আজকের বার্তা | logo

৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৮ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং

মহাসড়কের পাশে অর্ধ শতাধিক ধানের বাজার! রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার

প্রকাশিত : জানুয়ারি ২২, ২০১৮, ০১:২২

মহাসড়কের পাশে অর্ধ শতাধিক ধানের বাজার! রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার

আমতলী প্রতিনিধি ॥ পটুয়াখালী-কুয়াকাটা মহাসড়কের শাখারিয়া থেকে বান্দ্রা পর্যন্ত ৩৭ কিলোমিটার সড়কের উপরে অর্ধ শতাধিক অবৈধ ধানের বাজার গড়ে উঠছে। এতে যান চলাচলে মারাত্মক বিঘœ হচ্ছে। অহরহ ঘটছে দুর্ঘটনা। রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে সরকার। উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, আমতলী উপজেলায় এ বছর আমন ধানের উৎপাদনের লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছে ৭৮ হাজার মেট্রিক টন। এ ধানের ৬০ ভাগ কৃষক বিক্রি করেন। ফড়িয়ারা নিজেদের ইচ্ছা মাফিক মহাসড়কের উপরে অবৈধ ধানের বাজার গড়ে তুলে কৃষকদের কাছ থেকে ধান ক্রয় করছেন। এ সকল বাজারে ফড়িয়াদের কোন রাজস্ব দিতে হয় না। এতে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত বাজার থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন কৃষকরা। ফলে রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে সরকার। ফড়িয়ারা যশোর, খুলনা, গাইবান্ধা, কুষ্টিয়াসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ধান চালানের জন্য তাদের সুবিধার জন্য ট্রাক, কাভার্ড ট্রাক, লরি মহাসড়কের উপরে দাঁড় করিয়ে ধান বোঝাই করে থাকেন। এদিকে মহাসড়কের পাশে অবৈধ বাজার গড়ে ওঠায় সরকার কর্তৃক নির্ধারিত বাজারে কৃষকরা ধান নিয়ে যাচ্ছেন না। এতে সরকার রাজস্ব আদায় করতে পারছে না। ফলে হাট-বাজার ইজারাদাররা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। এভাবে চলতে থাকলে তারা হাট-বাজার ইজারা নিতে আগ্রহ হারিয়ে ফেলবেন বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা। গতকাল রবিবার সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, মহাসড়কের আমতলী থেকে বান্দ্রা পর্যন্ত ৩৭ কিলোমিটার সড়কে শাখারিয়া, ব্রিক ফিল্ড, কেওয়াবুনিয়া, মহিষকাটা, চুনাখালী, সাহেব বাড়ি, আকড়াগাছিয়া, ডাক্তার বাড়ি, শিকদার বাড়ি, ঘটখালী, একে স্কুল, বাঁধঘাট, হাসপাতালের সামনে, ছুড়িকাটা, মানিকঝুড়ি, খুড়িয়ার খেয়াঘাট, আকন বাড়ি, ফকির বাড়ি, খলিয়ান, কল্যাণপুর ও বান্দ্রাসহ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অর্ধশতাধিক অবৈধ ধানের বাজার রয়েছে। কল্যাণপুর গ্রামের মোঃ জলিল মিয়া জানান, ‘এখন আর ধান বিক্রি করতে বাজারে যেতে হয় না। ফড়িয়ারা বাড়িতে এসে ধানের বায়না করে যান। ধান গাড়িতে করে তাদের নির্ধারিত বাজারে পৌঁছে দেই।’ পশ্চিম সোনাখালী গ্রামের সোহেল রানা জানান, ‘বাড়িতে বসেই ফড়িয়াদের কাছে ধান বিক্রি করে সাহেব বাড়ি স্ট্যান্ডে পৌঁছে দিয়েছি।’ বরগুনা বাস মালিক সমিতির লাইন সম্পাদক মোঃ সজল মৃধা বলেন, ‘মহাসড়কে ধানের বাজার গড়ে ওঠার কারণে গাড়ি চলাচলে সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। অতিদ্রুত এ বাজার বন্ধের দাবি জানাই।’ আমতলী উপজেলা আড়তদার সমিতির কোষাধ্যক্ষ মোঃ জাকির হোসেন বলেন, উপজেলার মহাসড়কের উপরে অর্ধশতাধিক স্থানে ফড়িয়ারা অবৈধভাবে ধানের বাজার গড়ে তুলেছেন। এতে কৃষকরা সরকার কর্তৃক নির্ধারিত বাজারে ধান নিয়ে আসছেন না। ফলে আড়তদাররা চাহিদা মত ধান না পাওয়ায় তাদের ব্যবসা বন্ধের উপক্রম হচ্ছে। আমতলী উপজেলা ধান বাজারের ইজারাদার মোঃ কবির মৃধা বলেন, অবৈধভাবে মহাসড়কের উপরে ধানের বাজার গড়ে তোলায় ইজারাদাররা রাজস্ব আদায় করতে পারছেন না। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন সরকার ও ইজারাদার। তিনি আরো বলেন, এভাবে চলতে থাকলে আগামী বছরে হাট-বাজার ইজারা নেয়ার প্রতি আগ্রহ থাকবে না কারও। তিনি অতিদ্রুত অবৈধভাবে গড়ে তোলা ধানের বাজার বন্ধের দাবি জানান। আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সরোয়ার হোসেন বলেন, এমন অবৈধ ধানের বাজার বন্ধের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।