আজকের বার্তা | logo

৬ই ফাল্গুন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৭ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং

কাঠালিয়ায় গার্মেন্ট কর্মীকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ

প্রকাশিত : জানুয়ারি ৩১, ২০১৯, ০২:৫৯

কাঠালিয়ায় গার্মেন্ট কর্মীকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ

ঝালকাঠি প্রতিনিধি ॥ ঝালকাঠির কাঠালিয়া উপজেলার বলতলা গ্রামে দুলালী খাতুন (৪৫) নামে এক গার্মেন্ট কর্মীকে শ^াসরোধ করে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযুক্ত স্বামী মো. বশিরুজ্জামান রাজুকে এলাকাবাসী মঙ্গলবার ধরে কাঠালিয়া থানায় সোপর্দ করলেও কাঠালিয়া থানা পুলিশ গতকাল বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত আটক বশিরুল্লাহকে আদালতে সোপর্দ করেনি। এদিকে গতকাল পিরোজপুর সদর হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্ত শেষে একইদিন সন্ধ্যায় গার্মেন্ট কর্মীর লাশ তার বাবার বাড়ি ভা-ারিয়া উপজেলার চড়াইল গ্রামে দাফন করা হয়েছে। নিহতের ছোটভাই মো. শহিদুল ইসলাম জানান, তার বোন দুলালী চট্টগ্রাম কোরিয়ান ইপিজেড এর একটি গার্মেন্টে টিম লিডার পদে চাকরি করতেন। ১৪/১৫ বছর আগে কাঠালিয়া উপজেলার বলতলা গ্রামের আব্দুল লতিফ হাওলাদারের ছেলে বশিরুজ্জামান রাজুর সাথে দুলালীর বিয়ে হয়। স্বামী-স্ত্রী দুজনই চট্টগ্রামে বসবাস করতেন। তাদের কোনো সন্তান ছিল না। মাসতিনেক আগে দুলালী চাকরি থেকে অবসরে গেলে কোম্পানি থেকে ৩০ লাখ টাকা পান। স্বামী বশিরুল্লাহ ওই টাকা নিজের আয়ত্বে নেয়ার জন্য নানা কৌশল শুরু করেন। ফলে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। গত ২৮ জানুয়ারি সোমবার মধ্যরাতে ঝগড়ার এক পর্যায়ে বশিরুল্লাহ দুলালীকে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করেন। হত্যার পর বশিরুল্লাহ নিজেই দুলালীর হার্ট অ্যাটাক হয়েছে প্রচার করে পার্শ্ববর্তী ভা-ারিয়া হাসপাতালে রেখে সটকে পড়েন। হাসপাতালের চিকিৎসকরা দুলালীকে মৃত ঘোষণা করে ভা-ারিয়া থানা পুলিশে খবর দেন। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পিরোজপুর সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। গতকাল দুপুরে পিরোজপুর সদর হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে দুলালীর লাশ হস্তান্তর করা হয় এবং সন্ধ্যায় বাবার বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন হয়। এদিকে মঙ্গলবার দুপুরে বলতলা গ্রাম থেকে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয়রা বশিরুল্লাহকে আটকে কাঠালিয়া থানা পুলিশে সোপর্দ করেন। গতকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত বশিরুল্লাহ থানা হাজতে ছিলেন। তাকে আদালতে পাঠানো হয়নি। কাঠালিয়া থানার ওসি মো. এনামুল হক বলেন, ‘‘আটক বশিরুল্লাহ থানা হেফাজতে আছেন। তার দাবি স্ত্রী দুলালীর স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। অপরদিকে দুলালীর পরিবারের অভিযোগ তাকে হত্যা করা হয়েছে। অথচ লাশের শরীরে কোনো জখমের চিহ্ন নেই। লাশের দাফনের পর দুলালীর ভাইকে আসতে বলেছি। তাদের মধ্যে যদি আপোষ মীমাংসা না হয় তাহলে আইনগত ব্যবস্থা নেব। যদিও ভা-ারিয়া থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। আমরাও তদন্ত করছি দেখি কী করা যায়।”

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।