব্রিজটি পারাপার হতে হয়। ব্রিজটি দ্রুত নির্মাণ করা না হলে বড় ধরনের দুর্ঘটনায় আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী। দ্রুত ব্রিজ নির্মাণের দাবি তাদের। জানাগেছে, বরগুনার আমতলী ও পটুয়াখালী সদর উপজেলার সীমানা দিয়ে প্রবাহিত মরাজান খাল। ১৯৯৮ সালে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ ওই খালের গুলিশাখালী ইউনিয়নের উত্তর কালামপুর হাতেমিয়া দাখিল মাদ্রাসা সংলগ্ন স্থানে আয়রন ব্রিজ নির্মাণ করে। আমতলী ও পটুয়াখালী সদর দুই উপজেলার সেতু বন্ধন এ ব্রিজটি ২০১৬ সালে ভেঙে যায়। ফলে চরম দুর্ভোগে পড়ে ৫০ হাজার মানুষ। বিষয়টি স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগকে জানানো হলেও ব্রিজটি নির্মাণের কোন উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে না। গত ৩ বছর ধরে ব্রিজটি ভাঙা অবস্থায় পড়ে আছে।
উত্তর কালামপুর হাতেমিয়া, উত্তর কালামপুর নুরানী দাখিল, ন.ম আমজাদিয়া আলিম মাদ্রাসা, উত্তর পূর্ব কলাগাছিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মধ্য কালীবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ব্রিজটি পার হয়ে মাদ্রাসা ও বিদ্যালয়ে আসতে হয়। এছাড়া ব্রিজটি দিয়ে কলাগাছিয়া বাজার, ঘাসের হাট বাজার, কালীবাড়ি, বাজারঘোনা ও মরিচবুনিয়া গ্রামের মানুষের দু’পাড়ে যাতায়াত করতে হয়। ব্রিজটি ভেঙে যাওয়ায় ৭ কিমি পথ ঘুরে যানবাহন চলাচল করতে হয়। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান অ্যাড. নুরুল ইসলাম ব্রিজটি নির্মাণের জন্য আমতলী স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ ও উপজেলা পরিষদকে জানিয়েছেন। কিন্তু গত ৩ বছরেও কোন কার্যকরী পদক্ষেপ নিচ্ছে না তারা। গতকাল সরেজমিনে দেখা গেছে, দুই উপজেলার সীমানা দিয়ে প্রবাহিত মরাজান খালের ব্রিজটি মাঝখান দিয়ে ভাঙা। ভাঙা অংশে স্থানীয় লোকজন কলাগাছ দিয়ে রেখেছেন। ব্রিজ ভেঙে যাওয়ায় কোন যানবাহন চলাচল করতে পারেনা। উত্তর কালামপুর হাতেমিয়া দাখিল মাদ্রাসার সহকারী মৌলভী ও আমতলী জমিয়াতে মোদার্রেছিনের সাধারণ সম্পাদক মাও: মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, ব্রিজটি ভাঙার পরপরই আমতলী উপজেলা প্রকৌশলী নজরুল ইসলামকে জানিয়েছি কিন্তু তিনি কোন পদক্ষেপ নিচ্ছেন না।
গুলিশাখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. নুরুল ইসলাম বলেন, ব্রিজটি নির্মাণের জন্য উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ ও উপজেলা পরিষদকে জানানো হয়েছে। উপজেলা পরিষদের সভায় রেজ্যুলেশন হয়েছে কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না। দ্রুত ব্রিজটি নির্মাণ করা প্রয়োজন। আমতলী উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ নজরুল ইসলাম বলেন, ব্রিজ ভেঙে পড়েছে এ খবর কেউ আমাকে জানায়নি।  সরেজমিনে ব্রিজটি পরিদর্শন করে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।