আজকের বার্তা | logo

৩রা মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ১৬ই জানুয়ারি, ২০১৮ ইং

ঝালকাঠিতে তীব্র শীতে বিপর্যস্ত জনজীবন

প্রকাশিত : জানুয়ারি ০৮, ২০১৮, ১৮:২৯

ঝালকাঠিতে তীব্র শীতে বিপর্যস্ত জনজীবন

ঝালকাঠি প্রতিনিধি: হাড় কাঁপানো শীতে কাঁপছে উপকূলীয় জেলা ঝালকাঠির ছিন্নমূল মানুষ। শীতের সাথে যোগ হয়েছে ঘন কুয়াশা। বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। দিনের শুরুতে সূর্যের দেখা মেলে না। দিনের বেলায়ও হেড লাইট জ্বালিয়ে যানবাহন চলাচল করছে।ঢাকা রুটের লঞ্চ ও গাড়িগুলো ঘন কুয়াশার কারণে ৩/৪ ঘণ্টা বিলম্বে পৌঁছেছে গন্তব্যে। প্রচণ্ড শীতে অসহায় হয়ে পড়েছে দিনমজুরেরা ও নিম্ন আয়ের মানুষরা। পথঘাট জনশূন্য। অনেকে রাস্তার পাশে খড়কুটায় আগুন জ্বালিয়ে শীত নিবারণ করার চেষ্টা করছে।এদিকে শীতের কারণে ডায়রিয়া, নিউমোনিয়াসহ ঠান্ডাজনিত রোগ ছড়িয়ে পড়েছে।হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, হঠাৎ করে প্রচণ্ড ঠান্ডা আবহাওয়ার পরিবর্তনে ঠান্ডাজনিত রোগে নিউমোনিয়া, জ্বর ও সর্দিকাশিতে আক্রান্ত হচ্ছে অনেকে। আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে শিশু ও বৃদ্ধরাই বেশি। তীব্র এ শীতে স্থানীয় শীতবস্ত্রের বিপননগুলোতে প্রচুর ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

ঝালকাঠির নতুন চর এলাকার বাসিন্দা মো. হামিদ মিয়া বলেন, আমরা চর অঞ্চলের বাসিন্দারা বেশি শীতে আক্রান্ত। আমাদের চরের বেশির ভাগ মানুষ দিনমজুর। শীত আসলে সরকারি ও বেসরকারি ভাবে কম্বল বিতরণ করা হয় কিন্তু এখন পর্যন্ত এখানকার চরের মানুষরা কোনো কম্বল বা শীত বস্ত্র পায়নি।

দিনমজুর সেলিম বলেন, আমরা গরিব মানুষ দিন আনি দিন খাই। শীতে ছেলে-মেয়ের গরম কাপড় দিতে পারি না। আমরা একটা কম্বলও পাই নাই।

সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. গোলাম ফরহাদ জানান, হঠাৎ করে আবহাওয়ার পরিবর্তনে প্রচণ্ড ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশু ও বয়স্করা।

ঠান্ডায় বিনা প্রয়োজনে ঘরের বাইরে না বের হয়ে গরম কাপড় পরে নিরাপদে থাকা ও কোনো রোগে আক্রান্তের সাথে সাথেই হাসপাতালে নিয়ে আসার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন এ চিকিৎসক।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।