আজকের বার্তা | logo

৯ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

কলাপাড়ায় কৃষিখামারসহ মাছের ঘেরে লবণ প্রয়োগ

প্রকাশিত : জানুয়ারি ০৭, ২০১৮, ০২:২০

কলাপাড়ায় কৃষিখামারসহ মাছের ঘেরে লবণ প্রয়োগ

কলাপাড়া প্রতিনিধি ॥ এবার কাঁচা লবণ ছিটিয়ে কৃষিখামারসহ মাছের ঘেরের ব্যাপক ক্ষতি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। লতাচাপলী ইউনিয়নের ফাঁসিপাড়া গ্রামের কৃষক মোশারেফ মোল্লার এমন সর্বনাশের খবর মিলেছে। মোশারেফ জানান, ফি বছরের মতো এবছরও তিনি দেড় একর জমিতে চাইনিজ কমলা, আপেল, আম, লিচু, বেগুন, লাউ, করলাসহ ১৫-২০ প্রজাতির ফলজ ও কৃষিশস্যের আবাদ করেছেন। একই সঙ্গে করেছেন মাছের ঘের। কিন্তু দুই দিন আগে সকালে গিয়ে শত শত গাছের গোড়ায় কাঁচা লবণ ছিটানো দেখতে পান। এখন অনেক গাছ কুঁকড়ে যাচ্ছে। কোনটা নেতিয়ে পড়ছে। শনিবার বিকালে তিনি জানান, সাত লাখ টাকারও বেশি ক্ষতির কবলে পড়েছেন। এমন নাশকতার জন্য তিনি একই গ্রামের আমির আলীসহ তার ছেলেদের অভিযুক্ত করছেন। তার সাফল্যে ঈর্ষান্বিত হয়ে এমন নাশকতা করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নিবেন বলেও জানান মোশারেফ মোল্লা। তবে আমির আলী জানান, তিনি এ ব্যাপারে কিছুই জানেন না। তবে মোশারেফ মোল্লার বিরুদ্ধে সরকারি খাল ও কালভার্ট দখল করে অবৈধভাবে মাছের ঘের ও বাগান করার অভিযোগ তুলেছেন। যা নিয়ে উপজেলা প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগ দেয়ার কথাও জানালেন। লবণ দেয়ার ঘটনা সাজানো বলেও তার উল্টো দাবি। লতাচাপলী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আনসার উদ্দিন মোল্লা জানান, বিষয়টি দুঃখজনক। তবে এদের উভয়ের সঙ্গে ওই জমি ও খালের দখল নিয়ে বিরোধ রয়েছে। লবণ প্রয়োগে ক্ষেত নষ্ট করার ঘটনা শুনেছেন কিন্তু নিশ্চিত না হয়ে কিছু বলতে পারছেন না। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মসিউর রহমান বলেন, এখন ওই চাষির বেশি পরিমাণ মিঠা পানির সেচ দিয়ে ফসল রক্ষার চেষ্টা করতে হবে। এছাড়া নিজে পরিদর্শন করে পরবর্তী পরামর্শ দিবেন বলেও মন্তব্য করেন।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।