আজকের বার্তা | logo

১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২৭শে মে, ২০১৮ ইং

ভোলায় জমিজমার বিরোধে জোড়া খুন, আটক ২

প্রকাশিত : মে ১৪, ২০১৮, ১২:৫৭

ভোলায় জমিজমার বিরোধে জোড়া খুন, আটক ২

অনলাইন সংরক্ষণ /// ভোলায় জমিজমার বিরোধকে কেন্দ্র করে জোরা খুনের ঘটনা ঘটেছে। রবিবার রাত ১১টার দিকে সদর উপজেলার বাপ্তা ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন মোস্তাফা মাষ্টারের বসত বাড়ীর কাছে এই ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনায় জরিত থাকার সন্দেহে রাতেই ২ জনকে আটক করে। ঘটনার মূল হোতা মামুন ও সহযোগী ফিরোজ পলাতক রয়েছে।

ঘটনাস্থল থেকে জানা যায়, সদর উপজেলার বাপ্তা ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন মোঃ মোস্তফা মাস্টারের ছেলে মোঃ মামুন (৪৫) এর সাথে ছোট ছেলে মাসুম (৩৫) এর দীর্ঘদিন ধরে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো। এ বিরোধকে কেন্দ্র করে শনিবার রাতে পুলিশের দোকান সংলগ্ন মোঃ মামুনের বন্ধু, কাশেম মাস্টারের ছেলে মোঃ ফিরোজের সাথে মাসুমের হাতাহাতি হয়। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে রবিবার রাত ১১টার দিকে মোঃ মামুন, তার বন্ধু মোঃ ফিরোজ, ছেলে মোঃ শরীফ হোসেন ধারালো অস্ত্র নিয়ে মাসুমের ওপর হামলা চালায়। এসময় তারা মাসুমকে কুপিয়ে জখম করে। হামলাকারীদের হাত থেকে মাসুমকে উদ্ধারের জন্য তার শ্যালক, কৃষি অফিসের কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে মোঃ জাহিদ এগিয়ে আসলে তাকেও কুপিয়ে জখম করা হয়। মাসুম ও জাহিদের আত্মচিৎকারে স্থানীয়রা এসে ঝড়ো হলে মামুন, ফিরোজ, শরীফ ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। পরে মাসুম ও জাহিদকে মুমুর্ষ অবস্থা উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাদেরকে মৃত ঘোষণা করে। এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ রাতেই মামুনের বড় ছেলে মোঃ শরীফ ও ছোট ছেলে আরিফকে আটক করেছে। ঘটনার সাথে জড়িত বাকিদের ধরার জন্য পুলিশের অভিযান চলছে বলে জানা গেছে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আমরা ডাকচিৎকার শুনে এগিয়ে দেখি মাসুম ও জাহিদ রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে এবং মামুন, ফিরোজ ও শরীফ ঘটনাস্থল থেকে দৌঁড়ে পালিয়ে যাচ্ছে। পরে আহতদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসি।

মামুন ও মাসুমের ছোট ভগ্নিপতি মোঃ বাবু বলেন, রাতে আমি মোঃ মাসুমকে মোটরসাইকেল দিয়ে বাসায় এগিয়ে দিয়ে আমার বাসায় চলে যাই। এমন সময় মাসুম আমাকে ফোন দিয়ে বলে মামুন, ফিরোজ, শরীফ তাকে মারার চেষ্টা করছে। আমাকে বাঁচাও বলে চিৎকার করছে। এ কথা শুনে আমি দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে দেখি মাসুম ও জাহিদ রক্তাক্ত জখম অবস্থায় পড়ে আছে। তাদেরকে মুমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করার পর কর্তব্যরত ডাক্তার তাদেরকে মৃত ঘোষণা করেন।

ভোলা মডেল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ছগির মিয়া বলেন, পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেছেন। তদন্ত চলছে। এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে মামুনের দুই ছেলে শরীফ ও আরিফকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। বাকিদেও গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।