আজকের বার্তা | logo

২রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৬ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং

নগরীর বধ্যভূমিতে চলছে বহুতল ভবন নির্মাণ: প্রতিবাদে আজ মানববন্ধন

প্রকাশিত : আগস্ট ২৮, ২০১৮, ০১:৩২

নগরীর বধ্যভূমিতে চলছে বহুতল ভবন নির্মাণ: প্রতিবাদে আজ মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নব নির্বাচিত মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ সিটি করপোরেশনের দায়ীত্ব না নিলেও তার মানক্ষুণœ করার জন্য সক্রিয় হয়ে উঠেছে ভূমিদস্যুরা। ভূমিদস্যুরা অবৈধভাবে জায়গা দখল করে কোনো প্রকার আইনের তোয়াক্কা না করে বহুতল ভবন নির্মাণের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে দেদারছে। এরই ধারাবাহিকতায় কীর্তনখোলা নদীর পশ্চিম তীর ঘেঁষে গড়ে ওঠা আধুনিক বিনোদন কেন্দ্র ‘ত্রিশ গোডাউন’ বধ্যভূমি এলাকায় ভূমিদস্যুদের লোলুপ দৃষ্টি পড়েছে। পার্কের উত্তর পাশে আর্মড পুলিশ (এপিবিএন) ব্যাটালিয়নের দেয়াল ঘেঁষে নির্মাণ করা হচ্ছে বহুতল ভবন। বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের কতিপয় কর্মকর্তার প্রত্যক্ষ যোগসাজশে একটি চিহ্নিত মহল অবৈধভাবে বিনোদন কেন্দ্র দখল নেয়ার পাঁয়তারায় মেতেছে বলে অভিযোগ রয়েছে। সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, ভবন নির্মাণের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। নদীর পাড়েই নির্মাণাধীন বাইপাস সড়কের পাশে বিশালাকারের ভবনটি নির্মাণ করা হয়েছে। যার নিচ তলার দুই পাশে রাখা হয়েছে সাটার। পাশেই দ্বিতীয় তলায় উঠতে দেয়া হয়েছে সিঁড়ি। এই পুরো অবকাঠামো স্বাধীনতার স্মৃতিচিহ্ন বা মুক্তিযোদ্ধাদের আবেগ বধ্যভূমি আড়াল করে দিয়েছে। নৌ পথে চলাচলরত নৌ-যান থেকে এখন বধ্যভূমিটি দেখা অনেকটা দুরূহ হয়ে পড়েছে। তাছাড়া আধুনিক বিনোদন কেন্দ্রে বহুতল ভবন নির্মাণ নিয়ে দর্শনার্থীদের মধ্যেও ক্ষোভ রয়েছে। কারণ ভবনটি নদী লাগোয়া নির্মাণ হওয়ায় সেখানকার সৌন্দর্য অনেকাংশে ম্লান হয়েছে। এমতাবস্থায় খোঁজ-খবর নিয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে, একটি চিহ্নিত মহল গত বছরের শেষের দিকে এখানে একটি অস্থায়ী টি-স্টল নির্মাণের আবেদন করে সিটি করপোরেশনে। চলতি বছরের শুরুতে সেই আবেদনটি অনুমোদন পেলে শুরু হয় ভবন নির্মাণ। যেটা সম্পূর্ণ বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে করা হচ্ছে। কারণ অনুমতি দেয়ার ক্ষেত্রে প্রথম শর্ত ছিল অস্থায়ীভাবে একটি টিনসেড দোকান নির্মাণের। অথচ বিশেষ ওই মহলটি নির্দেশনা না মেনে করপোরেশনের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তার যোগসাজশে নির্মাণ করা হচ্ছে বহুতল ভবন। এমনকি শোনাও যাচ্ছে তাদের মধ্যে কেউ কেউ এই ভবনের অংশীদারও। কিন্তু অবাক করা বিষয় হচ্ছে, এই ভবন নির্মাণসংক্রান্ত কোনো নথিপত্র সিটি করপোরেশনের হাট-বাজার শাখায় নেই। তবে সেখানকার কর্মকর্তাদের ভাষ্য হচ্ছে- দোকান নির্মাণের অনুমতি দিয়েছে বিসিসি কর্তৃপক্ষ। এক্ষেত্রে হাটবাজার শাখার সুপারিনন্টেডেন্ট নুরুল ইসলামের অভিব্যক্তি হচ্ছে- মেয়র আহসান হাবিব কামাল ও সাবেক নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. ওয়াহেদুজ্জামান ফাইলটি স্বাক্ষর করে অনুমতি দিয়েছেন। কিন্তু চূড়ান্ত কাগজপত্র এখনও তার দপ্তরে আসেনি। তবে শোনা গেছে- সেখানে অস্থায়ী ভিত্তিতে একটি টিনসেড দোকান ঘর নির্মাণের অনুমোদন রয়েছে। তাহলে কি করে বহুতল ভবন নির্মাণ হচ্ছে- এমন প্রশ্নের কোনো উত্তর না দিয়ে তিনি মেয়রের সাথে আলাপ করার পরামর্শ দেন। এদিকে, ভবন নির্মাণের খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন কমিটির সাধারণ সম্পাদক কাজী এনায়েত হোসেন শিপলু। নদীর তীরে বা বিনোদন কেন্দ্রে ভবন নির্মাণ করায় মুক্তিযুদ্ধের আবেগকে ভূলুণ্ঠিত করার পাঁয়তারা চালানো হচ্ছে। কারণ ভবনটি হওয়ায় পুরো বধ্যভূমিটি আড়ালে চলে গেছে। এই বিষয়টি তাৎক্ষণিক তার সংগঠনের পক্ষ থেকে নবনির্বাচিত মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহকে অবহিত করা হয়েছে। সেই সাথে বিষয়টি মেয়র আহসান হাবিব কামালকেও অবগত করা হয়েছে। এ কার্যক্রমের প্রতিবাদে আজ বিকেল সাড়ে ৪টায় বরিশালের সকল সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক ও পেশাজীবী সংগঠণের কর্মীরা বধ্যভূমি এলাকায় প্রতিবাদি মানববন্ধন কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছেন। মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করার জন্য মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের সকল কর্মীকে উদাত্ত আহ্বান জানানো হয়েছে।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।