আজকের বার্তা | logo

৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং

পিরোজপুরে বখাটেদের হামলায় নদীতে পড়ে যুবক নিখোঁজ, আটক ৯

প্রকাশিত : ডিসেম্বর ২৪, ২০১৭, ১৭:৪২

পিরোজপুরে বখাটেদের হামলায় নদীতে পড়ে যুবক নিখোঁজ, আটক ৯

বার্তা প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে বখাটেদের হামলায় এক নদীতে পড়ে সবুজ নামে এক যুবক নিখোঁজ রয়েছে। মুমূর্ষু অবস্থায় অপর আরেকজনকে উদ্ধার করে মোড়েলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার দুপুর ১২টার দিকে ইন্দুরকানী ও মোড়েলগঞ্জ উপজেলার মধ্যবর্তী বঙ্গবন্ধু বাজার (গাজীরহাট) সংলগ্ন পানগুচি নদীতে এ ঘটনা ঘটে।

এঘটনায় ৭ যুবক ও ট্রলারের দুই মাঝিসহ ৯ জনকে স্থানীয় লোকজন ধাওয়া দিয়ে আটক করে গণপিটুনি দেয় স্থানীয়রা। পরে তাদের পুলিশে সোপর্দ করা হয়। ডুবে যাওয়া যুবককে উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছে ইন্দুরকানী থানা পুলিশ ও মোড়েলগঞ্জের ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা। এদিকে উদ্ধার হওয়া সার্ভেয়ারকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সন্ধ্যায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন, হাফিজ হাওলাদার(২০), হাসিব(১৭), অহিদুজ্জামান পরশ (৩০), সাইফুল রানা (২০), হাফিজুল ইসলাম (৩০), মাহামুদ (১৮) ও হাসিব (১৯)। এঘটনায় ট্রলারের মাঝি ছগির (১৭) ও হাসান কে (২০) প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জন্য আটক করা হয়েছে।

এদের মধ্যে হাফিজুল, হাসিব ও মাহামুদের বাড়ি পিরোজপুর সদর উপজেলার শংকরপাশা ইউনিয়নের দক্ষিন গাজিপুর গ্রামে। এছাড়া ট্রলারের দুই মাঝিসহ অপর চারজনের বাড়ি ইন্দুরকানী উপজেলার পাড়েরহাট ইউনিয়নে।

পুলিশ, প্রত্যক্ষদর্শী ও ট্রলারের মাঝি সূত্রে জানা যায়, শনিবার সকাল ৯টায় ইন্দুরকানী উপজেলার টগড়া ফেরিঘাট থেকে ট্রলার ভাড়া করে মোড়েলগঞ্জের উদ্দেশ্যে রওনা হয় ৬ যুবক। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মোড়েলঞ্জের ছোলমবাড়িয়া খেয়াঘাটে গিয়ে পৌঁছায় তারা। এরপর ট্রলারে থাকা ওই যুবকদের সহযোগী অহিদুজ্জামান পরশ নামে এক যুবক সেখান থেকে তাদের ট্রলারে ওঠেন। পরশ খুলনা থেকে ওখানে এসে তাদের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। এসময় তাদের সাথে খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (কেডিএ) এর সার্ভেয়ার সামছুল আরেফিন রনি ও তার সহযোগী সবুজ ট্রলারে উঠেন।

ছোলমবাড়িয়া থেকে ট্রলার যোগে ইন্দুরকানী ফেরার পথে পানগুছি নদীর গাজীরহাট সংলগ্ন স্থানে রনি ও সবুজের ওপর হামলা চালায়। এসময় তাদের দুজনকে মারধর করে ছুরিকাঘাত করলে তারা নদীতে পড়ে যায়। পরে নদীতে অপর একটি ট্রলারে থাকা লোকজন ও স্থানীয় লোকজন নদীর কিনার থেকে বিষয়টি দেখে আহত অবস্থায় নদী থেকে সামসুল আরেফিন রনি নামে একজনকে উদ্ধার করে। এছাড়া সবুজ পানিতে ডুবে যায়। এসময় ট্রলারটি পালিয়ে যাবার সময় স্থানীয় লোকজন ট্রলার নিয়ে তাদের ধাওয়া করে ধরে ওই যুবকদের আটক করেন। উদ্ধার হওয়া রনি ও নিখোঁজ হওয়া সবুজের বাড়ি খুলনার শেখ পাড়ায় বলে মোড়েলগঞ্জ থানা এস আই আবু মুছা জানিয়েছেন।

রনির বরাত দিয়ে এসআই আবু মুছা আজকের বার্তা’কে জানান, রনি খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষতে সার্ভেয়ার হিসাবে কর্মরত রয়েছেন। তার কাছ থেকে একটি বাড়ির নকশা তৈরীর করার জন্য ফোনে কন্টাক্ট করে রায়েন্দা যেতে বলছিলেন হাসান নামের এক যুবক। তবে তারা রায়েন্দা যাওয়ার পথ চিনতনা। রনির সাথে তার সহযোগী হিসাবে খুলনা থেকে এসেছেন সবুজ (৩৪) নামে এক যুবক। তারা ট্রলার যোগে পানগুছি নদী পার হওয়ার সময় অতর্কিত ভাবে হামলা করা হয়। ট্রলারে পূর্ব থেকে ৬/৭ জন যুব ছিলেন। এসময় হামলাকারীরা তাদেরকে ছুরিকাঘাতও করে। যুবকদের হামলায় গুরুতর আহত অবস্থায় নদীতে পড়ে যায় সবুজ। এসময় তাদের চিৎকারে ইন্দুরকানী প্রান্তের কলারন খেয়াঘাট এলাকার লোকজন নৌ যোগে তাদের ঘিরে ফেলে। হামলাকারীদের আটক করে ইন্দুরকানীর কলারণ ঘাটে নিয়ে আসে স্থানীয়রা। আহতাবস্থায় রনিকে উদ্ধার করে স্থানীয়রা মোড়েলগঞ্জ হাসপাতালে পাঠায়। পরে ইন্দুরকানীর বালিপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ সদস্যরা তাদেরকে আটক করে। তবে কেন খুলনা থেকে আসা ওই সার্ভেয়ার ও তার সহযোগির ওপরে হামলা করা হয়েছে তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

আজকের বার্তা’কে ইন্দুরকানী উপজেলার ঢেবসাবুনিয়া গ্রামের সেন্টু নামে এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, ওই ট্রলারটির কিছু দূরে আমরা অন্য একটি ইটের ট্রলারে আসতে ছিলাম। ট্রলারে ধস্তাধস্তির বিষয়টি দূর থেকে আমরা দেখতে পাই। এরপর নদীতে পড়ে যাবার পর ওই ট্রলারটি তাদের ফেলে কচা নদীর দিকে চালিয়ে যেতে থাকে। এসময় নদীতে পড়ে যাওয়া দুজনকে উদ্ধারের চেস্টা করলে রনি নামে একজনকে উদ্ধার করা সম্ভব হলেও অপর ব্যক্তি পানিতে ডুবে যায়। পরে আমরা চিৎকার শুরু করলে কলারন খেয়াঘাটের লোকজন ট্রলার নিয়ে যুবকদের ধাওয়া করে ধরে ফেলে।

ট্রলারের মাঝি ছগির আজকের বার্তা’কে জানান, পাড়েরহাট এলাকার কয়েকজন যুবক আমাকে পিকনিকের কথা বলে ট্রলারটি ভাড়া করে মোড়েলগঞ্জ নিয়ে যায়। এসময় ছোলমবাড়িয়া ঘাট থেকে ৩ জন অপরিচিত লোক আমার ট্রলারে ওঠে। এদের মধ্যে পরশ নামে এক যুবক তাদের পরিচিত ছিল। পরে ট্রলার ছেড়ে পান গুছি নদীর মাঝ খানে বসে ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এসময় ট্রলার থেকে দুই জন নদীতে পড়ে যায়।

আটক হাফিজ হাওলাদার নামে এক যুবক আজকের বার্তা’কে জানান, আমরা নদীতে ঘুরতে ও হরিনপালা ইকো পার্কে পিকনিকের উদ্দেশ্যে ট্রলারে বেরিয়ে ছিলাম। মোড়েলগঞ্জের নয়ন নামে এক যুবলীগ নেতার সাথে দেখা করতে আমরা ওখানে গিয়েছিলাম। সেখান থেকে হরিনপালা ইকো পার্কের উদ্দেশ্যে যাত্রী দুজনার সাথে ঝগড়া ঝাটি হলে ভয়ে তারা নিজেরাই নদীতে ঝাপ দেয়। এরপর আমরা তাদের উদ্ধারের চেস্টা করেছিলাম।

ইন্দুরকানী থানার এসআই আব্দুল আজিজ আজকের বার্তা’কে বলেন, এ ঘটনার সাথে জড়িত ৭ যুবককে আটক করা হয়েছে। এছাড়া ট্রলারের ২ মাঝিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। এ ঘটনার আসল রহস্য আমরা এখনো জানতে পারিনি। নিখোঁজ যুবককে উদ্ধারের জন্য আমরা চেষ্টা চালাচ্ছি।

Share Button


আজকের বার্তা

আগরপুর রোড, বরিশাল সদর-৮২০০

বার্তা বিভাগ : ০৪৩১-৬৩৯৫৪(১০৫)
ফোনঃ ০১৯১৬৫৮২৩৩৯ , ০১৬১১৫৩২৩৮১
ই-মেলঃ ajkerbarta@gmail.com

সামাজিক যোগাযোগ
Site Map
Show site map

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রকাশকঃ কাজী মেহেরুন্নেসা বেগম
সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতাঃ কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল
Website Design and Developed by
logo

আজকের বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।