আজকের বার্তা | logo

২রা শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৬ই জুলাই, ২০১৮ ইং

বরগুনায় গৃহবধূকে হত্যা: ঝুলিয়ে রেখে অত্মহত্যার প্রচারনা

প্রকাশিত : জুলাই ০১, ২০১৮, ২৩:২৩

বরগুনায় গৃহবধূকে হত্যা: ঝুলিয়ে রেখে অত্মহত্যার প্রচারনা

অনলাইন সংরক্ষণ  ///বরগুনার আমতলীর গোছখালী গ্রামে ১ সন্তানের জননী বনশ্রী মিস্ত্রি (২৫) নামে এক গৃহবধূকে পারিবারিক কলহের জের ধরে হত্যার পর লাশ ঝুলিয়ে রেখে অত্মহত্যার প্রচার চালায় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার রাতে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। বনশ্রীর স্বামী পলাশ চন্দ্র হাওলাদার (৩০) এ ঘটনার পরপরই আত্মগোপন করে।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, পটুয়াখালী পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের সুশিল চন্দ্র মিস্ত্রির মেয়ে বনশ্রীর সাথে আমতলী উপজেলার গোছখালী গ্রামের অভিলাশ হাওলাদারের ছেলে পলাশ চন্দ্র হাওলাদারের সাথে ২০১২ সালে বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের সংসার ভাল ভাবে কাটলেও কয়েকদিন আগে পলাশ পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া উপজেলার পাখিমারা গ্রামে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। সপ্তাহ খানেক আগে বিষয়টি জানা জানি হলে পলাশ ও বনশ্রীর মধ্যে কলহ সৃষ্টি হয়।

এ নিয়ে আজ সোমবার উভয় পরিবারের সদস্যদের নিয়ে সালিস বৈঠকের কথা ছিল। এর আগেই রবিবার রাত ১টার দিকে বনশ্রী গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে পলাশের পরিবারের পক্ষ থেকে দাবী করে বাবা সুশিল চন্দ্র মিস্ত্রীকে জানায়। খবর পেয়ে সে মেয়ের বাড়ি এসে মেয়ের এ মর্মান্তিক এ হত্যার ঘটনা জানতে পারেন। বনশ্রীর বাবা সুশিল চন্দ্র মিস্ত্রী জানান, আমার মেয়েকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যার পর লাশ ঝুলিয়ে রেখে আত্মহত্যা করেছে বলে পলাশের পরিবারের পক্ষ থেকে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। আমি আমার মেয়ের হত্যার বিচার চাই।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: আলাউদ্দিন মিলন জানান, খবর পেয়ে ঘরের মেঝে থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরো জানান, তার আত্মহত্যার ঘটনাটি সন্দেহ জনক। ময়না তদন্তের প্রতিবেদন পাওয়া সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।