আজকের বার্তা | logo

৬ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

বিভাগীয় সমাবেশের অনুমতি এখনও পায়নি বিএনপি

প্রকাশিত : মার্চ ৩১, ২০১৮, ০১:৪৩

বিভাগীয় সমাবেশের অনুমতি এখনও পায়নি বিএনপি

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বরিশালে বিএনপি’র বিভাগীয় সমাবেশ নিয়ে অনিশ্চয়তার সৃষ্টি হয়েছে। আগামী ৭ এপ্রিল শনিবার দিন ধার্য করে তা সফলের জন্যে নানা আয়োজন চললেও এখনো মেলেনি সমাবেশের অনুমতি। মহানগর বিএনপি’র পক্ষ থেকে গত ১৪ মার্চ নগরীর ফজলুল হক এভিনিউয়ে সমাবেশ করার অনুমতি চেয়ে মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার বরাবরে একটি আবেদন করা হলেও দীর্ঘ ১৪ দিনে সেই আবেদন সম্পর্কে কোনো মতামত দেয়নি পুলিশ। পুলিশের নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র জানিয়েছে, যে স্থানে বিএনপি সমাবেশ করার অনুমতি চেয়েছে সেখানে এই অনুমতি দেয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। কেননা ওই সড়কটি নগরীর অত্যন্ত ব্যস্ততম। সেখানে সমাবেশের অনুমতি দেয়া হলে নাগরিক জীবনে দুর্ভোগের সৃষ্টি হবে। তবে বিএনপি যদি অন্য কোথাও সমাবেশ করার অনুমতি চায় তবে তা বিবেচনা করা হবে। বরিশাল মহানগর বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক বিসিসি কাউন্সিলর জিয়াউদ্দিন সিকদার জানান, ‘কারান্তরীণ বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে দেশের বিভাগীয় শহরগুলোতে সমাবেশ করছে বিএনপি। এরই ধারাবাহিকতায় আগামী ৭ এপ্রিল বরিশালে বিভাগীয় সমাবেশ করার তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। দলীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, নগরীর ফজলুল হক এভিনিউয়ে ওই সমাবেশ করতে চাইছি আমরা। নগর ভবনের সামনের প্রশস্ত ওই সড়কে সমাবেশ করার ক্ষেত্রে বেশ কিছু সুবিধাও রয়েছে। যেহেতু বিভাগীয় সমাবেশ তাই ওই দিন বরিশাল বিভাগের সবকটি জেলা-উপজেলা থেকে লোক আসবে বলে আশা করছি আমরা। সেক্ষেত্রে ওই সড়কে কম করে হলেও লক্ষাধিক মানুষের সংস্থান দেয়া যাবে। তাছাড়া পূর্বে চক বাজার এবং লঞ্চঘাট ও পশ্চিমে সদর রোডের সংযোগ থাকায় ওই দুটি এলাকা দিয়ে যানবাহন চলাচল করার ব্যবস্থা হলে নগরবাসীরও খুব একটা সমস্যা হবে না। এসব কিছু বিবেচনা করে আমরা গত ১৪ মার্চ বিএমপি কমিশনার এসএম রুহুল আমিন বরাবরে একটি আবেদন করি। আবেদনে ৭ এপ্রিল ফজলুল হক এভিনিউয়ে বিভাগীয় সমাবেশ করার অনুমতি চাওয়া হয়। অবশ্য এখন পর্যন্ত ওই আবেদনের বিষয়ে আমাদেরকে অনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি বিএমপি।’ বিষয়টি সম্পর্কে আলাপকালে বরিশাল জেলা (দক্ষিণ) বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. আবুল কালাম শাহিন বলেন, ‘সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের। দলের অন্যান্য কেন্দ্রীয় নেতারাও থাকবেন সেখানে।’ বরিশাল বিভাগের দায়িত্বে থাকা বিএনপি’র কেন্দ্রীয় দুই সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমান ও মাহবুবুল আলম নান্নু বলেন, ‘সমাবেশে কম করে হলেও লক্ষাধিক লোকের সমাগম ঘটানোর টার্গেট রয়েছে আমাদের। সমাবেশ সফলের লক্ষ্যে গত ২৪ মার্চ রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপার্সনের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয় প্রস্তুতি সভা। দলের যুগ্ম মহাসচিব সাবেক এমপি মজিবর রহমান সরোয়ারের সভাপতিত্বে সেখানে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় এবং জেলার নেতারা। এছাড়া গত ১০ মার্চ বরিশালে অনুষ্ঠিত প্রস্তুতি সভায়ও কেন্দ্রীয় এবং জেলা নেতারা সমাবেশ সফল করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। বর্তমানে চলছে জেলায় জেলায় সমাবেশ সফলের প্রস্তুতি। বরিশাল নগরীর ৩০টি ওয়ার্ডেও অনুষ্ঠিত হচ্ছে কর্মী ও প্রস্তুতি সভা।’ ঝালকাঠি জেলা বিএনপি’র সিনিয়র সহ সভাপতি মিঞা আহম্মেদ কিবরিয়া এবং পিরোজপুর জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আলমগীর হোসেন বলেন, ‘সমাবেশ সফলে আমরা জেলা-উপজেলা এমনকি ইউনিয়ন-ওয়ার্ড পর্যায়ে পর্যন্ত প্রচারণা চালাচ্ছি। দেশনেত্রীর মুক্তির দাবিতে দলীয় নেতা-কর্মীদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষেরও স্বতঃস্ফূর্ত সাড়া পাচ্ছি এই সমাবেশের ব্যাপারে।’ সবকিছু মিলিয়ে পুরো বিভাগে যখন সাজ সাজ রব ঠিক সেই মুহূর্তে আর মাত্র ৮ দিন বাকি থাকলেও এখন পর্যন্ত পুলিশ প্রশাসনের কাছ থেকে অনুমতি না মেলায় শেষ পর্যন্ত সমাবেশের ভাগ্যে কি ঘটবে সেটা নিয়েই এখন সৃষ্টি হয়েছে অনিশ্চয়তা। টানা ১৪ দিন পেরুলেও কি কারণে এখন পর্যন্ত অনুমতি দেয়া বা না দেয়ার ব্যাপারে পুলিশের কোনো উত্তর মেলেনি তাও বলতে পারছেন না এখানকার বিএনপি নেতারা। বিষয়টি সম্পর্কে আলাপকালে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার এসএম রুহুল আমিন বলেন, ‘তারা নগরীর ব্যস্ততম সড়ক ফজলুল হক এভিনিউতে সমাবেশ করার অনুমতি চেয়েছে। সেখানে সমাবেশ করার অনুমতি দেয়া হলে তা নাগরিক জীবনে দুর্ভোগের কারণ হবে। তাই আমরা সেখানে বিএনপিকে সমাবেশ করার অনুমতি দেব না।’ বিকল্প কোনো স্থানে অনুমতি চাওয়া হলে কি করবেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বিকল্প আবেদন পাওয়া গেলে তখন তা বিবেচনা করে দেখা হবে।’ বিষয়টি নিয়ে আলাপকালে দলের যুগ্ম মহাসচিব এবং বরিশাল মহানগর বিএনপি’র সভাপতি অ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ার বলেন, ‘একই স্থানে কিছুদিন আগে সমাবেশ করে গেছেন ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তার জনসভা করার ক্ষেত্রে যদি জনদুর্ভোগ না হয় তাহলে আমাদের বেলায় তা কেন হবে? না কি আমাদেরকে সমাবেশ করতেই দিতে চাইছে না সরকার? তবু আমরা হাল ছাড়বো না। আমাদের করা আবেদনের জবাবে যদি পুলিশ প্রশাসন অনুমতি না দেয় তাহলে আমরা বিকল্প স্থানের উল্লেখ করে আবার আবেদন করবো। শান্তিপূর্ণ এবং গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় আমরা এই বিভাগীয় সমাবেশ করতে চাই।’

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।