আজকের বার্তা | logo

৫ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

এইচএসসির প্রবেশপত্র বাবদ ১ হাজার টাকা!: বরিশালে জিম্মি পরীক্ষার্থীরা

প্রকাশিত : মার্চ ৩০, ২০১৮, ০২:২০

এইচএসসির প্রবেশপত্র  বাবদ ১ হাজার টাকা!: বরিশালে জিম্মি পরীক্ষার্থীরা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আগামী ২ এপ্রিল সারাদেশে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এ পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে বরিশালের বিভিন্ন কলেজে পরীক্ষার্থীরা জিম্মি হয়ে পড়েছেন। কলেজগুলোর কর্তৃপক্ষ প্রবেশপত্র বাবদ সর্বোচ্চ ১ হাজার টাকা নিচ্ছে পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে। মেঘনা ঘেরা হিজলার ৩টি কলেজের শত শত ক্ষুব্ধ পরীক্ষার্থী এমন অভিযোগ করেছেন। একই ধরনের অভিযোগ এসেছে বাবুগঞ্জ, উজিরপুর, মুলাদীর বিভিন্ন কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের উপ পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অরুন কুমার গাইন বলেছেন, ‘প্রবেশপত্র বাবদ পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে কোনো অর্থ নেয়ার বিধান একদম নেই, এটা অপরাধ।’ বরিশালের হিজলা ডিগ্রি কলেজে এবার এইচএসসি পরীক্ষার্থী ৬৪৪ জন। এসব পরীক্ষার্থীরা প্রবেশপত্র নেয়ার সময় কলেজ কর্তৃপক্ষ প্রত্যেকের কাছ থেকে গত কয়েকদিন ধরে ১ হাজার টাকা করে রাখছে। কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের পরীক্ষার্থী জিদান হাওলাদার বলেন, প্রবেশপত্র বাবদ সকল পরীক্ষার্থীর কাছ থেকে ১ হাজার টাকা করে নেয়া হয়েছে। আবার কারো কারো কাছ থেকে ২/১শ টাকা কম রাখা হয়েছে। একই কলেজের মানবিক বিভাগের পরীক্ষার্থী মো: সুজন বলেন, অনেক অনুরোধ করায় তার কাছ থেকে ৫০০ টাকা নেয়া হয়েছে। যদিও গত ২৭ মার্চ থেকে সকলেই ১ হাজার টাকা কলেজের কেরানির কাছে দিয়ে প্রবেশপত্র নিয়েছেন। হিজলা ডিগ্রি কলেজ অধ্যক্ষ খগেন চন্দ্র বিশ^াস প্রবেশপত্র নেয়াকালে অর্থ নেয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, পরীক্ষার্থীদের কাছে কিছু বকেয়া টাকা রয়েছে। সেই টাকা নেয়া হচ্ছে। প্রত্যেকের কাছ থেকে ৩শ থেকে ৪শ টাকা করে নেয়া হচ্ছে। হিজলার কাউরিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজে এইচএসসি পরীক্ষার্থী প্রায় ৬৫ জন। এদের প্রত্যেকের কাছ থেকে প্রবেশপত্র বাবদ ১ হাজার টাকা নিচ্ছে কর্তৃপক্ষ। কলেজের মানবিক বিভাগের পরীক্ষার্থী নাসির হোসেন বলেন, তার আর্থিক অবস্থা অনেক খারাপ। কলেজে আসতে হয় অনেক দূর থেকে। কিন্তু প্রবেশপত্র বাবদ ১ হাজার টাকা ধার্য করায় তিনি বিপাকে পড়েন। এ অবস্থায় একজন শিক্ষককে অনুরোধ করায় ৮শ টাকা নিয়েছে। এই অর্থ প্রত্যেকের কাছ থেকেই নেয়া হচ্ছে বলে তিনি দাবি করেন। জানতে চাইলে হিজলার কাউরিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যক্ষ ইসমাইল হোসেন বলেন, তার কলেজ থেকে এইচএসসিতে ৬৪জন পরীক্ষার্থী অংশ নিবে। তিনি বলেন, তারা প্রবেশপত্র বাবদ ৩শ টাকা এবং অন্যান্য পাওনা নিচ্ছেন। সেন্টার ফি বাবদও অর্থ নেয়া হচ্ছে। তিনি দাবি করেন, ছাত্ররা অনেক কিছুই বলতে পারে। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে বেসরকারি কলেজ হিসেবে তারা সরকারি তেমন সুযোগসুবিধা পাচ্ছেন না। একই উপজেলার আঃ জব্বার মেহমান কলেজেও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের প্রবেশপত্র নেয়াকালে অর্থ নিচ্ছে কলেজ কর্র্তৃপক্ষ। উজিরপুরের বিএন খান ডিগ্রি কলেজের একাধিক পরীক্ষার্থী জানিয়েছেন, তাদের কাছ থেকে প্রবেশপত্র বাবদ ৫শ টাকা নেয়া হয়েছে। বাবুগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের পরীক্ষার্থীরা অভিযোগ করেছেন, কেন্দ্র ফি ও উন্নয়ন ফি এর নামে প্রবেশপত্র নেয়ার সময় ৫শ টাকা নেয়া হচ্ছে। এ ব্যাপারে বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান প্রফেসর বিপ্লব কুমার ভট্টাচার্য বলেন, এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে প্রবেশপত্র বাবদ কোনো টাকা নেয়ার সুযোগ নেই। নেয়ার কোনো বিধানও নেই। কারণ কেন্দ্র ফি নেয়া হয়েছে আগেই। তিনি বলেন, এ ধরনের অভিযোগ তাদের কাছে এসেছে। উজিরপুরের বিএন খান ডিগ্রি কলেজে পরীক্ষার্থীরা প্রবেশপত্র নেয়ার সময় ৫শ টাকা করে কর্তৃপক্ষ নিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। কিন্তু কেউ লিখিত অভিযোগ না দেয়ায় কিছুই করা যাচ্ছে না। তিনি বলেন, এরপরও বিষয়টি তারা খতিয়ে দেখবেন।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।