আজকের বার্তা | logo

৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২০শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং

বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের বেহাল দশা নিয়ে ক্ষোভ

প্রকাশিত : মে ০৬, ২০১৮, ০০:১৩

বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের  বেহাল দশা নিয়ে ক্ষোভ

 

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের বেহাল দশার চিত্র তুলে ধওে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো: নজরুল ইসলামের কাছে ভোগান্তির কথা বলেছেন ভুক্তভোগীরা। তারা বলেন, বরিশালÑভুরঘাটা পর্যন্ত মহাসড়ক সংস্কাওে প্রতি বছর কাজ করা হয়। কিন্তু বর্ষা এলেই বর্তমান অবস্থার মত খানাখন্দে পরিনত হয়। গতকাল শনিবার সকালে সড়ক ও জনপথ বিভাগের বরিশাল জোন এর কার্যক্রম সম্পর্কে এক গনশুনানী অনুষ্ঠানে মহাসড়কসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে এমন অভিযোগ উঠে আসে। জবাবে সচিব মো: নজরুল ইসলাম বলেন, এ মহাসড়কটি ফোর লেনে উন্নিত হতে যাওয়ায় অস্থায়ী ভাবে সংস্কার করা হচ্ছে। নগরীর আমতলাস্থ সড়কভবন চত্বরে অনুষ্ঠিত গনশুনানীতে সভাপতিত্ব করেন সড়কপরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো: নজরুল ইসলাম। সকাল ১০টায় শুনানীকালে একজন গনমাধ্যমকর্মী বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের বেহাল দশার কথা তুলেধরেন। এসময় তিনি প্রতি বছর কেন সংস্কার করা হলেও বর্ষা এলেই বেহাল অবস্থায় পরিনত হয় তা জানতে চান। বিশেষ কওে জেলার গৌরনদী উপজেলার কটকস্থল থেকে খাঞ্জাপুর পর্যন্ত মহাসড়কে বড় বড় গর্ত তৈরী হয়ে খানাখন্দে পরিনতর কথা জানান। যদিও সেখানে বর্তমানে মহাসড়ক সংস্কাওে কাজ চলমান রয়েছে। এসময় সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো: নজরুল ইসলাম সংশ্লিস্টদের কাছে এসম্পর্কে জানতে চান। পওে সচিব নজরুল ইসলাম জানান, খুব শিঘ্রই এ মহাসড়ক ফোর লেনে উন্নিত হচ্ছে। যেকারনে মাঝে মাঝে বরাদ্ধ দিয়ে অস্থায়ীভাবে সংস্কার করা হচ্ছে। গোপালগঞ্জের এক চেয়ারম্যান গনশুনানীতে অভিযোগ করেন, বরিশাল জোনে যে কাজ করা হয় তাতে টার্ন ওভার বেশি থাকায় বড় ঠিকাদাররা পেয়ে যাচ্ছেন। ফলে স্বল্প টার্ন ওভার এর ঠিকাদাররা বেকার হয়ে যাচ্ছেন। এসময় সচিব বলেন, আগামী জুলাই থেকে এসব কাজেও লটারি হবে। সুজন হাওলাদার নামে বাকেরগঞ্জের একজন ঠিকাদার জানতে চান, গোমা ব্রিজের টেন্ডার কবে নাগাদ হতে পারে। জবাবে জানানো হয়,জুনের আগে প্রায় ৫৬ কোটি টাকার এ কাজ শুরু হবে। একউ উপজেলার ঠিকাদার বাবলু চেয়ারম্যান জানান, সিদ্দিক বাজারের ব্রিজ দীর্ঘ দিন ভেঙে পড়ে আছে। সচিব নজরুর ইসলাম জানান, এ প্রকল্প একনেকে অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। গনশুনানীকালে বক্তব্য রাখেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো: বেলায়েত হোসেন, সড়ক ও জনপথ বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী ইবনে আলম হাসান, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী: মো: আশরাফুল আলম প্রমুখ। এসময় ভুক্তোভোগী ঠিকাদার, সাংবাদিক, শ্রমিকদের নানা প্রশ্নের জবাব দেন সচিবসহ বরিশালসড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী খন্দকার গোলাম মোস্তফা।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।