আজকের বার্তা | logo

১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

এসএসসি পরীক্ষার্থীর আত্মহত্যার চেষ্টা

প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৮, ০০:৪৭

এসএসসি পরীক্ষার্থীর আত্মহত্যার চেষ্টা

আগৈলঝাড়া প্রতিনিধি ॥ আগৈলঝাড়ায় স্বামীর স্বীকৃতি না পেয়ে অন্ত:সত্ত্বা এক এসএসসি পরীক্ষার্থী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। প্রতিকার না পেয়ে ওই শিক্ষার্থী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গলায় ফাঁস দেয়া আহত শিক্ষার্থীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার যবসেন গ্রামে নানা হাবিব সিকদারের বাড়ি থেকে উপজেলা সদরের শ্রীমতি মাতৃমঙ্গল বালিকা বিদ্যালয় থেকে এবছর এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করছিল শিক্ষার্থী সুমি আক্তার। সুমি জন্মের পর থেকে তার নানা বাড়ি থেকে লেখাপড়া করত। সে পটুয়াখালী জেলার আমতলী গ্রামের হারুন খানের মেয়ে। নানার পার্শ্ববর্তী বাড়ির মৃত হারুন সিকদারের ছেলে সজল সিকদারের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে সুমির। এক পর্যায়ে সুমি অন্ত:সত্ত্বা হয়ে পড়ে। সুমি বিয়ের জন্য সজলকে বললে সজল সুমিকে ঢাকা নিয়ে গত বছর সেপ্টেম্বর মাসে তাদের বিবাহিত দেখিয়ে একত্রে বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস শুরু করে। এর কিছু দিন পর সুমিকে লেখা পড়ার অজুহাত দেখিয়ে তার গর্ভের সন্তান কৌশলে নষ্ট করে তাকে পুনরায় বাড়ি এনে স্কুলে পাঠায় সজল। এরপর সজলও বাড়ি ফিরে আসে। এরই মধ্যে সুমি পুনরায় অন্ত:সত্ত্বা হয়ে পড়ে। সম্প্রতি সুমি সজল ও তার পরিবারকে আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে নিতে বললে সজল ও তার পরিবার তালবাহানা শুরু করে। এ ঘটনা নিয়ে এলাকায় একাধিকবার সালিস বৈঠক হয়। এই সময়ের মধ্যে সজল কৌশলে মালয়েশিয়া পাড়ি জমানোর চিন্তা করে। বিষয়টি সুমি জেনে স্ত্রীর দাবি নিয়ে শুক্রবার রাতে সজলের ঘরে উঠলে সজল ও তার মা মজিবন বেগম সুমিকে বেদম মারধর করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন। শুক্রবার রাতে সুমি ঘটনার বিবরণ দিয়ে থানার ডিউটি অফিসার এসআই মোশারফ হোসেনের কাছে লিখিত অভিযোগ করে। রাতে সজল আত্মগোপন করলে শনিবার সকালে সুমি খবর পেয়ে নানার ঘরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়। বাড়ির লোকজন সুমিকে উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতালে নিলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক সুমিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করেন। গতকাল শনিবার গণিত পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেনি সুমি। এসআই মোশারফ হোসেন জানান, অভিযোগের তদন্ত করতে তিনি শনিবার দুপুরে ওই বাড়িতে যান। এসময় স্থানীয় প্রভাবশালী সহিদ পাইক পুলিশের উপস্থিতিতে সুমির বাড়িতে আসলে সহিদের সামনেই সুমির নানা বাড়ির লোকজন সালিস মীমাংসার নামে একাধিক প্রহসনের বৈঠকের জন্য তাকে দায়ী করেন। এসময় সহিদ পাইক সুমি ও সজলের বিয়ে পড়িয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত জানান পুলিশকে। সহিদ পাইক সাংবাদিকদের জানান, সুমিকে স্ত্রীর মর্যাদায় আনুষ্ঠানিকভাবে ঘরে তুলে দেয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।