আজকের বার্তা | logo

৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

পুরস্কার আমার জন্য অনেক বড় অনুপ্রেরণা

প্রকাশিত : এপ্রিল ১৯, ২০১৮, ২৩:১৬

পুরস্কার আমার জন্য অনেক বড় অনুপ্রেরণা

অনলাইন সংরক্ষণ  ।।।। প্রশ্ন: ঢাকা অ্যাটাক কি চলচ্চিত্রে আপনাকে কিছুটা এগিয়ে দিয়েছে?
আরিফিন শুভ: অবশ্যই। এই ছবি আমার চলচ্চিত্রের জায়গাটা অনেকখানিই শক্ত করেছে। আমার গ্রহণযোগ্যতা বা আমাকে দিয়ে যে ভিন্ন ধরনের চরিত্র করা সম্ভব, তা ঢাকা অ্যাটাক টিম আমাকে দিয়ে প্রমাণ করিয়েছে। নিশ্চয়ই এতে আমার চলচ্চিত্রে কাজের ক্ষেত্রে আরও বৈচিত্র্য আসবে। ভিন্ন ধরনের চরিত্রে কাজের সুযোগও হবে বলে আমি মনে করি।

প্রশ্ন: কিন্তু ঢাকা অ্যাটাক-এর পরপরই ভালো থেকো ছবিটির প্রতি দর্শকের যে আলাদা আগ্রহ ছিল, সেই প্রত্যাশা সম্ভবত পূরণ হয়নি!
আরিফিন শুভ: পৃথিবীতে কোনো ক্ষেত্রের শিল্পীরই রেকর্ড নেই, নজির নেই তার প্রতিটি কাজই সমাদৃত হয়েছে। আমি চেষ্টা করেছি ছবিটিতে একই ধাঁচের কাজ না করতে। আমি সার্থক যে আমার জায়গা থেকে ভিন্ন কিছু করার চেষ্টা করেছি। তবে ভালো থেকো কারও কারও কাছে ভালো লেগেছে, কারও কারও লাগেনি। এটি হতেই পারে। দর্শক কখন কোন ছবিটি নেবেন, কোনটি নেবেন না, তা বলা মুশকিল। কারণ ছুঁয়ে দিলে মন-এর পরের ছবি কিন্তু ওইভাবে আলোচনা হয়নি। আবার পরবর্তী সময়ে ঢাকা অ্যাটাকআলোচিত হয়েছে। তাই কাজের ফলাফল না ভেবে, দর্শককে বিনোদন দেওয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছি। কাজের মধ্যে দর্শক কোন ধরনের কাজ দেখতে পছন্দ করেন, নিজেকে ভেঙে-গড়ে সে ধরনের কাজের চেষ্টা সব সময়ই আমার আছে।

প্রশ্ন: কেউ কেউ বলছেন একটি সিনেমার গল্প ছবিটি মুক্তির প্রথম কয়েক দিন ভালো গেলেও এখন যাচ্ছে না। দুর্বলতা কোথায়?
আরিফিন শুভ: এই ছবিটির পরিচালক অভিনেতা-অভিনেত্রী—সবাই কিন্তু নামকরা। আমি কিন্তু একটা হিসাব কষে, বিশ্বাস নিয়েই কাজটি করেছি। ছবিটি কারোর কাছে ভালো লেগেছে, কারও কাছে নয়। কিন্তু তাই বলে যে ছবিটি একেবারেই খারাপ যাচ্ছে, তা নয়। তা ছাড়া বর্তমান সময়ে আমাদের চলচ্চিত্রে যে অনেক বেশি ভালো ছবি তৈরি হচ্ছে, তা-ও নয়। এর মধ্যেওএকটি সিনেমার গল্প যথেষ্ট ভালো যাচ্ছে বলে আমি মনে করি।

প্রশ্ন: প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে ছবিটি দেখেছেন কি?
আরিফিন শুভ: হ্যাঁ। আমি, আলমগীর সাহেব, ভারতের অভিনেত্রী ঋতুপর্ণাসহ কয়েকজন মিলে মুক্তির দিনই বসুন্ধরা সিনেপ্লেক্সে ছবিটি দেখতে গিয়েছিলাম। দর্শকের সঙ্গে বসেই ছবিটি দেখেছি। দর্শকের সরাসরি ভালো প্রতিক্রিয়া পেয়েছি।

প্রশ্ন: সব মিলিয়ে এ পর্যায়ে ছবিটিতে দর্শকের সাড়া কেমন?
আরিফিন শুভ: বিরতির পরের অংশটুকু বেশি পছন্দ করছেন দর্শকেরা। এটি পরিচালকেরই কৌশল। শেষ অংশের গল্পের টান টান উত্তেজনা থাকলে তা দর্শকের মনে গেঁথে যায়। দর্শকদের অনেকই, বিশেষ করে নারী দর্শকদের কেউ কেউ আমাকে বলেছেন, ছবির শেষে গিয়ে চোখ ভিজে যায়। ছবিটির গল্প দর্শকের সেই জায়গাটা ধরতে পেরেছে। আমি মনে করি এটিই ছবির সার্থকতা।

প্রশ্ন: নতুন কাজের খবর কী?
আরিফিন শুভ: দুটি ছবির কথাবার্তা চলছে। আশা করছি ২৫ এপ্রিল কাজ দুটি চূড়ান্ত হবে। যদি হয়, তাহলে জুন মাসে একটির শুটিং শুরু হবে। পাশাপাশি কলকাতার রঞ্জন ঘোষের ছবি আহারের প্রথম ধাপের কাজ শেষ। শেষ ধাপের কাজ শুরু হবে মে মাসে।

প্রশ্ন: অরিন্দম শিলের যৌথ প্রযোজনা ছবি বালি ঘর-এর শুটিং পিছিয়েছে আগেই। ছবির নতুন খবর কী?
আরিফিন শুভ: নতুন খবর হলো আগস্ট মাসের ১৯ অথবা ২০ তারিখে বালি ঘর ছবির শুটিং শুরু হওয়ার কথা আছে। প্রথম ধাপের কাজ হবে বাংলাদেশের কক্সবাজারে। এরপর ভারতের কলকাতায়।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।