আজকের বার্তা | logo

৩রা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৮ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং

অসহনীয় লোডশেডিং অতিষ্ঠ নগর জীবন

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৮, ০১:৩৩

অসহনীয় লোডশেডিং অতিষ্ঠ নগর জীবন

এম. বাপ্পি ॥ মৃদু তাপ প্রবাহের কারণে সৃষ্ট অসহ্য গরমে যখন নাকাল নগরবাসী, স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা আসন্ন বার্ষিক পরীক্ষার প্রস্তুতি নিয়ে ব্যস্ত, ঠিক তখনই নগরীর প্রধান বাণিজ্যিক এলাকা সদর রোডসহ গোটা নগরীজুড়ে লোডশেডিং এর মাত্রা অসহনীয় পর্যায়ে পৌঁছেছে। গরমের তীব্রতার সাথে পাল্লা দিয়ে বিদ্যুতের এমন বিপর্যয়ে নাগরিক জীবনে নাভিশ্বাস উঠছে। বিদ্যুৎ বিভাগের তথ্য মতে, সরবরাহে কোনো ঘাটতি নেই। তা সত্ত্বেও মাত্রাতিরিক্ত লোডশেডিং এর কারণে গ্রাহকদের মাঝে অসন্তোষ দানা বাধছে। নিয়মিত বিল পরিশোধের পরও বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের ঘটনায় ক্ষুব্ধ নগরবাসী এ অবস্থারোধে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নগরীর বিভিন্ন এলাকায় গড়ে প্রতিদিন দেড় থেকে ২ ঘণ্টা পর্যন্ত লোডশেডিং দেয়া হচ্ছে। তবে বাণিজ্যিক এলাকাগুলোর অবস্থা তথৈবৈচ। নগরীর প্রাণ কেন্দ্র সদর রোড, কাটপট্টি, পোর্টরোড, বাজার রোডসহ অন্যান্য বাণিজ্যিক এলাকায় ঘন ঘন বিদ্যুতের এমন আসা-যাওয়ায় আর্থিক ক্ষতির শিকার হচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন ব্যবসায়ীরা। শারদীয় দুর্গা পূজা দ্বারপ্রান্তে। এমন মুহূর্তে বিদ্যুৎ বিপর্যয়ে অস্বস্তি বিরাজ করছে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মাঝে। অপরদিকে, দরজায় কড়া নাড়ছে এসএসসি পরীক্ষা। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে চরম আকার ধারণ করা লোডশেডিং পরীক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের উৎকণ্ঠিত করে তুলেছে। অব্যাহত লোডশেডিং এর কারণে জন জীবন যেন থমকে গেছে। ব্যাঘাত ঘটছে ব্যাংক-বীমাসহ বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলোর স্বাভাবিক কার্যক্রমে। সরকারি দপ্তরগুলোও নৈমিত্তিক নাগরিক সেবা প্রদানে হিমসিম খাচ্ছে। গত প্রায় ৭ দিন যাবত চলা এমন অবস্থায় দিশেহারা হয়ে পড়েছে নগরবাসী। গত বুধবারও এশিয়া কাপে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ চলাকালীন সদররোড ও এর আশেপাশের এলাকায় ঘণ্টাব্যাপী বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকে। এ ঘটনায় ফুঁসে ওঠেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। অভিযোগ আছে, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি সম্পর্কে বার বার অবহিত করা হলেও সন্তোষজনক কোনো উত্তর মেলেনি। অনেকেই তাই পাশের এলাকায় গিয়ে ম্যাচ দেখতে বাধ্য হয়েছেন। এদিকে, ঘন ঘন বিদ্যুৎ যাওয়া-আসার কারণে ফ্রিজ, টিভি, শীতাতপ যন্ত্রসহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক যন্ত্রপাতি নষ্ট হবার উপক্রম হয়েছে। বাংলা বাজারের বাসিন্দা গৃহিণী তানিয়া ইসলাম জানান, এ এলাকায় দিন-রাত মিলিয়ে গড়ে প্রতিদিন ২-৩ বার লোডশেডিং হচ্ছে যা স্থায়ীত্ব পাচ্ছে ২ ঘণ্টারও অধিক সময়। এতে করে ফ্রিজে রাখা খাদ্যপণ্য নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। ভাটার খালের বাসিন্দা মো. মামুন বলেন, আগামী ১ অক্টোবর থেকে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এসএসসি পরীক্ষা। এমন অবস্থায় দিনে-রাতে বিদ্যুতের এমন ভেলকিবাজিতে তার সন্তানের পরীক্ষার প্রস্তুতিতে মারাত্মক ব্যাঘাত ঘটছে। নগরীর ১টি পূজা ম-পের দায়িত্বে থাকা চঞ্চল বসু বলেন, ৮ অক্টোবর আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হতে যাওয়া শারদীয় দুর্গা পূজা উৎসবের সকল প্রস্তুতি প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। তবে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের অভাব পূজা সুষ্ঠুভাবে পালনে অন্তরায় হতে পারে বলে শংকায় রয়েছেন। অপরদিকে, বিদ্যুৎ বিপর্যয়ে কলকারখানার উৎপাদনও হ্রাস পাচ্ছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিসিক শিল্প এলাকার ১টি কারখানার জনৈক ম্যানেজার জানান, বিদ্যুতের অভাবে তাদের উৎপাদন প্রায় অর্ধেকে নেমে এসেছে। পোর্ট রোড এলাকায় অবস্থিত কোল্ড স্টোরেজের স্বত্বাধিকারী রনি জানান, ঘন ঘন লোডশেডিং এর কারণে স্টোরের পণ্য নিয়ে বিপাকে পড়েছেন। এতে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবার শংকা প্রকাশ করেছেন তিনি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিদ্যুৎ বিতরণ সংস্থা রুপাতলী কেন্দ্রের নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, বরিশালে প্রতিদিন ১৩০ মেগাওয়াট বিদ্যুতের চাহিদা রয়েছে। এ পরিমাণ বিদ্যুৎ উৎপাদন ও সরবরাহের সক্ষমতা তাদের রয়েছে। বর্তমানে বিদ্যুতের কোনো ঘাটতি নেই। সুতরাং লোডশেডিং এর তো প্রশ্নই আসে না। তবে অতিরিক্ত লোডের কারণে ট্রান্সমিটারগুলোর ২/১টি মাঝে-মধ্যে সাময়িক সময়ের জন্য ‘ফল্ট’ করে। এটা তেমন কিছু নয়। গরমকালে এটা স্বাভাবিক ঘটনা উল্লেখ করে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহে বিদ্যুৎ বিভাগ বরাবরই সচেষ্ট রয়েছে বলে দাবি তাদের।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।