আজকের বার্তা | logo

৩রা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৭ই জুন, ২০১৯ ইং

প্রাইভেট না পড়ায় দুই শিক্ষকের বেত্রাঘাতে শিক্ষার্থী হাসপাতালে

প্রকাশিত : জানুয়ারি ০৬, ২০১৮, ২০:৩৬

প্রাইভেট না পড়ায় দুই শিক্ষকের বেত্রাঘাতে শিক্ষার্থী হাসপাতালে

বাগেরহাট: বাগেরহাট চিতলমারীর খালিশপুরে প্রাইভেট না পড়ার জের ধরে দুই শিক্ষকের বেত্রাঘাতে সুদিপ্ত বিশ্বাস (১৪) নামের এক শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়েছে। আহত ওই ছাত্রকে আজ বিকালে চিতলমারী উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার পর থেকে একটি প্রভাবশালী মহল বিষয়টি ধামাচাপা দিতে ওই শিক্ষার্থীর বাবা-মাকে হুমকি-ধামকি দিচ্ছে। সন্ধ্যায় হাসপাতালের গেটে দাঁড়িয়ে এমনটি জানিয়েছেন সুদিপ্তর বাবা সুশান্ত বিশ্বাস।

সুশান্ত বিশ্বাস আরও জানান, তার ছেলে সুদিপ্ত বিশ্বাস এস এস নিকেতন খালিশপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র। সে এক সময় ওই স্কুলের সহকারি শিক্ষক রণজিৎ বিশ্বাসের কাছে গণিত প্রাইভেট পড়ত। কিন্তু শিক্ষক রণজিৎ বিশ্বাস প্রায়ই ভারতে যাতায়াত করার কারণে তার ছেলের রেজাল্ট খারাপ হয়। সেই কারণে ওই শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়ানো বন্ধ করে দেয়া হয়। ওই শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট না পড়ার কারণে আজ দুপুরে স্কুলের প্রধান শিক্ষক অনাদি বিশ্বাস ও সহকারি শিক্ষক রণজিৎ বিশ্বাস জোড়া বেত দিয়ে তাকে বেদম প্রহার করে। একপর্যায়ে সুদিপ্ত অচেতন অবস্থায় ভ্যানে করে বাড়িতে আসলে তাকে সন্ধ্যায় চিতলমারী উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

চিতলমারী এস এস নিকেতন খালিশপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অনাদি বিশ্বাস ও সহকারি শিক্ষক রণজিৎ বিশ্বাস জানান, সুদিপ্ত একটু বেয়াদপ টাইপের। সে স্কুলে এসে সিগারেট খায়। নিষেধ না শোনায় তাকে কটু কথা বলা হয়েছে। বেত্রাঘাতের কোন ঘটনা ঘটেনি।

চিতলমারী উপজেলা হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. গৌতম মন্ডল জানান, সুদিপ্ত বিশ্বাসকে বেদম বেত্রাঘাত করা হয়েছে। তার সুস্থ হতে বেশ কিছুদিন সময় লাগবে।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।