আজকের বার্তা | logo

৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৪ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং

বরিশালে ইভিএমে ভোট গ্রহণে নানা অভিযোগ: সিটি নির্বাচনে ২৬ কেন্দ্রের অনিয়মের তদন্ত

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ০১, ২০১৮, ০০:৪১

বরিশালে ইভিএমে ভোট গ্রহণে নানা অভিযোগ: সিটি নির্বাচনে ২৬ কেন্দ্রের অনিয়মের তদন্ত

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচন ২০১৮ এর ২৬টি ভোট কেন্দ্রে নানা ধরনের অনিয়ম তদন্তে এসেছে নির্বাচন কমিশনের তদন্ত দল। ইভিএম কেন্দ্রে জালিয়াতি, মাস্টার চিপস্ অবৈধভাবে নিজ দখলে রাখা, ভোট দিতে বাধা প্রদান, এজেন্ট বের করে দেয়া, জালভোট প্রদান, গণনায় গরমিলসহ প্রার্থীদের নানা অভিযোগের ভিত্তিতে এ তদন্ত শুরু হয়। এর মধ্যে নির্বাচনের এক মাস পর তদন্ত কমিটির কাছে একটি ইভিএম কেন্দ্রের এসডি কার্ড (চিপস্) জমা দেয়া নিয়ে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। তদন্ত কমিটির আহবায়ক নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের যুগ্ম সচিব খোন্দকার মিজানুর রহমান বলেছেন, এসব অভিযোগের তদন্তে তারা কেন্দ্রের সংশ্লিষ্টদের সাক্ষ্য নিয়েছেন। তদন্ত প্রতিবেদনে তা বিশদভাবে তুলে ধরা হবে। গতকাল শুক্রবার ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি তাদের তদন্ত শেষ করায় বরিশাল সিটি নির্বাচনে এ নিয়ে ৫৬টি কেন্দ্রের অনিয়মের তদন্ত করলো কমিশন। জানা গেছে, নির্বাচন কমিশনের ৪ সদস্যের তদন্ত টিম গত বৃহস্পতিবার বরিশালে ২৬টি কেন্দ্রের অনিয়মের তদন্ত শুরু করে। আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসে শুরু হওয়া এ তদন্ত কার্যক্রমে কমিটির আহবায়ক নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের যুগ্ম সচিব খোন্দকার মিজানুর রহমান, নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের উপসচিব মোঃ ফরহাদ হোসেন, ঢাকার নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট এর উপ-পরিচালক (প্রশিক্ষণ) সহিদ আব্দুস ছালাম, নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব (সংস্থাপন-২) মো. শাহ আলম উপস্থিত ছিলেন। তদন্ত টিমে উপস্থিত একাধিক সূত্রে জানা গেছে, তদন্তের সময় সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রে দায়িত্বরতদের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়। বৃহস্পতিবার তদন্ত চলাকালে ২০ নং ওয়ার্ডের ২টি কেন্দ্র নিয়ে অভিযোগ ওঠে। ওই ওয়ার্ডের ইভিএম এ ভোট নেয়া ৭৮ নং কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার এটিএম কামরুজ্জামান নির্বাচন শেষের এক মাস পর তদন্ত কমিটির কাছে ইভিএম কেন্দ্রের এসডি কার্ড (চিপস্) জমা দেন। দীর্ঘ সময় পর এটি জমা দেয়ায় তদন্ত দল প্রশ্ন তোলে। একই ওয়ার্ডের ৭৭ নং ভোট কেন্দ্রে অনিয়ম রয়েছে বলে অভিযোগ করেন ঘুড়ি প্রতীকের প্রার্থী এস এম জাকির হোসেন। তদন্ত দলকে তিনি লিখিতভাবে জানান, তার ওয়ার্ডের ৭৭ নং ও ৭৮ নং ভোট কেন্দ্রে অনিয়ম হয়েছে। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ঠেলাগাড়ি প্রতীকের প্রার্থীকে অনৈতিক সুবিধা দেয়ার জন্য ভোট কেন্দ্রের ভবন পরিবর্তন করা হয়েছে। ৭৭ নং কেন্দ্রে ঠেলাগাড়ির ব্যাজ পরে ভোট দিতে বাধ্য করা হয়েছে। জনৈক জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট পরিচয়ধারী ব্যক্তি ওই কেন্দ্রে প্রবেশ করে ঠেলাগাড়ি প্রতীকের পক্ষে অনিয়ম করেন। কাউন্সিলর প্রার্থী জাকির হোসেন তার প্রতিদ্বন্দ্বী ঠেলাগাড়ি প্রতীকের প্রার্থীর ভাই ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মু. জিয়াউল হকের বিরুদ্ধেও কেন্দ্রে ঢুকে অনিয়মের অভিযোগ করেছেন। ইভিএম নিয়ে একই ধরনের অভিযোগ করেছেন ১২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী কে এম শহিদুল্লাহ। এসব অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত কমিটির প্রধান নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের যুগ্ম সচিব (নির্বাচন ব্যবস্থাপনা-২) খোন্দকার মিজানুর রহমান বলেন, প্রার্থীদের অভিযোগের ভিত্তিতে তারা তদন্ত করছেন। নানা ধরনের অভিযোগ রয়েছে। এর মধ্যে ইভিএম নিয়েও অভিযোগ রয়েছে। তিনি বলেন, একটি কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার তাদের কাছে এক মাস পরে এসডি কার্ড (চিপস্) জমা দিয়েছেন। তিনি বুঝতে না পারায় ইভিএম চিপস্টি তার দখলে রেখেছেন বলে স্বীকারোক্তি দেন। তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে বলে তদন্তকারী কর্মকর্তারা অভিমত ব্যক্ত করেন। এবং আগামী ১৫ কার্য দিবসের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট নির্বাচন কমিশনে জমা দেয়া হবে বলে উপস্থিত সবাইকে জানান। এ তদন্তের ওপর ভিত্তি করে ওই সব কেন্দ্রে পুনরায় ভোট গ্রহণ করা হবে কিনা সে বিষয়ে নির্বাচন কমিশন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে। এ ব্যাপারে সিটি নির্বাচনে সহকারী রিটার্নিং অফিসার মো: হেলাল উদ্দিন বলেন, এবার ২৬টি কেন্দ্রের অনিয়ম এর তদন্ত চলছে। এর আগে ৩০টি কেন্দ্রের অভিযোগ তদন্ত করা হয়েছে। প্রার্থীদের অভিযোগের ভিত্তিতে কমিশন এ তদন্ত চালাচ্ছে। তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার পর নির্ধারণ হবে ওই সব কেন্দ্রে পুনর্নির্বাচন হবে কিনা। যার দরুণ বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ভোট গণনার ফলাফল স্থগিত করা হয়েছে।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।