আজকের বার্তা | logo

৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

অরক্ষিত বরিশাল-ঢাকা ৫২ কি:মি মহাসড়ক: প্রশিক্ষিত সংঘবদ্ধ চক্র ঘটাচ্ছে দুর্ধর্ষ ছিনতাই

প্রকাশিত : জানুয়ারি ০৭, ২০১৮, ০২:২১

অরক্ষিত বরিশাল-ঢাকা ৫২ কি:মি মহাসড়ক: প্রশিক্ষিত সংঘবদ্ধ চক্র ঘটাচ্ছে দুর্ধর্ষ ছিনতাই

স্টাফ রিপোর্টার ॥ অরক্ষিত হয়ে আছে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের প্রায় ৫২ কিলোমিটার পথ। গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটিতে প্রায়সই ঘটছে ছিনতাই, রাহাজানি। সম্প্রতি ভুয়া ডিবি পরিচয়ে একাধিক ঘটনা ঘটায় জননিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়েছে। সংশ্লিষ্টরা এ জন্য হাইওয়ে পুলিশ ও থানা পুলিশের দায়িত্বহীনতাকে দায়ী করেছেন। পুলিশ ধারণা করছে, কোন বাহিনী থেকে বেরিয়ে আসা বিপথগামী প্রশিক্ষিত সদস্যরা একের পর এক এধরনের দুঃসাহসিক ঘটনা ঘটাচ্ছে। বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের গৌরনদীর সুন্দরদী এলাকার নীল খোলা ব্রিজের ঢালে বৃহস্পতিবার ডিবি পরিচয়ে কায়েস হাওলাদার নামে এক ব্যক্তির প্রায় ৩ লাখ টাকা ছিনতাই করে একটি চক্র। ওই চক্রটি মাইক্রোবাসে পালানোকালে ৫ ছিনতাইকারীকে কোটালিপাড়া থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে ডিবি’র পোশাক, হাতকড়া, ওয়াকি টকি সেট উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় কোটালিপাড়া ও গৌরনদী থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের হয়েছে। এর আগে গত ২১ ডিসেম্বর গৌরনদীর টরকী সোনালী ব্যাংক শাখা থেকে উত্তর কোরিয়া ফেরত জলিল নামের জনৈক ব্যক্তি আড়াই লাখ টাকা তোলেন। জলিল মহাসড়কের কসবা আল্লাহর মসজিদ বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকা থেকে টাকা নিয়ে যাওয়ার সময় ভুয়া ডিবি পরিচয়ে গাড়িতে তুলে তার সাথে থাকা নগদ টাকা কেড়ে নিয়ে রাস্তার পাশে ফেলে রাখে দুর্বৃত্তরা। এর আগে গত ২০১৬ সালে গৌরনদীর উত্তর বিজয়পুরে মহাসড়কে মোকলেছ নামে এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে মাইক্রোতে তুলে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটায় দুর্বৃত্তরা। এছাড়া মাওয়া যাওয়ার নামে মাইক্রোতে যাত্রীদের তুলে পথে মালামাল ও টাকা- পয়সা ছিনতাইয়ের ঘটনাও ঘটেছে এ মহাসড়কে। গৌরনদী থানার এসআই সগীর হোসেন জানান, একটি সংঘবদ্ধ চক্র দীর্ঘদিন ধরে মহাসড়কে আইনশৃংখলা বাহিনী পরিচয়ে ছিনতাই করে আসছে। পুলিশ এ বিষয়ে সতর্ক নজর রেখেছিল। বৃহস্পতিবার দুপুরে তিনি মহাসড়কে ডিবির পোশাক পরা কয়েকজনকে দেখে চ্যালেঞ্জ করেন। এসময় তারা দ্রুত মাইক্রোবাস নিয়ে ওই স্থান থেকে সটকে পড়ে। তিনি বিষয়টি ভাঙা পুলিশসহ আশপাশের সকল থানা পুলিশকে অবহিত করেন। একাধিকবার ছিনতাইকারীদের আটকানোর চেষ্টার পর কোটালিপাড়ায় তারা ৫জন ধরা পড়ে। এসআই সগির বলেন, সন্দেহ হচ্ছে তারা কোন আইনশৃংখলা বাহিনী থেকে বেরিয়ে আসা বিপথগামী সদস্য। এরা খুব চতুর ও প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। মোটরসাইকেল নিয়ে তাদের কিছুদূর ধাওয়া করে পরে সব থানায় অবহিত করেন। তিনি বলেন, গ্রেপ্তারকৃত ৫ জনকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে রিমান্ড আবেদন করবেন। এরপর আসল রহস্য বের করা হবে। এসআই সগির বলেন, মহাসড়ক দেখার দায়িত্ব হাইওয়ে পুলিশের। কিন্তু তারা তা কতটুকো দেখছে তা তার জানা নেই। গৌরনদী হাইওয়ে থানার ওসি শাহাদাত হোসেন বলেন, ভূরঘাটা থেকে বাবুগঞ্জের নতুন হাট পর্যন্ত প্রায় ৩২ কিলোমিটার মহাসড়ক তার থানার আওতাধীন। কিন্তু হাইওয়ে থানাকে বিশাল মহাসড়ক নিয়ন্ত্রণ করতে হয় মাত্র ১টি যানের মাধ্যমে। এরপরও সার্বক্ষণিক তারা মহাসড়ক টহল দিচ্ছেন। ছিনতাই, ডাকাতির ঘটনা মহাড়কে হয় না। ডিবি পরিচয়ে মহাসড়কে ছিনতাইয়ের খবর তাদের জানা নেই। এদিকে বিমান বন্দর থানা সংলগ্ন নথুল্লাবাদ থেকে দোয়ারিকা সেতু পর্যন্ত মহাসড়কেও একাধিক ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে। গত বছরের মার্চে রহমতপুর বাজার সংলগ্ন মহাসড়কের পাশে এক বিকাশ কর্মীর দেড় লাখ টাকা ছিনতাই হয়। এর আগে রহমতপুর কৃষি কলেজের স্টাফদের বেতনের প্রায় ১১ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। বাবুগঞ্জ সোনালী ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করে হাইওয়ে পেড়িয়ে যাওয়ার পথে ওই টাকা ছিনতাই হয়। পরে অবশ্য ১ জনকে আটকও করে বিমানবন্দর থানা পুলিশ। এছাড়া গতবছর ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের দোয়ারিকা ব্রিজে এক প্রেমিকযুগলের স্বর্ণের চেইন ছিনতাইয়ের ঘটনাও ঘটেছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। তবে বিমান বন্দর থানার ওসি আনোয়ার হোসেন বলেন, তার আওতাধীন ২০ কিলোমিটার মহাসড়কে পুলিশি পাহারা যথেষ্ট রয়েছে। যে কয়টি ঘটনা ঘটেছে সেগুলো হাইওয়ে থেকে শাখা রাস্তায় ঘটেছে। তাছাড়া মহাসড়কের নিরাপত্তায় হাইওয়ে পুলিশের ভূমিকা থাকা সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। এ ব্যাপারে সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন বরিশাল জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক কাজী এনায়েত হোসেন শিবলু বলেন, সংগঠনের নানা কাজে পরিবহনে তাকে রাজধানীতে যেতে হয়। কিন্তু মহাসড়কে হাইওয়ে পুলিশ কিংবা থানা পুলিশের কার্যক্রম তেমন একটা চোখে পড়েনি। সম্প্রতি ডিবি পরিচয়ে একাধিক ছিনতাই হয়েছে মহাসড়কে। এর আগে বিকাশ কর্মীর টাকা ছিনতাই হয়েছে এ মহাসড়কেই। তিনি বলেন, মহাসড়ক অনেকাংশেই অরক্ষিত থাকছে। যে কারণে মানুষ নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। এই চক্রটিকে দমনে আইনশৃংখলা বাহিনীর এসব বিষয় গুরুত্ব দেয়া প্রয়োজন বলে তিনি মনে করেন।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।