আজকের বার্তা | logo

৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং

তুর্কি লিগে সতীর্থদের সঙ্গে পগবার ভাইয়ের মারামারি

প্রকাশিত : মে ১২, ২০১৮, ১৪:১৩

তুর্কি লিগে সতীর্থদের সঙ্গে পগবার ভাইয়ের মারামারি

অনলাইন সংরক্ষণ  ///বড় ভাইয়েরা সাধারণত ছোট ভাইদের পথপ্রদর্শক, কিছু ক্ষেত্রে আদর্শও। ফ্লোরেন্তিন পগবা সে রকম কেউ হতে না পারলেও ছোট ভাই পল পগবার মতোই ফুটবলার। কিন্তু খেলায় কিংবা তারকা ইমেজে ফ্লোরেন্তিন তাঁর ছোট ভাইয়ের ধারেকাছেও নেই। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের পল পগবা যুগ্মভাবে বিশ্বের চতুর্থ সর্বোচ্চ দামি ফুটবলার। অন্যদিকে, ফ্লোরেন্তিনের ঠিকানা তুরস্কের অখ্যাত ক্লাব গেনক্লেরবিরলিগি। এ সপ্তাহে এই ক্লাবেরই এক ম্যাচে ফ্লোরেন্তিন মাঠ ছেড়েছেন সতীর্থদের সঙ্গে মারামারি করে!

তুর্কি সুপার লিগে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আনতালাস্পোরের বিপক্ষে ১-০ গোলে পিছিয়ে ছিল গেনক্লেরবিরলিগি। ম্যাচের তখন মাত্র কয়েক মিনিট বাকি। ফ্লোরেন্তিন সম্ভবত হালকা চোট পেয়েছিলেন। কিন্তু কোচ, সতীর্থ কাউকে কিছু না বলেই ২৭ বছর বয়সী এ ডিফেন্ডার হঠাৎ করেই খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে মাঠ ছাড়তে শুরু করেন। ততক্ষণে নির্ধারিত তিনজন খেলোয়াড় বদল করে ফেলেছেন গেনক্লেরবিরলিগি কোচ উমিত ওজাত। অর্থাৎ ফ্লোরেন্তিন মাঠ ছাড়লে তাঁরা পরিণত হবে ১০জনের দলে।
কিন্তু তাঁর সতীর্থরা তা মানবে কেন? অবনমন এড়ানোর লড়াইয়ে নামা গেনক্লেরবিরলিগির জন্য ম্যাচটা এমনিতেই ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। তার ওপর ১-০ গোলে পিছিয়ে আছে দল এবং খেলার বাকি আছে আর মাত্র কয়েক মিনিট। এই অবস্থায় কোনো সতীর্থ বলা নেই কওয়া নেই হুট করে মাঠ ছাড়তে শুরু করলে কেমন লাগে!
গেনক্লেরবিরলিগির খেলোয়াড়দেরও বিষয়টা ভালো লাগেনি। তাঁরা পেছন থেকে ফ্লোরেন্তিনকে অনেক ডেকেছে। কিন্তু ফ্লোরেন্তিন কারও কথায় কান না দিয়ে জার্সি খুলে টাচলাইন পেরিয়ে যান। তাঁর এক সতীর্থ ছুটে গিয়ে প্রতিবাদ জানালে শুরু হয় দুজনের হাতাহাতি! এ সময় দলটির আরও দু-একজন খেলোয়াড় যোগ দেন এই হাতাহাতিতে। পরে দুই দলের স্টাফ ও অফিশিয়ালদের মধ্যস্থতায় লড়াই থেমেছে।
কিন্তু সেটা কিছু সময়ের জন্য। তুর্কি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ফ্লোরেন্তিন ড্রেসিংরুমে যাওয়ার পর সেখানে আরও এক দফা তাঁর সতীর্থদের সঙ্গে হাতাহাতি হয়েছে। তবে ফরাসি সংবাদমাধ্যম ‘লেকিপ’-এর কাছে ঘটনাটা স্বীকার করেননি ফ্লোরেন্তিন। তাঁর ভাষ্য, ‘শারীরিকভাবে মোটেও আঘাতপ্রাপ্ত হইনি। ওরা হয়তো চিৎকার করেছে। কিন্তু তুর্কি ভাষায় ওরা কী বলেছে তা বুঝিনি। খুব শান্তভাবে মাঠ ছেড়েছি। তার কারণ চোট পেয়েছিলাম, খেলা চালিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়নি।’
ক্লাব সতীর্থদের সঙ্গে হাতাহাতি প্রসঙ্গেও কথা বলেছেন গায়ানার এই ডিফেন্ডার, ‘হ্যাঁ, আমার উচিত ছিল কোচকে বলে মাঠ ছাড়া। জানতাম তিনজন খেলোয়াড় বদল হয়ে গেছে। এ জন্য অবশ্যই আমার ক্ষমা চাওয়া উচিত। একটা সময় কয়েকজন আমাকে ঘিরে ধরেছিল। তখন আসলে সবারই মাথা গরম ছিল। এটা ভুল বোঝাবুঝি। আমি দল ছেড়ে যাইনি আর সে রকম মানুষও নই।’

 

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।