আজকের বার্তা | logo

২৮শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১১ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং

অবস্থান কর্মসূচি; আমাদের লড়াই খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার

প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৮, ০৩:১২

অবস্থান কর্মসূচি; আমাদের লড়াই খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার

অনলাইন ডেক্সঃ দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে মুক্ত করতে চলমান আন্দোলন আরো বেগবান করবে বিএনপি। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে এক ঘণ্টার অবস্থান কর্মসূচির সমাপনী বক্তব্যে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমাদের এ লড়াই খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে নিয়ে আসবার লড়াই, নেতাকর্মীদের মুক্ত করবার লড়াই। এ লড়াই বাংলাদেশের মানুষকে, গণতন্ত্রকে মুক্ত করবার লড়াই। আসুন, সেই লক্ষ্যে আমরা আন্দোলনকে আরো বেগবান করি।’

নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত এই অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হয়। সড়কের একপাশে ফকিরাপুল থেকে নাইটিঙ্গেল রেস্তোরাঁর মোড় পর্যন্ত সড়কের একপাশে নেতাকর্মী-সমর্থকরা এ কর্মসূচিতে অংশ নেয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, চিকিৎসক, প্রকৌশলী, আইনজীবী, কৃষিবিদসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার নেতাকর্মীরা কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি জানায়।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, সরকার খালেদা জিয়াকে কারাগারে নিয়ে মনে করেছে, মানুষকে স্তব্ধ করে দমিয়ে রাখা যাবে। সেটা হবে না। খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে বাংলাদেশের মানুষ অবশ্যই মুক্ত করে নিয়ে আসবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘যে কারাগার পরিত্যক্ত, জীর্ণ, ২০০ বছরের পুরনো একটি ভবন, আন্তর্জাতিক যে মানদণ্ড, আমাদের সংবিধানেও আছে, কখনো কোনো নাগরিককে সলিডারি কনফাইনমেন্টে পাঠানো যাবে না। আজকে খালেদা জিয়াকে সম্পূর্ণ একা এই পরিত্যক্ত কারাগারে পাঠিয়ে সরকার মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছে। তাদেরও একদিন বিচার হবে।’

স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, সরকার বিএনপি ও খালেদা জিয়াকে বাইরে রেখে আগামী সংসদ নির্বাচন করতে চায়। খালেদা জিয়াকে ছাড়া আগামী নির্বাচন করতে দেওয়া হবে না।

স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, সরকার প্রতিহিংসায় বিশ্বাস করে। আইনে বিশ্বাস করে না বলেই জেল কোডে যে নিয়ম আছে, তার বরখেলাপ করে খালেদা জিয়াকে নির্জন কারাবাসে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। তাঁকে মুক্ত করতে আন্দোলন ছাড়া বিকল্প নেই।

স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেন, আওয়ামী লীগের অনেক নেতা বলছেন, বিএনপিতে নাকি ভাঙন ধরবে, ভাঙন ধরেছে। বিএনপিতে ভাঙন ধরানোর ক্ষমতা বাংলাদেশের কোনো শক্তির নেই।

প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দীন চৌধুরীর পরিচালনায় অবস্থান কর্মসূচিতে আরো বক্তব্য দেন বিএনপি নেতা নজরুল ইসলাম খান, বরকতউল্লা বুলু, খন্দকার মাহবুব হোসেন, অধ্যাপক এ জেড এম জাহিদ হোসেন, আবদুস সালাম, মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, কাজী আবুল বাশার, আফরোজা আব্বাস, সাইফুল ইসলাম নিরব, সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, শফিউল বারী বাবু, মামুনুর রশীদ, ২০ দলীয় জোটের মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, খন্দকার লুৎফর রহমান, সাহাদাত হোসেন সেলিম প্রমুখ।

অবস্থান কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা আলতাফ হোসেন চৌধুরী, আবদুল আউয়াল মিন্টু, রুহুল কবীর রিজভী, শিরিন সুলতানা, আনোয়ারুল আজিম, এমরান সালেহ প্রিন্স, মীর শরাফত আলী সপু, নুরী আরা সাফা, আমিনুল হক, বেবী নাজনীন, মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, আবদুস সালাম আজাদ, শামীমুর রহমান শামীম, মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ, শহীদুল ইসলাম বাবুল, মাহবুবুল হাসান পিংকু, বজলুল করীম চৌধুরী আবেদ, সুলতানা আহমেদ, হেলেন জেরিন খান প্রমুখ।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।