আজকের বার্তা | logo

৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

ব্যানার ফেস্টুনে ঢেকে যাচ্ছে কুয়াকাটার সৌন্দর্য স্পট

প্রকাশিত : জানুয়ারি ২০, ২০১৮, ০০:১৩

ব্যানার ফেস্টুনে ঢেকে যাচ্ছে কুয়াকাটার সৌন্দর্য স্পট

কলাপাড়া প্রতিনিধি ॥ রাজনৈতিক নেতা আর জনপ্রতিনিধির পোস্টার, ব্যানার আর ফেস্টুনে ঢেকে যাচ্ছে সাগরকন্যা কুয়াকাটার অপরূপ সৌন্দর্য। পর্যটকরা দেখতে স্বাচ্ছন্দবোধ করছেন না কুয়াকাটার নৈসর্গিক দৃশ্যপট। প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখতে গিয়ে চোখের সামনে পড়ছে ব্যানার আর ফেস্টুন। দীর্ঘদিনেও এ অবস্থার নিরসন করা হয়নি। এসব ব্যানার-ফেস্টুন কিংবা পোস্টার অপসারণ না করায় কুয়াকাটার শূন্য পয়েন্ট থেকে সৌন্দর্যম-িত স্পটগুলো দেখতে গিয়ে পর্যটকরা ত্যাক্ত-বিরক্ত হচ্ছেন। হতাশায় পড়েছেন ব্যবসায়ীসহ সেখানকার সাধারণ মানুষ। সূর্যোদয়-সূর্যাস্তের মনলোভা দৃশ্যপট ছাড়াও কুয়াকাটায় রাখাইনদের জীবনযাত্রাসহ বিভিন্ন নিদর্শন দর্শনে আসেন প্রতিদিন হাজারো পর্যটক-দর্শনার্থী। এসব দর্শনে মুগ্ধ আগতরা। নিরাপত্তা আর প্রকৃতিপ্রেমী এসব মানুষ ভাললাগার উপলব্ধি থেকেই কুয়াকাটায় ছুটে যায়। চাহিদার তুলনায় অবাসন সঙ্কট প্রকট। তার মধ্যে কিছু অব্যবস্থাপনাও রয়েছে। ক্ষোভ রয়েছে আবাসিক হোটেলের ভাড়া নির্ধারণ নিয়ে। তারপরও পর্যটকরা একটু বিনোদন কিংবা প্রকৃতি দর্শনে ছুটে আসেন কুয়াকাটায়। বর্তমান সরকারও পর্যটকদের চাহিদা বিবেচনায় কুয়কাটাকে আন্তর্জাতিক পর্যটন কেন্দ্র রূপদানে সরকার হাতে নিয়েছে মহা পরিকল্পনা। পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে খুব শীঘ্রই নির্মাণ হচ্ছে পর্যটক পার্ক। যেখানে থাকছে কটেজ, সৈকতে সাঁতারের পর নারী পর্যটকদের পোশাক পরিবর্তনের জন্য একাধিক কক্ষের ওয়াশরুম, একটি উন্মুক্ত মঞ্চ। দেশি-বিদেশি পর্যটকদের ভ্রমণ তথ্য সরবরাহের জন্য থাকবে হেলপ ডেস্ক। কলাপাড়া উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, আবাসিক হোটেল-মোটেলসহ খাবার হোটেলের সেবার মানোন্নয়ন ও মূল্য পর্যটকদের সাধ্যের মধ্যে রাখতে প্রশাসনের উদ্যোগে নিয়মিত মনিটরিং রয়েছে। পর্যটকদের নিরাপত্তা এবং ভ্রমণ বিড়ম্বনা এড়াতে শৃঙ্খলায় আনা হয়েছে ট্যুরিজম ব্যবসায়ীসহ মোটরসাইকেল চালক ও ফটোগ্রাফারদের। ২০১৮ সালের মধ্যে মাস্টার প্ল্যানের আওতায় পর্যায়ক্রমে কুয়াকাটায় নির্মাণ করা হচ্ছে বিমান বন্দর, ওয়াচ টাওয়ার, আধুনিক হাসপাতাল, সুপার মার্কেট, জাদুঘর, আন্তর্জাতিক মানের স্টেডিয়াম, বিশ্ববিদ্যালয়, প্লে-গ্রাউন্ড, কনভেনশন সেন্টার, ফায়ার সার্ভিস, হিস্টরিক সাইট, বাস টার্মিনাল, ইকোপার্ক, মৎস্য মার্কেট, মেরিন পার্ক, মেরিন ড্রাইভ ও টেনিস পার্ক। বর্তমানে কুয়কাটার বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানসহ জিরো পয়েন্টে অবাধে ব্যানার, পোস্টার এবং ফেস্টুনের অবাধ ব্যবহারের কারণে কুয়াকাটার সৌন্দর্যহানি ঘটছে। পর্যটকদের মতামত, বিচসহ দৃষ্টি নন্দন সব এলাকায় পোস্টার-ব্যানারের ব্যবহার কুয়াকাটার স্বার্থেই বন্ধ করা প্রয়োজন। কুয়াকাটার পৌর কাউন্সিলর শাহ-আলম বলেন, ‘পোস্টার, ব্যানার, ফেস্টুনের সংস্কৃতি ছিল। আছে, থাকবে। তবে পর্যটন নগরী বিবেচনায় কুয়াকাটায় এর ব্যবহারে সতর্ক থাকা প্রয়োজন। পর্যটক কুয়কাটার প্রাণ। তারা বিরক্ত হয় এমন কাজ আমাদের পরিহার করা দরকার।’ কাউন্সিলর তোফায়েল আহমেদ তপু বলেন, ‘কুয়াকাটার উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দৃষ্টি রয়েছে। সেলক্ষ্যে তিনি কাজ করে যাচ্ছেন। সেখানে পর্যটকদের বিরক্ত করে এমন কালচার পরিত্যাগ করতে হবে।’ পৌর মেয়র আঃ বারেক মোল্লা বলেন, ‘বিষয়টি আমার নজরে পড়েছে।’ এগুলো আপসরণে উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে বলে দাবি করেন তিনি। কুয়াকাটা বিচ ম্যানেজমেন্ট কমিটির সদস্য, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানভীর রহমান বলেন, সাইনবোর্ড, ফেস্টুন, ব্যানার সরানোর পরিকল্পনা তাদের রয়েছে।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।