আজকের বার্তা | logo

৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

বরিশালে নির্মাণ সামগ্রীর লাগামহীন মূল্য বৃদ্ধি

প্রকাশিত : এপ্রিল ০৩, ২০১৮, ০১:২১

বরিশালে নির্মাণ সামগ্রীর লাগামহীন মূল্য বৃদ্ধি

 

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বরিশালে নির্মাণ সামগ্রীর দাম লাফিয়ে লাফিয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে। যা গত তিন মাসে বিগত দিনের সমস্ত রেকর্ড ভেঙেছে। তার মধ্যে ইট, বালু, রড, সিমেন্ট এর দাম সবচেয়ে বেশি বেড়েছে। সংশ্লিষ্টরা দাবি করেছেন, আগামীতে এসব নির্মাণ সামগ্রীর দাম আরো কয়েকগুণ বৃদ্ধি পাবে। চলতি মৌসুম বাড়ি ঘর নির্মাণের উপযুক্ত সময়। সামনে বর্ষাকাল অপেক্ষমান ফলে নগরীর সর্বত্রই বাড়ি নির্মাণের হিড়িক পড়েছে। সে সুযোগে ইট, বালু সিমেন্ট, রড ব্যবসায়ীদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছেন ভবন নির্মাণ করা ব্যক্তিবর্গ। জানা গেছে, গত বছরের ডিসেম্বর মাসে নির্মাণ সামগ্রীর দাম অনেকটা সহনীয় পর্যায়ে ছিল। নতুন বছরের শুরু থেকে লাফিয়ে লাফিয়ে নির্মাণ সামগ্রীর দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। ভাটিখানার বাসিন্দা মোঃ শহিদুল ইসলাম স্বপন জানান, যে ভাবে নির্মাণ সামগ্রীর দাম বাড়ছে তাতে বাড়িওয়ালাদের বাজেটের চেয়ে অনেক বেশি টাকা ইনভেস্ট করতে হচ্ছে। প্রত্যেকটি নির্মাণ সামগ্রী মালের দাম প্রায় দ্বিগুণ বেড়েছে। লাফিয়ে লাফিয়ে দাম বৃদ্ধির কারণে অনেক বাড়িওয়ালা বাড়ি নির্মাণের কাজ মাঝপথে থামিয়ে দিয়েছেন। আসলে বাজারে কোনো মনিটরিং নেই বলেই এমনটি হচ্ছে বলে স্বপন জানান। এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কিছু দিন আগে ১ নাম্বার ইট প্রতি হাজার ৯ হাজার ৫শ’ টাকায় বিক্রি হলেও বর্তমানে তা দাম বৃদ্ধি হয়ে ১০ হাজার ৫শ’ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ২ নাম্বার ইট প্রতি হাজার ৮ হাজার টাকা ছিল, যা বর্তমানে ৯ হাজার টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। মেসার্স ইনা ব্রিকস এর মালিক মোঃ ইউনুস মিয়া বলেন, কয়লা সাপ্লাই না থাকায় ইটের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতি হাজার ইটে ১ হাজার টাকা করে দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। নাম্বারি ইট প্রতি ট্রাক (২০০০-ইট) ২২ হাজার টাকা দরে বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে। মেসার্স গোল্ড ব্রিকস এর ম্যানেজার সিদ্দিকুর রহমান জানান, কয়লা পাওয়া যাচ্ছে না। সে কারণে ইটের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিকে থেমে নেই রডের দাম বৃদ্ধি। কিছু দিন আগেও যে রড প্রতি কেজি ৫০ টাকা ছিল বর্তমানে তা বৃদ্ধি পেয়ে ৭৪ টাকা প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে। প্রতিটনে ১৫-১৮ হাজার টাকা দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। সামনে আরো বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে। এদিকে সব চেয়ে বেশি দাম বৃদ্ধি পেয়েছে নির্মাণ সামগ্রীর মধ্যে অন্যতম সিমেন্টের। তিন মাস আগেও বাজারে অ্যাংকর, সুপারক্রিট, সেভেন রিংস, কিং ব্র্র্যান্ড, লাফার্জ সিমেন্ট খুচরা বাজারে প্রতি ব্যাগ ৩৯০ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে। যা বর্তমানে দাম বৃদ্ধি পেয়ে খুচরা বাজারে প্রতি ব্যাগ ৪৬০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। হাটখোলা হাওলাদার স্টিল কর্পোরেশন এর স্বত্বাধিকারী মোঃ মাসুদ বলেন, ‘আন্তর্জাতিক বাজারে কাঁচামালের দাম মাত্র ১০০ ডলার বৃদ্ধি পেয়েছে। তাতে নির্মাণ সামগ্রীর দাম এতো বৃদ্ধি পাওয়ার কোনো কারণ দেখছি না। তবে বাজারে মালের সাপ্লাই কম, বরিশাল সিটি কর্পোরেশনে প্ল্যান বন্ধ ছিল, হঠাৎ করে প্ল্যান চালু হয়েছে। ঠিক তখনই নির্মাণ সামগ্রীর দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। চারিদিকে কাজের ডিমান্ড বেশি ফলে মিলওয়ালারা নির্মাণ সামগ্রীর দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন। মিলওয়ালারা প্রতিদিনই দাম বাড়াচ্ছেন। এখন টাকা দিয়েও নির্মাণ সামগ্রী পাওয়া যাচ্ছে না। বাজারে কোনো মনিটরিং নেই বলেই এমনটা হচ্ছে।’ বৃষ্টি বাড়লে হয়তো মালের দাম কমবে বলে তিনি জানান। অপর দিকে বেড়েছে বালুর দামও। পাকসি টোক বালু যা আগে ৩৭ শত টাকায় প্রতি ট্রাক বিক্রি হলেও বর্তমানে তা প্রতি ট্রাক ৪৫ শত টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ভিটা বালু (লোকাল বালু) প্রতি ট্রাক ১১শত টাকা। সিলেট চান বালু প্রতি ট্রাক কিছু দিন আগে ৫ হাজার টাকায় বিক্রি হলেও বর্তমানে ৬ হাজার ৫শ’ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। নগরীর ইসলামিয়া কলেজ সংলগ্ন স্টার এন্টারপ্রাইজ’র প্রোপাইটর আব্দুল মান্নান বলেন, পাকসি বালু বর্তমানে প্রতি ট্রাক ৪৫ শত টাকা, সিলেটচান বালু প্রতিট্রাক ৬ হাজার ৫শ’ টাকা, লোকাল বালু ১১ শত টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তবে এ অবস্থা নিরসনের জন্য বাজার মনিটরিং এর উপর গুরুত্ব দিয়েছেন বাড়ির মালিকরা।

 

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।