আজকের বার্তা | logo

৮ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২৩শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং

বরিশাল বিভাগে আমন সংগ্রহের টার্গেট কম

প্রকাশিত : ডিসেম্বর ২৫, ২০১৭, ০১:৩৭

বরিশাল বিভাগে আমন সংগ্রহের টার্গেট কম

স্টাফ রিপোর্টার ॥  আমন ধান উৎপাদনের জন্য যুগ যুগ ধরে প্রসিদ্ধ বরিশাল বিভাগ। কিন্তু খাদ্য অধিদপ্তরের আমন চাল সংগ্রহ কার্যক্রমে প্রতিবছরই বরিশাল আঞ্চলিক খাদ্য অধিদপ্তরকে সংগ্রহের লক্ষমাত্রা দেয়া হয় অনেক কম। অথচ যেসব এলাকায় আমন উৎপাদন অনেক কম হয়, সেসব এলাকায় আমন চাল সংগ্রহের লক্ষমাত্রা দেয়া হয় বরিশালের চেয়ে বেশি। বিভাগে এবার আমন চাল উৎপাদন সাড়ে ১৬ লাখ মেট্রিক টনের বেশি হলেও সংগ্রহের লক্ষমাত্রা দেয়া হয়েছে মাত্র ১ হাজার ৩৮৩ মেট্রিক টন। বরিশাল আঞ্চলিক খাদ্য অধিদপ্তর কার্যালয় সূত্রে জানা এ তথ্য জানা গেছে। খাদ্য অধিদপ্তরের দায়িত্বশীল একাধিক কর্মকর্তা বলেছেন, ভিজিএফ-ভিজিডিসহ বিভিন্ন খাদ্য সহায়তা কর্মসূচিতে বরিশাল অঞ্চলে বার্ষিক যে পরিমাণ চালের প্রয়োজন তা প্রতিবছর আমন মৌসুমে বরিশাল অঞ্চল থেকে সংগ্রহ করে স্থানীয় খাদ্য গোডাউনে মজুদ করা সম্ভব। কিন্তু কেন্দ্র থেকে তাদেরকে আমন চাল সংগ্রহের লক্ষমাত্রা কম দেয়ায় বরিশাল অঞ্চলের চাল চলে যাচ্ছে দেশের অন্যান্য বিভাগের খাদ্য গুদামে। ফলে সরকারের খাদ্য সহায়তা কর্মসূচি বাস্তবায়নে বরিশালের ওই চাল দেশের বিভিন্ন খাদ্য গুদাম থেকে ফের বরিশালে আনতে হয়। ফলে প্রতিবছর খাদ্য অধিদপ্তরের লাখ লাখ টাকা পরিবহন ব্যয় হয়। বরিশাল খাদ্য অধিদপ্তরকে আমন চাল সংগ্রহের লক্ষমাত্রা বৃদ্ধি করে দেওয়া হলে বাড়তি পরিবহন ব্যয় রোধ করা সম্ভব। বরিশাল আঞ্চলিক খাদ্য অধিদপ্তরের মজুদ শাখার কর্মকর্তা ওহাব খান জানান, চলতি মৌসুমে ৩ ডিসেম্বর থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সারাদেশে ৩ লক্ষাধিক মেট্রিক টন চাল সংগ্রহের লক্ষমাত্রা নির্ধারিত হয়েছে। আঞ্চলিক কৃষি অধিদপ্তর থেকে দেয়া তথ্যানুযায়ী চলতি মৌসুমে শুধুমাত্র বরিশাল বিভাগে চাল উৎপাদন হবে ১৬ লাখ ২৬ হাজার ২১৩ মেট্রিক টন। অথচ কেন্দ্রীয় খাদ্য অধিদপ্তর বরিশাল বিভাগের ৬ জেলায় চাল সংগ্রহের লক্ষমাত্রা দিয়েছে মাত্র ১ হাজার ৩৮৩ মেট্রিক টন। কিন্তু রংপুরে আমন ধান কম হলেও সেখানে এবার আমন সংগ্রহের লক্ষমাত্রা দেয়া হয়েছে প্রায় ১ লাখ মে: টন। বরিশাল জেলার ভারপ্রাপ্ত খাদ্য কর্মকর্তা মো: মশিউর রহমান বলেন, আমন উৎপাদনে বরিশাল প্রসিদ্ধ হলেও এ অঞ্চলে রাইস মিল কম থাকায় সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রাও কম দেয়া হয়। বরিশাল জেলায় ১টি রাইস মিল ও ৬টি হাসকিং রয়েছে। যেকারণে এ জেলায় আমন চাল সংগ্রহের লক্ষমাত্রা দেয়া হয়েছে ৩২০ মে: টন। যদিও এখানে আমন চাল উৎপাদন হয় বেশি। তবে খাদ্য অধিদপ্তরের নীতিমালা অনুযায়ী স্থানীয় মিলের ধারণ ক্ষমতার উপর নির্ভর করে বার্ষিক চাল সংগ্রহের লক্ষমাত্রা নির্ধারিত হয়। বরিশাল আঞ্চলিক খাদ্য অধিদপ্তরের প্রধান সহকারী মো. গোলাম কবির বলেন, গতবছর লক্ষমাত্রা উন্মুক্ত থাকায় বরিশাল বিভাগে ২৬ হাজার ৮৬২ মেট্রিক টন চাল সংগ্রহ হয়েছিল। এবছর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে দেয়ায় এ অঞ্চলে পর্যাপ্ত চাল থাকলেও তারা মজুদ করতে পারবেন না। গোলাম কবির বলেন, বরিশাল অঞ্চলে চাল সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা বৃদ্ধির জন্য কেন্দ্রীয় দপ্তরে চিঠি দেয়া হলেও কোন ফল পাওয়া যায়নি।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।