আজকের বার্তা | logo

১২ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২৬শে জুন, ২০১৯ ইং

ভাবীর চুমুতে..!

প্রকাশিত : মার্চ ১৬, ২০১৮, ২১:৫৫

ভাবীর চুমুতে..!

বেচারি ভাবী! দেবরের বিয়ের দিনে ভালবেসে তাকে একটা চুমু দিয়ে সবার চক্ষুশুলে পরিণত হতে হল। বিয়ে তো ভেঙে গেলই, এমনকি কনেপক্ষ বরযাত্রীদের ধরে দিল আচ্ছা করে ধোলাই।

উত্তর প্রদেশের আলীগড় জেলার খায়ের রোডের একটি পার্টি ভেন্যুতে বৃহস্পতিবার রাতে ওই বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। দুই পরিবারের পাঁচ শতাধিক অতিথি সেখানে উপস্থিত ছিলেন। মহাধুমধামে চলছিল সবকিছু। এ সময় বরের ভাবি খুবই উত্তেজিত হয়ে পড়েন। অনুষ্ঠানে বেশ কয়েকবার দেবরকে জড়িয়ে ধরেন তিনি। এমনকি কনের পরিবারের সদস্যদের সামনেই বরকে চুমু দিয়ে বসেন। বরকে ফ্লোরে টেনে নিয়ে নাচতে বাধ্য করেন তিনি। বেশ ঘনিষ্ঠ অবস্থায় তারা নাচানাচিও করতে থাকেন। কিন্তু বিষয়টি একেবারে পছন্দ হয়নি কনের। এই দেখে অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করেন তিনি। কনের পরিবারও একই ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তারা শুধু বরযাত্রীদের মারধরই করেনি, বরকেও আটক করে রাখেন।

সামাজিক যোগাযোগ সাইটের মাধ্যমে পরিচয় হয়েছিল বিয়ের বর-কনের। এরপর প্রণয় থেকে পরিণয়। কিন্তু সেই পরিণয়ের চূড়ান্ত মুহূর্তটি সুখকর হলো না বরের ভাবির কারণে! বিয়ের অনুষ্ঠানে কনে ও তার পরিবারের সামনে দেবরকে চুমু খাওয়ায়ই যত গণ্ডগোল।

সেখানে উপস্থিত ছিলেন আলীগড়ের মেয়র শকুন্তলা ভারতী। তিনি বলেন, ‘বরকে কনে পক্ষের লোকজন ঘিরে রেখেছিল। মনে হচ্ছিল তিনি কারাগারে রয়েছেন। এ সময় দুপক্ষের মধ্যে বেশ কথা কাটাকাটি হচ্ছিল। বিষয়টি আমি মীমাংসা করে দিই। কিন্তু এটি খুব দুঃখের বিষয় যে, বর পক্ষকে কনে ছাড়াই বাড়ি ফিরতে হয়।’

শকুন্তলা ভারতী পারিবারিকভাবে বিষয়টি সমাধানের জন্য পুলিশকে খবর দেন। আলীগড়ের দিল্লি গেট জোনের এক পুলিশ কর্মকর্তা জানান, বিষয়টি ব্যক্তিগতভাবে সমাধানের উপায় খুঁজে বের করছেন তারা। এ ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু বলার সময় আসেনি। তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।