আজকের বার্তা | logo

১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং

ভোলায় ৩৭টি কেন্দ্রে চলছে কৈশোরবান্ধব স্বাস্থ্যসেবা

প্রকাশিত : জানুয়ারি ১৭, ২০১৮, ২০:৪৫

ভোলায় ৩৭টি কেন্দ্রে চলছে কৈশোরবান্ধব স্বাস্থ্যসেবা

ভোলা প্রতিনিধি: উপকূলীয় জেলা ভোলায় কৈশোরকালীন স্বাস্থ্যসেবা সকলের দোড়গোড়ায় পৌঁছে দিতে কৈশোরবান্ধব স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। ২০১৬ সালের মার্চে ভোলা সদর, লালমোহন ও চরফ্যাশন উপজেলার হাসপাতাল, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ইউনিয়ন স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে এই সেবা চালু হয়। বর্তমানে এই ৩টি উপজেলায় মোট ৩৭টি কেন্দ্রে সেবা দেওয়া হচ্ছে।

ফলে বিভিন্ন পর্যায়ের কিশোর-কিশোরীরা এখান থেকে স্বাস্থ্যসেবা, পুষ্টি, আয়রন ট্যাবলেট খাবার নিয়ম, মাসিককালীন পরিচর্যা, ব্যক্তিগত পরিষ্কার-পরিচ্ছনতা, বাল্য বিবাহের কুফলসহ নানা বিষয় সম্পর্কে জানতে পারছেন।

স্বাস্থ্য বিভাগের বাস্তবায়নে এই সেবাকেন্দ্রের সার্বিক সহযোগিতায় রয়েছে ইউনিসেফ বাংলাদেশ।

ভোলা জেলা সিভিল সার্জন রথীন্দ্রনাথ মজুমদার বলেন, কৈশোর বা বয়ঃসন্ধিকাল একজন কিশোর-কিশোরীর জন্য গুরুত্বপূর্ণ সময়। তাই এ সময় কিশোর-কিশোরীরা যাতে ভুল পথে না বাড়ায় তার জন্য আমাদের কৈশোর বান্ধব স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র কাজ করে যাচ্ছে।

এখানে আগত কিশোর-কিশোরীদের আমরা স্বাস্থ্য শিক্ষাসহ বিভিন্ন পরার্মশ দিয়ে থাকি। যাতে এরা ভুল পথে পা না বাড়ায়।

সিভিল সার্জন আরো বলেন, এখানে আমরা বাল্য বিবাহের কুফল, মাদকের কুফল সম্পর্কে ধারণা দিয়ে আসছি। বর্তমানে ৩টি উপজেলায় এর কার্যক্রমের সেবা নিচ্ছে প্রতিদিন গড়ে ৩০০ জন কিশোর-কিশোরী। ভবিষ্যতে ভোলার ৭ উপজেলাকে এই কার্যক্রমের আওতায় আনার পরিকল্পনা রয়েছে বলেও জানান তিনি।

শিবপুরের কিশোরী সেবাকেন্দ্রে সেবা নিতে আসা সদর উপজেলার শীবপুর ইউনিয়নের রতনপুর বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী লিমা, সালমা, ফাতেমা, লিপি, লিজাসহ আরো অনেকেই জানান, তারা আগে এই ইউনিয় স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রের পাশ দিয়ে যাতায়াত করতেন। কিন্তু এখানে যে কিশোরীদের স্বাস্থ্যসেবা দেয়ার জন্য যে একটি কর্নার রয়েছে তা জানতেন না। এখন জানার পরে তারা নিয়মিত এখানে এসে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাচ্ছেন।

বর্তমানে রক্তস্বল্পতা দূর করতে ডাক্তার বা স্বাস্থ্যকর্মীদের পরামর্শ অনুযায়ী সপ্তাহে ২টি করে আয়রন ফলিক এসিড ট্যাবলেট এবং আয়রন সমৃদ্ধ খাবার খাচ্ছেন।

শিবপুর স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র পরিদর্শিকা সেলিনা আক্তার বলেন, আগে কিশোরীরা অনেক কম আসতো। বর্তমানে কিশোরী কর্নার হওয়ার পরে এখন কিশোরীদের সেবা নেয়ার সংখ্যা বাড়ছে। এখন নিয়মিত ১০-২০ জন সেবা নিচ্ছেন।

কিশোরীদের আমরা স্যানিটারি প্যাডের ব্যবহার, বয়ঃসন্ধি সময়ের খাবার-দাবার, বয়ঃসন্ধিকাল ও কৈশোরের ঝুঁকি, কিশোর-কিশোরীদের স্বাস্থ্য ও পুষ্টি, কিশোর-কিশোরীদের প্রজনন স্বাস্থ্য, প্রজনন স্বাস্থ্য রক্ষায় করণীয়, বয়ঃসন্ধিকাল ও শরীরের পরিবর্তন, ব্যক্তিগত পরিষ্কার-পরিচ্ছনতাসহ বাল্য বিবাহ কুফল সম্পর্কে আমরা কিশোরীদের সচেতন করে থাকি।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।