আজকের বার্তা | logo

৯ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২২শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং

বরিশালে বিদ্যুৎ বিপর্যয়: বজ্রপাতে নিহত-১: দফায় দফায় কালবৈশাখী ঝড় ও শিলাবৃষ্টি

প্রকাশিত : এপ্রিল ০১, ২০১৮, ০১:৪৬

বরিশালে বিদ্যুৎ বিপর্যয়: বজ্রপাতে নিহত-১: দফায় দফায় কালবৈশাখী ঝড় ও শিলাবৃষ্টি

বার্তা ডেস্ক ॥ বরিশালে কালবৈশাখী ঝড় ও শিলাবৃষ্টির কারণে বিদ্যুৎ বিপর্যয় ও ফসলের ব্যাপক ক্ষতি সাধন হয়েছে। তালতলীতে বজ্রপাতে জেলে নিহত এবং আগৈলঝাড়ায় ১ ব্যক্তি আহত হয়েছেন। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর- স্টাফ রিপোর্টার : বরিশালে ২ দফায় কালবৈশাখী ঝড়ে বিদ্যুতহীন হয়ে পড়ে জেলার দুই-তৃতীয়াংশ এলাকা। শুক্রবার সন্ধ্যায় কালবৈশাখী ঝড় শুরু হলে গোটা জেলার বিদ্যুৎ বন্ধ যায়। গতকাল শনিবার দুপুর পর্যন্ত নগরীর মধ্যে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হলেও উপজেলাগুলো এখনও বিদ্যুতহীন। এদিকে ঝড়ের পাশাপাশি শিলাবৃষ্টির কারণে তরমুজ, ছোট আম ও মুকুল, গম, ভুট্টার ক্ষতির আশংকা করছেন সংশ্লিষ্টরা। বরিশাল আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক মাসুদুর রহমান জানান, গভীর সমুদ্রে লঘুচাপের সৃষ্টি হওয়ায় আরও ২/৩ দিন ঝড়ো বৃষ্টির আশংকা রয়েছে। বরিশাল নদী বন্দরে ২ নম্বর সতর্ক সংকেত দেয়া হয়েছে। আবহাওয়া অফিস সূত্র জানায়, শুক্রবার সন্ধ্যা পৌনে ৭টায় প্রথম ঝড় ও বজ্রসহ বৃষ্টি শুরু হয়। সর্বোচ্চ ৩৩.৩ কিলোমিটার বেগে ১৮ মিনিট স্থায়ী কালবৈশাখী ঝড়ে সবকিছু এলোমেলো হয়ে যায়। এসময় নগরীর বঙ্গবন্ধু উদ্যানে আইউব বাচ্চুর কনসার্ট প- হয়ে যায়। ঝড়ে স্টেজ ভেঙে পড়ে স্টেজের নিচে থাকা দুই লাইটম্যান আহত হন। এছাড়া গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৭টায় ফের ১৫ মিনিট স্থায়ী ঝড়োবাতাস হয়। দুই দফার ঝড়ে স্থানীয় আবহাওয়া অফিস ৯ দশমিক ৮ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করেছে। এদিকে আকস্মিক ঝড়ের পাশাপাশি শিলাবৃষ্টিতে ফসলের ক্ষতি হওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে। সদর উপজেলার চরবাড়িয়া ইউনিয়নের লামছড়ি গ্রামের বাসিন্দা কৃষক আবুল কালাম বলেন, তিনি ৩০ বিঘা জমিতে ভুট্টা ও গম রোপণ করেছিলেন। কিন্তু সকালে হঠাৎ করে শিলা বৃষ্টিতে ফসলের ব্যাপক তি হয়েছে। বাবুগঞ্জের কৃষক সরাফত আলী হাওলাদার বলেন, তার আমের বাগানে গাছগুলোতে বেশ মুকুল ধরেছিলো। তবে শিলাবৃষ্টির কারণে গাছের সব মুকুল ঝরে গেছে। বরিশাল কৃষি অধিদপ্তরের উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা শিউলী রানী সাংবাদিকদের বলেন, শুক্রবারের ঝড়ে বরিশালের সদর ও বাবুগঞ্জ উপজেলায় শিলা বৃষ্টি হয়। শিলাবৃষ্টিতে সবচেয়ে বেশি তির আশংকা থাকে তরমুজের। তাছাড়া ছোট আম ও আমের মুকুল, গম, ভুট্টার ক্ষতির আশংকা রয়েছে। বরিশাল পল্লী বিদ্যুতের দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সন্ধ্যার ঝড়ে বেশিরভাগ উপজেলায় গাছ উপড়ে বিদ্যুতের সরবরাহ লাইন তিগ্রস্ত হলে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। সংস্কার শেষে গতকাল দুপুরের পর থেকে পর্যায়ক্রমে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হয়। গতকাল বেলা ৩টা পর্যন্ত খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, হিজলা, মুলাদী, বাবুগঞ্জ, গৌরনদী, মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার বেশিরভাগ এলাকা বিদ্যুতহীন রয়েছে।

তালতলী প্রতিনিধি : বরগুনার তালতলী উপজেলায় বজ্রপাতে মো. সজল (২৮) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শনিবার   বেলা ১১টার দিকে তালতলী উপজেলার সকিনা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সজল উপজেলার মরানিদ্রা গ্রামের মো. সুলতান আহমেদের পুত্র। স্থানীয়রা জানান, সজল আমখোলা এলাকার রাজা মিয়া মাস্টারের জেলে ট্রলারে কাজ করতেন। ঘটনার আগে বাড়ি থেকে ট্রলার মালিক রাজা মিয়ার বাড়িতে রওয়ানা দিয়ে যান। পথিমধ্যে বৃষ্টি শুরু হয়। ভিজতে ভিজতে সকিনা কোস্ট গার্ডের অফিস সংলগ্ন আসলে হঠাৎ বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পুলক চন্দ্র রায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আগৈলঝাড়া প্রতিনিধি : আগৈলঝাড়ায় মৌসুমের প্রথম আকস্মিক কালবৈশাখী ঝড় ও ভারী শিলা বৃষ্টিতে কৃষকের ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। আহত এক জনকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বিদ্যুৎ ব্যবস্থা বিপর্যস্ত। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সন্ধ্যায় আগৈলঝাড়ার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ২০ মিনিটের কালবৈশাখী ঝড় ও ভারী শিলা বৃষ্টিতে কৃষকের ক্ষেতের তরমুজ, ফুট, ভুট্টা, ইরি ধান ও শাক সবজির ব্যাপক ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে। ঝড়ের কারণে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। গতকাল গতকাল শনিবার  দুপুরে উপজেলা সদরে বিদ্যুৎ সরবরাহ চালু হলেও মফস্বল এলাকায় বন্ধ রয়েছে। কালবৈশাখী ঝড় ও শিলা বৃষ্টির সময় গাছের ডাল ভেঙে মাথায় পড়ে বাগধা গ্রামের বাবুরাম রায়ের ছেলে বিমল রায় (৫৫) গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতালে নিলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।