আজকের বার্তা | logo

৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৭ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং

জুতা, টুথ ব্রাশ ও ব্রা’র বেড়া! (ছবিসহ)

প্রকাশিত : মার্চ ২০, ২০১৮, ১৬:২১

জুতা, টুথ ব্রাশ ও ব্রা’র বেড়া! (ছবিসহ)

চলুন জেনে নেই যেখানে মহিলারা অন্তর্বাস, ব্রা, জুতা ও টুথ ব্রাশ ঝুলিয়ে রেখে যান।

১. বিশ্বের মধ্যে নিউজিল্যান্ড অনেক সুন্দর একটি দেশ। কিন্তু নিউজিল্যান্ডে বহু অবাক করার মতো ঘটনা রয়েছে। দেশটিতে শুধুই যে ‘ব্রা বেড়া’ দেখা যায়, তেমনটি নয়। টুথ ব্রাশেরও বেড়া রয়েছে নিউজিল্যান্ডে। হ্যামিলটন থেকে প্রায় ১ ঘণ্টার রাস্তা পেরিয়ে তে পাহু গ্রামে। টুথ ব্রাশের বেড়ার দেখা পাওয়া যায়।

২. স্থানীয় গ্রেম ক্যারিন্স নামে একজন বাসিন্দা টুথ ব্রাশ দিয়ে প্রথমে বেড়া ডিজাইন করেন। পরে তাকে ফলো করে প্রতিবেশীরাও নিজেদের নষ্ট হয়ে যাওয়া টুথ ব্রাশ ওখানে ঝুলিয়ে দেন। তারপর থেকে নষ্ট হয়ে যাওয়া টুথ ব্রাশগুলো ওই বেড়ায় স্থান পেতে শুরু করে।

৩. এরপর ধীরে ধীরে অসংখ্য মানুষ টুথ ব্রাশ ঝোলাতে শুরু করেন। এমনকি সে দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী হেলেন ক্লার্ক নিজের টুথ ব্রাশ দান করেন এখানে। এমনটিই জানা গেছে।


৪. এছাড়া জুতোর বেড়াও এখানে লক্ষ করা যায়। তবে বিশেষ সংস্থার জুতোই এখানে ঝুলতে দেখা যায়।

৫. মরিস ইয়ক নামে এক ব্যবসায়ী জাপান থেকে জুতোর ডিজাইন অনুকরণ করে নিউজিল্যান্ডে প্রচলন করেন। ১৯৫৭ সাল থেকে সেই জুতো নিউজিল্যান্ডে তৈরি করেন মরিস ইয়ক।

৬. এই জুতো এখন নিউজিল্যান্ডের সব থেকে জনপ্রিয়। ওই জুতো দিয়ে সাজানো বেড়াও দেখতে পাবেন ওখানে।

৭. এছাড়াও নিউজিল্যান্ডে অন্তর্বাস বেড়া লক্ষ করা যায়, যেখানে নানা রংয়ের অন্তর্বাস ঝুলছে। এটা দেখার জন্য পর্যটকরা ভিড় পর্যন্ত জমাচ্ছেন। এমনকি নিজের অন্তর্বাস খানি পর্যন্ত খুলে সেই বেড়ায় ঝুলিয়ে দিতেও দেখা যায় তাদের।

৮. নিউজিল্যান্ডের সেন্ট্রাল ওটাগোয় বেশ কয়েক কিলোমটার জুড়ে একটি তারের বেড়া রয়েছে। যেটি কারড্রোনা ব্রা ফেন্স নামে পরিচিত।

৯. কিন্তু হঠাৎ এমন অদ্ভুত ধরনের বেড়া তৈরি কারণ কি? সে সম্পর্কে ওই ভাবে কিছু জানা যায়নি। তবে কথিত আছে, ১৯৯৯ সালে ৪ জন নারী তাদের নিজেদের অন্তর্বাস খুলে ওই বেড়ায় ঝুলিয়ে দিয়েছিলেন। এটি তারা নববর্ষ পালনের উল্লাসে এই কাজটি করেছিলেন বলে জানা যায়।

১০. কার্ড্রোনা হোটেলে নববর্ষ উদযাপন করে তারা ঠিক করেন, ব্রা খুলে অবাধ স্বাধীনতা ঘোষণা করবেন। এরপর সময় যত গড়িয়েছে ওই বেড়ায় ব্রায়ের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। যা কিনা ধারাবাহিক হারে বাড়ছে।

১১. এখানে প্রত্যেকি দিন কোনো না কোনো নারী নিজেদের অন্তর্বাস ঝুলিয়ে দিয়ে যান। সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এর সংখ্যাটা বেড়ে প্রায় কয়েক হাজারে দাঁড়িয়েছে বর্তমানে। জানা যায়, ইতোমধ্যে এই জায়গাটি পর্যটকদের মন কাড়তে শুরু করেছে।

১২. এই জায়গাটিকে অনেকে পরিবেশের দৃশ্যদূষণ বলে সমালোচনা করলেও, ওই জায়গার জনপ্রিয়তায় কখনো ভাঁটা পড়েনি। বরঞ্চ আরো জনপ্রিয়তা বেড়েছে।

১৩. পরবর্তীকালে, বিশ্ব স্তন ক্যানসার সচেতনতার জন্য এই বেড়া উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে আসছে।

১৪. ব্রা বেড়া ছাড়াও নিউজিল্যান্ডের কিংসটন রোডের ধারে দেখা যায় হুইল কটেজ। হুইল দিয়ে সাজানো বেড়া।

১৫. সাইকেলের বেড়াও সাউথল্যান্ড ওথলে দেখতে পাবেন।

১৬. দেশটির অকল্যান্ড কিংবা ওয়েন্ডারহমের গেলেই দেখা মিলবে রাস্তার দু’ধারে গাড়ির চাকা দিয়ে বেড়া। অদ্ভুত না! সত্যিই নিউজিল্যান্ডের এমন ধরনের বেড়া সবাইকে অবাক করে।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।