আজকের বার্তা | logo

৬ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২০শে মার্চ, ২০১৯ ইং

খুন নয়, আত্মহত্যা করেছে তাসফিয়া

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৮, ২৩:৪৮

খুন নয়, আত্মহত্যা করেছে তাসফিয়া

অনলাইন সংরক্ষণ  /// চট্টগ্রামের স্কুলছাত্রী তাসফিয়া আমিনকে খুন নয়, বরং নদীতে ঝাঁপ দিয়ে ‘আত্মহত্যা’ করেছেন। আলোচিত এ মামলার তদন্ত শেষ করে খুনের কোন আলামত না পেয়ে মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন দিয়েছে চট্টগ্রাম নগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। আজ রবিবার চট্টগ্রামের মুখ্য মহানগর হাকিম ওসমান গনির আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হয়।

পতেঙ্গার কর্ণফুলীর তীর থেকে লাশ উদ্ধারের পর থেকেই তাসফিয়াকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করে আসছিল তাসফিয়ার বাবা ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আমিন। মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেয়ার পর তার পরিবারের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে কোন প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি। এমনকি তাসফিয়ার বাবা মোহাম্মদ আমিনের মোবাইল ফোন পর্যন্ত বন্ধ রয়েছে।

ডিবির উপ কমিশনার মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ বলেন, ‘ভিসেরা রিপোর্টে তাসফিয়ার শরীরে বিষক্রিয়ার কোন অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি, ধর্ষণের কোন প্রমাণও নেই। আসামিদের রিমান্ডে এনে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করেও হত্যার কোন প্রমাণ মিলেনি। তবে ফুসফুসে পানি পাওয়া গেছে, যা পানিতে ডুবে মৃত্যুকে সমর্থন করে।’

তিনি বলেন, কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী তাসফিয়াকে নদীর তীরে বসে থাকতে দেখেছিলেন। তাকে তীর থেকে নেমে রিটেইনিং ওয়াল সংলগ্ন পাথরের ওপর দিয়ে হাঁটতে দেখেন। অন্ধকার ঘনিয়ে আসার পর তারা পানিতে ঝাঁপ দেওয়ার আওয়াজ এবং চিৎকার শুনতে পান। এতে প্রতীয়মান হয় যে- তাসফিয়া কর্ণফুলী নদীতে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।’

প্রসঙ্গত, গত ২ মে নগরীর পতেঙ্গার কর্ণফুলী নদীর তীর থেকে তাসফিয়া আমিনের আমিনের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় তাসফিয়ার বাবা বাদী হয়ে পতেঙ্গা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।