আজকের বার্তা | logo

১১ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

সাত জেলায় বজ্রপাতে ১২ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত : এপ্রিল ৩০, ২০১৮, ২১:১৮

সাত জেলায় বজ্রপাতে ১২ জনের মৃত্যু

অনলাইন সংরক্ষণ/// বজ্রপাতে রোববার ১৭ জনের প্রাণহানির পর আজ সোমবারও ১২ জনের প্রাণ গেছে। সোমবার শুধু নারায়ণগঞ্জেই চারজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া রাজশাহীতে ২, জামালপুরে ২, চুয়াডাঙ্গা, রাজবাড়ী, মৌলভীবাজার ও সুনামগঞ্জে একজন করে মারা গেছে।

প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রতিনিধি ও সংবাদদাতাদের পাঠানো প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। তাঁরা সংশ্লিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও নিহত লোকজনের পরিবারের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নারায়ণগঞ্জে রূপগঞ্জ উপজেলার ভোলাব ইউনিয়নে ২ জন, তারাব পৌরসভার তেতলাবো এলাকায় একজন ও সোনারগাঁ উপজেলার মুছারচর গ্রামে একজনের মৃত্যু হয়েছে। ভোলাব ইউনিয়নে খেতে ধান কাটতে গিয়ে বজ্রপাতের কবলে মৃত্যু হয় রফিকুল ইসলাম (৩৪) ও হাসেম মোল্লার (১৭)। তারাব পৌরসভার তেতলাবো এলাকায় প্রাণ গেছে সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী ফরহাদ শেখের (১৪)। বাড়ির পাশে মাছ ধরার সময় বজ্রপাতে ফরহাদের মৃত্যু হয়। অপরদিকে সোনারগাঁয়ে ওবায়দুল (৩০) ধান কাটার সময় বজ্রপাতে মারা যান।

রাজশাহীতে ইয়াকুব আলী (৪০) ও বাবলু শেখ (৩৮) বজ্রপাতে মারা গেছেন। ইয়াকুবের বাড়ি পুঠিয়া উপজেলার নওপাড়া গ্রামে। বাবলুর বাড়ি গোদাগাড়ী উপজেলার জোতজয়রাম গ্রামে। তাঁরা নিজ নিজ এলাকায় খেতে কাজ করার সময় বজ্রপাতের শিকার হন।

জামালপুরে বজ্রপাতের শিকার হয়ে মারা গেছেন বকুল মিয়া (২৫) ও হাবিবুর রহমান (৪০)। তাঁদের মধ্যে প্রথম জনের বাড়ি ইসলামপুর ও দ্বিতীয়জনের বাড়ি সরিষাবাড়ী উপজেলায়।

চুয়াডাঙ্গায় বজ্রপাতে কলেজছাত্র হাসিবুল ইসলাম (২৬) মারা গেছেন। পৃথক বজ্রপাতে আহত হয়েছেন স্কুলশিক্ষক নজরুল ইসলাম (৪০)। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সদর উপজেলার কুতুবপুর ও শৈলগাড়ি গ্রামে ঘটনা দুটি ঘটে। চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের স্নাতকোত্তর শ্রেণির ছাত্র হাসিবুল খেতে ধান কাটার সময় বজ্রপাতের শিকার হন। অপরদিকে আহত নজরুল ইসলাম বাইসাইকেলে মেয়েকে স্কুল থেকে আনতে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে তিনি বজ্রপাতের কবলে পড়েন। এতে তাঁর শরীরের বাম অংশ ঝলসে যায়। সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) শামীম কবির জানিয়েছেন, তাঁর অবস্থাও সংকটাপন্ন।

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নবাবপুর ইউনিয়নে বজ্রপাতে নিহত হন কৃষক আবদুল মতিন মণ্ডল (৪৫)। সকালে ঘটনার সময় তিনি পাটখেতে কাজ করছিলেন।

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে বজ্রপাতে একজন মারা গেছেন। আহত হয়েছেন চারজন। সোমবার দুপুর ১২টায় উপজেলার লাখাইছড়া চা–বাগানে ঘটনাটি ঘটে। স্থানীয় এলাকাবাসী ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, চা–বাগানের ভেতর আনারস বাগানে কাজ করার সময় বজ্রপাত হলে কিশোর গোয়ালা (২০), দীপেন সবর (২৫), রাখাল সবর (২৭), রিপন ভূঁইয়া (১৮) ও অজয় গোয়ালা (২২) গুরুতর আহত হন। তাঁদের শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার পর চিকিৎসকেরা উন্নত চিকিৎসার জন্য রিপন ও অজয়কে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানোর পরামর্শ দেন। সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে অজয় মারা যান।

সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার একটি হাওরে বজ্রপাতে কৃষক ইয়াহিয়া আহমদের (৪২) মৃত্যু হয়েছে। ইয়াহিয়ার বাড়ি সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার রায়পুর গ্রামে। তিনি ধানকাটা শ্রমিক হিসেবে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় এসেছিলেন।
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বজ্রপাতে একজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বজ্রপাতের সময় করণীয়
দুর্যোগ ব্যবস্থাপকেরা বলছেন, বৃষ্টিসহ বিদ্যুৎ চমকানো শুরু হলে উঁচু গাছ, বিদ্যুতের খুঁটি ও টাওয়ার থেকে দূরে থাকতে হবে। ছাদ আছে এমন জায়গায় অবস্থান নিতে হবে, তবে টিনের চালা এড়িয়ে থাকাই নিরাপদ। নদী, পুকুর বা জলাশয় থেকে দূরে সরে যেতে হবে। বৃষ্টিসহ বিদ্যুৎ চমকানোর সময় ঘরের মধ্যে ইলেকট্রনিক যন্ত্রপাতি (মুঠোফোন, ট্যাব, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, কর্ডলেস ফোন, ল্যান্ডফোন) ব্যবহার না করাই ভালো।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।