আজকের বার্তা | logo

৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৮ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং

বিশ্ব মাতিয়ে দিলো বাংলাদেশের গান ‘অপরাধী

প্রকাশিত : মে ২৮, ২০১৮, ২০:২৬

বিশ্ব মাতিয়ে দিলো বাংলাদেশের গান ‘অপরাধী

খবরের শিরোনামে চোখ রাখলেই দেখা যায় ‘অমুক ঘণ্টায় অমুক গানের অমুক ভিউ’। কিংবা এক মাসেই কোটিপতি হয়ে গেলেন অমুক কণ্ঠশিল্পীরা। এগুলো গানের নিউজের শিরোনাম। ইউটিউব যুগে এখন সংগীত বেঁচে আছে।

প্রায় প্রতিদিনই ইউটিউবে মুক্তি পাচ্ছে নানা মেজাজ, ইমেজ, আবহের গান। গানটা এখন আর মুখ্য থাকছে না বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই। নামে মাত্র একটি গানকে সবার সামনে তুলে ধরছে বাহারি সব গল্প আর মডেলদের নিয়ে দেখা যায় রঙিন সব ভিডিও। চলছে কার চেয়ে কার গানের ভিডিও বেশি দর্শকের ভিউ পায় সেই প্রতিযোগীতা। অনেকে মান ও গুণের পথে পেরে উঠেন না। তারা নানা বাঁকা পথ বেছে নেন।

তার সবচেয়ে জনপ্রিয়টি হলো অনলাইনে বিশেষ মূল্যের বিনিময়ে ভিডিওটির বিজ্ঞাপন করানো। সবাই এই বিষয়টিকে ‘বুস্টিং’ বলেই চেনেন। আর নানা রকম প্রচারণা তো থাকেই।

তবে প্রচারের চাকচিক্য এবং বুস্টিংয়ের দায় না নিয়েও চমকে দিলো ‘অপরাধী’ নামের শিরোনামের গানটি। এটি সম্ভবত বাংলাদেশের সংগীত জগতে এই মুহূর্তে সবচেয়ে সবচেয়ে আলোচিত গানের নাম। কারণ অংকুর মাহমুদ ফিচারিং আরমান আলিফের এই গানটি বাংলাদেশ ইউটিউব ইতিহাসের প্রায় সব রেকর্ড ভেঙে ফেলেছে আগেই। মাতিয়ে দিচ্ছে সারা দুনিয়া।

গানটি বাংলাদেশের ইউটিউব ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ‘গ্লোবাল র্যাঙ্কিং’-এ ঢুকে পড়েছে। গানটি এই মুহূর্তে ইউটিউবের ‘গ্লোবাল র্যাঙ্কিং’ এ প্রথম ১০০টি গানের মধ্যে ৮০তম স্থানে রয়েছে। এছাড়া ইউটিউবে গানটির ভিউ এখন তিন কোটি এক লাখের উপরে। গানটিতে লাইকের সংখ্যা ৩ লাখ ৩৩ হাজারেরও বেশি অন্যদিকে ডিজলাইকের সংখ্যা ২৬ হাজার!

গেলো ২৬ এপ্রিল ঈগল মিউজিক প্রকাশ করে তরুণ শিল্পী আরমান আলিফের ‘অপরাধী’ শিরোনামের গানটি, অল্প বাজেটের একটি মিউজিক ভিডিওসহ। উল্লেখ করার মতো আহামরি কিছু নেই বাড়তি আকর্ষণের। সুর ও কথার আভিজাত্যও লক্ষ করা যায় না। সাধারণ সহজ কথার একটি গান। ভিডিওতেই নেই তারকা উপস্থিতি, চাকচিক্য। সাদামাটা এই গানটির এমন সাফল্য কেউ কী ভেবেছিলো! কিন্তু তাই হয়েছে। তাক লাগিয়ে দিয়েছে ‘অপরাধী’। যদিও কোনো এক অজানা কারণে, এখনো এই গানটি দেশীয় মিডিয়ার উল্লেখ করার মতো প্রচার পায়নি।

মুক্তির পরপরই খুব দ্রুত ইউটিউবে গানটির ভিউ বাড়তে থাকে। গানটি শুধু বাংলাদেশ নয় বরং পশ্চিমবঙ্গতেও গানটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছ। জানা গেছে, ইউটিউবে ‘অপরাধী’র দর্শক-শ্রোতা বাংলাদেশের চেয়েও পশ্চিমবঙ্গতেই বেশি।

‘অপরাধী’ গানটির কথা ও সুর করেছেন তরুণ কণ্ঠশিল্পী আরমান আলিফ নিজেই। আর সংগীতায়োজন করেছেন অংকুর মাহমুদ। গানটির ভিডিও নির্মাণ করেছে ঈগল টিম। এতে মডেল হয়েছেন আনান, সুমাইয়া আনজুম ও তুহিন চৌধুরী।

ইউটিউবের ‘গ্লোবাল র্যাঙ্কিং’-এ ১০০টি গানের মধ্যে ঢুকে ইতিহাস তৈরি করা গানটির গায়ক আরমান আলিফ বললেন, ‘শ্রোতা-দর্শকদের ভালোবাসার কারণেই এটা সম্ভব হয়েছে। এছাড়া এই মুহূর্তে আসলে আমি আর কিছুই বলতে পারছি না। আমি সবার প্রতি আমার আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমি মনে করি এখন থেকে গানের প্রতি আমার দায়িত্ববোধ আরো বেড়ে গেলো। আমার প্রতি সবার এই ভালোবাসার সম্মান আমি রাখার চেষ্টা করবো।’

একই প্রসঙ্গে গানটির সংগীতায়োজক অংকুর মাহমুদের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি বললেন, ‘আসলে কি প্রতিক্রিয়া জানাবো বুঝতে পারছি না। শুরু থেকেই গানটি নিয়ে আমাদের ভালো একটা প্রত্যাশা ছিল। কিন্তু সত্যি বলতে প্রত্যাশার মাপ এতোদূর ছিল না। এখন শুধু প্রতিক্রিয়ায় একটা কথাই বলতে পারি তা হলো – সম্মানিত শ্রোতা-দর্শকদের প্রতি আমার এবং আমাদের আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও ভালোবাসা জানাচ্ছি তাদের এই ভালোবাসা আমাদের প্রতি, গানটির প্রতি দেখানোর জন্য।’

‘অপরাধী’ গানটির প্রযোজক-পরিবেশক ঈগল মিউজিকের কর্ণধার কচি আহমেদ এ প্রসঙ্গে বললেন, ‘এই অর্জন আমাদের পুরো বাংলাদেশের মিউজিক ইন্ডাস্ট্রির অর্জন। এই অর্জনের জন্য আমি ঈগল টিমের পাশাপাশি ধন্যবাদ জানাতে চাই এমআইবি, আমাদের সকল অডিও কোম্পানীর কর্ণধার, সংগীত শিল্পী -কলাকুশলী, দর্শক-শ্রোতাসহ সকলকে। সবার প্রচেষ্টাতেই আমাদের আজকের এই অর্জন। ঈগল মিউজিক সামনে শ্রোতা-দর্শকদের জন্য আলিফের মতো আরও নতুন প্রতিভাবান শিল্পীদের নিয়ে কাজ করবে, তুলে আনবে। আলিফের মতো সেই সকল ভবিৎষত নতুন শিল্পীদের জন্যও শ্রোতা-দর্শকদের জন্য ভালোবাসা-সমর্থন কামনা করছি।’

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।