আজকের বার্তা | logo

৬ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২০শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং

ঠান্ডা আর ঘন কুয়াশায় ঝরে পড়ছে পান পাতা

প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ০৮, ২০১৮, ০১:২২

ঠান্ডা আর ঘন কুয়াশায় ঝরে পড়ছে পান পাতা

কাউখালী প্রতিনিধি ॥ পিরোজপুরের কাউখালীতে এ বছরের প্রচ- ঠা-া আর ঘন কুয়াশার কারণে লতা থেকে ঝরে পড়ছে পান পাতা। পান চাষে সুখ্যাতি রয়েছে পিরোজপুরের কাউখালীতে। উপজেলার প্রায় প্রতিটি ইউনিয়নে পানের চাষ হয়। এখানের উৎপাদিত পানে ঝাঁজ কম থাকায় এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে দেশের বিভিন্ন এলাকায়। তবে পান পাতা ঝরে পড়ার কারণে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন চাষিরা। প্রাকৃতিক দুর্যোগ ছাড়া লাভজনক অর্থকরী ফসল পানের বড় শত্রু শীত আর কুয়াশা। এসময় লতা থেকে সবুজ পান পাতা ঝরে পড়ে। প্রতিবছর শীত মৌসুমে কাউখালীর চাষিরা কিছুটা তির সম্মুখীন হলেও এ বছর তা মারাত্মক রূপ ধারণ করেছে। উপজেলার পান চাষি সমিতি সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে প্রায় এক হাজার পান চাষি প্রায় ১০০-১৫০ হেক্টর জমিতে পান চাষ করছেন। উপজেলার কয়েক হাজার পরিবারের একমাত্র আয়ের উৎস এই পান চাষ। গত ঘূর্ণিঝড় সিডর ও জলোচ্ছ্বাস আইলায় এবং বর্ষা মৌসুমে ভারী বর্ষণের কারণে পান চাষিদের কয়েক বছর ধেরে লোকসন গুনতে হয়েছে। তাই পান চাষিরা অধীর আগ্রহে অপো করতে থাকেন শীতকালের জন্য। কারণ শীতকালে পানের দাম বেশি থাকে। বিগত প্রায় এক মাস ধরে পানের বরজের লতা থেকে ঝরে পড়ছে পান পাতা। প্রচ- শীত ও কুয়াশায় পান পাতা ঝরে পড়াসহ দেখা দিয়েছে বিভিন্ন ধরনের দাগ। এছাড়া আগা শুকিয়ে মরে যাচ্ছে লতা। পান পাতা পরিপক্ক না হওয়ায় সেগুলো বিক্রিও করতে পারছেন না চাষিরা। ঠা-া আর কুয়াশা থেকে পান পাতা রা করতে চাষিরা বরজের চারপাশ পলিথিন দিয়ে ঢেকে দিলেও তাতে কোন কাজ হচ্ছে না। আর এই দুঃসময়ে কৃষি বিভাগের কাউকেই পাশে পাওয়া যায় না বলে অভিযোগ চাষিদের।

আসপর্দ্দী গ্রামের পানচাষি কালাম জানান, পান চাষিরা সাধারণত বছরের শীত মৌসুমে লাভের আশায় থাকেন কিন্তু ঘন কুয়াশা ও শৈত্য প্রবাহে বিগত সব বছরের চেয়ে এ বছর সবচেয়ে বেশি পান ও পানের লতা ঝরে গেছে। পিরোজপুর জেলা পান চাষি সমিতির আহবায়ক কমরেড নিমাই মন্ডল জানান, বর্তমানে জেলার কৃষকদের কয়েক কোটি টাকার তি হয়েছে। এ বছরে তি পুষিয়ে ওঠার জন্য সরকার পান চাষিদের আর্থিকভাবে সহযোগিতা করলে আবারও তারা ঘুরে দাঁড়াতে পারবেন।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।