আজকের বার্তা | logo

১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং

আজ বরিশালে বসছে কোরবানির পশু হাট

প্রকাশিত : আগস্ট ১৭, ২০১৮, ০১:৫৬

আজ বরিশালে বসছে কোরবানির পশু হাট

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নগরীতে ঈদ-উল-আজহা উপলে অস্থায়ী পশুরহাট বসছে মাত্র ৩টি। এর সঙ্গে দুটি স্থায়ী হাটসহ মোট ৫টি হাটে এবার কোরবানি পশু ক্রয়-বিক্রয় হবে। আজ শুক্রবার থেকে ৫ দিনব্যাপী পশুর হাট শুরু হবে বরিশাল নগরীতে। বিসিসি কর্তৃপক্ষ হাটের সংখ্যা কমের কারণ হিসেবে উদ্যোক্তার অভাব দাবি করলেও একাধিক সূত্রে জানা গেছে, সিন্ডিকেটের কারণে হাটের সংখ্যা গতবছরের চেয়ে কমেছে। এদিকে হাটগুলোতে ইতোমধ্যে গরু, ছাগল আসা শুরু করেছে। বিসিসির হাটবাজার শাখার তত্ত্বাবধায়ক মোঃ নুরুল ইসলাম জানান, অস্থায়ী পশুর হাটের জন্য মাত্র ৩টি আবেদন পড়ায় তাদের প্রত্যেককে অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এবার স্থায়ী পশুর হাট হলো- রূপাতলী টেক্সটাইল মিল সংলগ্ন আদর্শ সড়ক, রূপাতলী কালীজিরা বাজার এবং সিঅ্যান্ডবি রোড থানা কাউন্সিলের সামনে। এছাড়া নগরীর দুটি স্থায়ী পশুর হাট যথাক্রমে বাঘিয়া ও পোর্ট রোডেও আজ থেকে ৫ দিনব্যাপী হাট শুরু হবে। নুরুল ইসলাম বলেন, গতবছরও নগরীতে অস্থায়ী হাটের সংখ্যা ছিল ৭টি। এবার শুরু থেকেই অস্থায়ী হাটের অনুমতির আবেদনপত্র পাওয়া যায়নি। শেষ পর্যন্ত পৃথক স্থানের জন্য মাত্র ৩টি আবেদন জমা পড়ায় তাদেরকে অনুমোদন দেয়া হয়। এ ৩টি পয়েন্টে গত কয়েকবছর ধরেই অস্থায়ী পশুর হাট বসছে। তবে একাধিক সূত্রে জানা গেছে, অতি মুনাফা লাভের আশায় একটি সিন্ডিকেটের তৎপরতায় হাটের সংখ্যা কমেছে। নগরীর সিঅ্যান্ডবি রোড, বাঘিয়া, রূপাতলী পশুর হাট ঘুরে দেখা গেছে, ইতোমধ্যে কিছু গরু হাটে উঠেছে। আবার কোনো কোনো স্থানে গরু-ছাগল এনে হাটের আশপাশের অলি-গলিতে রাখা হয়েছে। যদিও হাট স্থাপনের প্রস্তুতি ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। নগরীর একাধিক হাটের ইজারাদাররা বলেন, তারা আজ শুক্রবার থেকে হাটের কার্যক্রম শুর করবেন। গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত বেপারীরা গরু হাটে এনেছেন। আরও গরু আনার জন্য দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের বেপারীদের সঙ্গে তারা যোগাযোগ করছেন। এদিকে, বাঘিয়া ও পোর্ট রোডের স্থায়ী হাট দুটি সিটি করপোরেশন পরিচালনা করবে। হাট বাজার শাখার তত্ত্বাবধায়ক নুরুল ইসলাম জানান, স্থানীয় কাউন্সিলরের সহযোগিতায় হাট দুটি পরিচালনা করা হবে। এদিকে আমাদের আমতলী প্রতিনিধি জানান, শেষ মুহূর্তে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন খামারীরা। বাজারে পশুর দাম কম থাকায় হতাশ তারা। চাহিদার তুলনায় আমতলীতে উৎপাদন কম থাকায় দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে রপ্তানিকৃত গরু দিয়ে চাহিদা পূরণ করা হয়। এতে পশুর দাম বাজারে কমে গেছে। লোকসানের ভয়ে খামারীরা পশু বিক্রি করছেন না। এতে দুশ্চিন্তায় তারা। খামারীদের ধারণা, অনেক গরু এ বছর অবিক্রিত থেকে যাবে। প্রাণিসম্পদ অফিস সূত্রে জানা গেছে, আমতলী ও তালতলী উপজেলায় কোরবানির জন্য ৪ হাজার ৭৪০ টি পশুর চাহিদা রয়েছে। এ দু’উপজেলার ৩৯০টি খামারে ৩ হাজার ১০৫ টি পশু আছে। আমতলীর ২১১টি খামারে ১ হাজার ২২৭ টি গরু, ৩৭ টি মহিষ, ১৯৮ টি ছাগল ও ১০ টি ভেড়া এবং তালতলীর ১৭৯ টি খামারে ১ হাজার ৪০০ গরু, ৫০ টি মহিষ, ১৮৩ টি ছাগল রয়েছে। শেষ সময়ে ভালো লাভের আশায় খামারীরা ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। কিন্তু বাজারে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে গরু আসায় গরুর দাম কমে গেছে। ফলে লোকসান গুনতে হচ্ছে খামারীদের। প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ড. আলতাফ হোসেন বলেন, চাহিদার তুলনায় উৎপাদন কম। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা পশু দিয়ে চাহিদা পূরণ করতে হচ্ছে। তিনি আরো বলেন,  মোটাতাজাকরণ ও দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা পশু পরীক্ষার জন্য মেডিকেল টিম রয়েছে। কোনো রোগাক্রান্ত পশু যাতে বিক্রি না হয় সে বিষয়ে মেডিকেল টিম সদা প্রস্তুত আছে।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।