আজকের বার্তা | logo

১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং

ভোলায় বিদ্যুৎ শ্রমিকদের ওপর হামলা, আসামিদের গ্রেপ্তার দাবি

প্রকাশিত : জুলাই ০১, ২০১৮, ২৩:১৬

ভোলায় বিদ্যুৎ শ্রমিকদের ওপর হামলা, আসামিদের গ্রেপ্তার দাবি

অনলাইন সংরক্ষণ   // ভোলার দৌলতখান উপজেলায় পল্লী বিদ্যুতের নতুন সংযোগ স্থাপনকালে ঠিকাদারের শ্রমিকদের ওপর হামলার অভিযোগ উঠেছে। হামলায় অন্তত ১২জন শ্রমিক আহত হয়েছেন বলে সংবাদ সম্মেলনে ঠিকাদার মো. সাইফুল ইসলাম অভিযোগ করেন।

রবিবার দুপুরে ২টায় ভোলা শহরের একটি পত্রিকা অফিসে সংবাদ সম্মেলনে করে এ অভিযোগ করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি লিখিত বক্তব্যে আরও জানান, গত ২৮ জুন বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দিনব্যাপী দৌলতখান উপজেলার দক্ষিণ জয়নগর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের পশ্চিম জয়নগর গ্রামের গফুর সিকদার জামে মসজিদ এলাকায় পল্লী বিদ্যুতের নতুন সংযোগ স্থাপনের কাজ করেন। এ সময় সন্ধ্যায় লাইনে কর্মরত শ্রমিকদের ওপর বিদ্যুৎ বন্ধ থাকার অজুহাত দেখিয়ে গ্রাহক নামধারী মো. রবিউল ইসলাম, মো. জয়নাল আবেদীন, মো. হেমায়েত, মো. হানিফের নেতৃত্বে এক দল সন্ত্রাসীরা উদ্দেশ্যমূলক হামলা চালায়। এতে মো. গিয়াস উদ্দিন, মো. রেজাউল, মো. আমিরুল, মো. সিরাজুল ইসলাম, মো. গোলাম মাওলা, মো. বকুলসহ ১২ জন শ্রমিক গুরুতর আহত হয়। আহতরা ভোলা সদর হাসপাতাল ও বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় ২৯ জুন ঠিকাদার মো. সাইফুল ইসলাম হামলাকারীদের বিরুদ্ধে দৌলতখান থানায় মামলা করেন। কিন্তু মামলার দুই দিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ কোনো আসামিকে গ্রেপ্তার করেনি। উল্টো মামলা করার কারণে হুমকি-ধামকি দিচ্ছে।

তিনি আরও জানান, নিয়ম অনুযায়ী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির নতুন লাইন স্থাপন করার সময় পাশের চালু লাইনে হাই-ভোল্টেজ থাকার কারণে বিদ্যুৎ বিতরণ বন্ধ রাখে। এখানে ঠিকাদার বা শ্রমিকের কোনো দায়-দায়িত্ব নেই। এটি সম্পূর্ণই পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তাদের অধীনে। শুধুমাত্র ঠিকাদারি শত্রুতার কারণে ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. হানিফ ও মো. রবিউল ইসলামের নেতৃত্বে কর্মরত নিরপরাধ শ্রমিকদের ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়েছে। হামলাকারীরা মাদক ব্যবসায়ী- জুয়াড়ি ও প্রভাবশালী।

বর্তমানে আসামিরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেরাচ্ছে এবং বাদী পক্ষকে হুমকি-ধামকি দিচ্ছে। তাই বাধ্য হয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছি। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

দৌলতখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনায়েত হোসেন বলেন, আসামিদের সঙ্গে বাদী পক্ষের বিরোধ অনেক আগের। বাদী পক্ষ আসামিদের ওপর এর আগে হামলা করেছিল। দুই পক্ষের সংঘাতে সাধারণ গ্রাহক কষ্ট পাচ্ছে। তবে পুলিশ আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছে। কিন্তু আসামিরা পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।