আজকের বার্তা | logo

৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং

বরিশালে নৌকায় ভোট চাইলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ০৯, ২০১৮, ০১:০১

বরিশালে নৌকায় ভোট চাইলেন প্রধানমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘ক্ষমতায় থাকতে জনগণের সম্পদ লুট করেছে বিএনপি। এতিমের টাকা পর্যন্ত চুরি করেছে। আজকে তাই এতিমের টাকা মেরে খালেদা ও তারেক শাস্তি পেয়েছেন।’ তিনি বলেন, ‘মানুষ পুড়িয়ে আজকে তিনি (খালেদা জিয়া) কোথায়। আদালতে তার বিচার হয়েছে।’ গতকাল বৃহস্পতিবার বরিশাল নগরীর বঙ্গবন্ধু উদ্যানে এক ঐতিহাসিক ভাষণে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। বিকেল ৩টা ২৬ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন জনসভাস্থলে এসে পৌঁছান, তখন বঙ্গবন্ধু উদ্যান ছিল কানায় কানায় পূর্ণ। বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ এমপির সভাপতিত্বে বিকেল ৪টা ২০ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বক্তৃতা দেয়া শুরু করেন। তিনি তার বক্তব্যের শুরুতেই বঙ্গবন্ধু উদ্যান জনসমুদ্রে পরিণত করায় অভিনন্দন জানান। এসময় তিনি বরিশালের উন্নয়নে বিগত সময়ে ভূমিকা রাখা সাবেক মন্ত্রী শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত, প্রয়াত মেয়র শওকত হোসেন হিরনসহ অনেকের কথাই স্মরণ করেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বরিশালের সার্বিক উন্নয়ন করা হবে। আজকে ৩৯টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন এবং ৩৩টি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। পদ্মার এপাড়ে এই প্রথম সেনানিবাস স্থাপন করা হল। দেশের একটি মানুষও গৃহহারা হবে না। কেননা আ’লীগ আসলে জনগণ শান্তিতে থাকে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ অঞ্চলের উন্নয়ন প্রশ্নে বলেন, ‘ইনশাল্লাহ ভোলার গ্যাস পাইপ লাইনের মাধ্যমে বরিশালে সরবরাহ করা হবে। বরিশাল-ভোলা সেতু করে দেয়া হবে। বরিশালসহ অন্যান্য বিভাগীয় শহরে মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয় নির্মাণ করা হবে।’ প্রধানমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়ার এক ছেলে দুর্নীতি করে অর্থ পাচার করেছে যা আমেরিকার আদালতে প্রমাণ হয়েছে। অপর ছেলে সিঙ্গাপুরে অর্থ পাচার করেছিল। ২০১৪ সালে মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করেছে। তিনি উন্নয়ন প্রশ্নে বলেন, ‘আমরা পদ্মা সেতু নিজেদের অর্থে বাস্তবায়ন করেছি। ১ জানুয়ারি ৩৫ লাখ শিক্ষার্থীদের হাতে বিনামূল্যে নতুন বই দিয়েছি। ১ কোটি ৩০ লাখ প্রাথমিক শিক্ষার্থীর মায়েদের হাতে মোবাইলের মাধ্যমে বৃত্তি পৌঁছে দিয়েছি। দেশের ২ কোটি ৩ লাখ শিক্ষার্থী বর্তমানে বৃত্তি পাচ্ছে।’ তিনি ২০০১ সালের নির্বাচনের কথা উল্লেখ করে বলেন, ওই সময় বিএনপি গ্যাস বিক্রির মুচলেকা দিয়ে মতায় এসেছিল। বরিশালের প্রতিটি উপজেলায় আ’লীগের নেতাকর্মীরা অত্যাচার নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। আগৈলঝাড়া, গৌরনদীর ২৫ হাজার মানুষ কোটালিপাড়ায় আশ্রয় নিয়েছিল। বিএনপি মতায় এসেছিল লুটপাট করতে। তারা বরিশালের ভিপি ফারুককে পেড়েক ঠুকে হত্যা করে। গৌরনদীর ২ বছরের শিশু অশ্রুকে হত্যা করা হয়। প্রধানমন্ত্রী ১৫ আগস্টের কথা স্মরণ করে বলেন, ঘাতকরা তার বাবা, ভাইকে হত্যা করেছে। আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহর পিতা আ: রব সেরনিয়াবাত ও তার পুত্রকে হত্যা করা হয়েছে। জিয়া হত্যাকারীদের পুরস্কৃত করা হয়েছে। তিনি অভিভাবকদের উদ্দেশ্য করে বলেন, সন্তানকে জঙ্গি, মাদকাসক্ত’র কবল থেকে রা করুন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার প্রায় ৩০ মিনিটের ভাষণের শেষ পর্যায়ে জনসভায় আগতদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আপনাদের কাছে ওয়াদা চাই। আগামীতে আওয়ামী লীগকে নৌকা মার্কায় ভোট দিবেন। হাত তুলে ওয়াদা করেন, দিবেন তো ভোট।’ এর আগে জনসভার সভাপতি বরিশাল জেলা আ’লীগের সভাপতি আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ এমপি প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বরিশালবাসীর জন্য ৭টি দাবি তুলে ধরেন। এগুলো হচ্ছে-পয়সার হাটের অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রকল্পে অর্থ বরাদ্দ, ভোলার গ্যাস বরিশালে সরবরাহ, বরিশাল বিমান বন্দরকে আন্তর্জাতিকমানের করা, বরিশালে স্বতন্ত্র মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয় করা, বরিশাল স্টেডিয়ামকে আন্তর্জাতিক মানের করা, বাবুগঞ্জ ভেটেনারি কলেজেকে পূর্ণাঙ্গ বিশ^বিদ্যালয় করা এবং সন্ধ্যা নদীতে সেতু নির্মাণ। জনসভায় শিল্পমন্ত্রী আমীর হোসেন আমু এমপি বলেন, আগামী নির্বাচনে শেখ হাসিনাকে বিজয়ী না করলে এ অঞ্চলের উন্নয়ন কার্যক্রম এগাবে না। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি বলেন, আগামী ডিসেম্বরে হাসিনার নেতৃত্বে ফের নৌকা তীরে ভিড়বে। ফরিদপুর থেকে কুয়াকাটা পর্যন্ত সড়ক ৪ লেনে শীঘ্রই উন্নীত করা হবে। তিনি সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘মহারানী এখন কারাগারে। এটা আদালতের বিষয়। আমরা খুশিও না, অখুশিও না।’ বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এমপি বলেন, ভোলা-বরিশাল সেতু হলে মূল ভূখ-ের সাথে দ্বীপ জেলা ভোলা মিলে যাবে। কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী এমপি বলেন, আগামী নির্বাচনে আ’লীগকে নির্বাচিত করলে এই বরিশাল খাদ্য ভা-ারে পরিণত হবে। সমাজকল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেন, এ বছর সিদ্ধান্ত হবে দেশ গণতন্ত্রের দিকে এগোবে না কি বিএনপি-জামায়াতের লুটপাটের দিকে এগোবে। এর আগে বরিশাল নগরীর বঙ্গবন্ধু উদ্যানের জনসভায় বক্তব্য রাখেন আ’লীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা সদস্য অ্যাড. ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বাহাউদ্দিন নাসিম, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. স ম রেজাউল কবির, কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. শাম্মী আহম্মেদ, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, বরগুনার সংসদ সদস্য ধীরেন্দ্রনাথ শম্ভু, সংসদ সদস্য জেবুন্নেছা আফরোজ প্রমুখ। এর আগে সকাল থেকেই জনসভায় বরিশাল নগরী এবং বিভাগের বিভিন্ন জেলা-উপজেলা থেকে নিজ নিজ এলাকার ব্যানার-ফেস্টুন নিয়ে হাজার হাজার মানুষ আসতে শুরু করে জনসভাস্থলে। দুপুর ২টার মধ্যেই কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় বিশাল আয়তনের বঙ্গবন্ধু উদ্যান। বঙ্গবন্ধু উদ্যানে স্থান না পেয়ে চারপাশের বিভিন্ন ভবনের ছাদ ও গাছে উঠেও প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য শোনে সাধারণ মানুষ।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।